অন্যান্য

১৩ জনের ঘাতক অবনীকে গুলি করে হত্যা

প্রকাশ : ০৩ নভেম্বর ২০১৮

১৩ জনের ঘাতক অবনীকে গুলি করে হত্যা

ছয় বছর বয়সী বাঘিনী অবনী। ছবি: এনডিটিভি

  অনলাইন ডেস্ক

ছয় বছর বয়সী বাঘিনী ‘অবনী’ গত দুই বছরে ১৩ জন মানুষকে হত্যা করেছে বলে অভিযোগ ওঠে। ভারতের মহারাষ্ট্রের পান্দারকাডা বন এলাকায় কয়েকবার তাকে ধরার চেষ্টা করেও ব্যর্থ হন বন বিভাগের কর্মকর্তারা। অবশেষে শুক্রবার রাতে অবনীকে গুলি করে মেরে ফেলা হয়েছে। খবর এনডিটিভির

মহারাষ্ট্রের রালেগাঁও থানার পুলিশ জানিয়েছে, আসগর আলি নামের একজন শ্যুটারের গুলিতে বাঘটি মারা গেছে।

গত আগস্টে এই বাঘিনীর হামলায় অন্তত তিনজনের প্রাণহানির পর স্থানীয় রাজনৈতিক নেতারা দেখা মাত্রই সেটিকে গুলি করে হত্যার নির্দেশ দিয়েছিলেন। কিন্তু এক বন্যপ্রাণী কর্মী এ আদেশের প্রেক্ষিতে সুপ্রিমকোর্টে রিট করেন।

বন্যপ্রাণী রক্ষাকারী কর্মীরা বাঘটিকে বাঁচানোর জন্য ব্যাপক প্রচারণা চালান। কিন্তু ভারতের সুপ্রীম কোর্ট জানায়, বন বিভাগের কর্মকর্তারা যদি বাঘটিকে গুলি করে তাহলে আদালত হস্তক্ষেপ করবে না। 

অবনীর দুই শাবক বেঁচে আছে যাদের বয়স ১০ মাস। প্রায় তিন মাস ধরে সর্বাধুনিক প্রযুক্তি সঙ্গে নিয়ে ১৫০ জন কর্মী, ট্র্যাকার বিশেষজ্ঞ এবং শ্যুটার অবনীকে খুঁজে বের করার চেষ্টা করেন।

২০১২ সালে অবনীকে প্রথম যভাতমলের জঙ্গলে দেখা গিয়েছিল। ডিএনএর প্রমাণ বলে তার আশেপাশের এলাকায় পাওয়া ১৩ টি লাশের মধ্যে ৫টি লাশের সাথে সেই যুক্ত। জীববিজ্ঞানী ও বন বিভাগের কর্মকর্তারা যারা গত কয়েক বছরে এলাকাটি জরিপ করেছেন তাঁরা জানিয়েছেন যে, সেখানে কেবল একটিই বাঘ রয়েছে। এই বাঘের ডিএনএ লাশের সঙ্গে পাওয়া গিয়েছে।

মন্তব্য


অন্যান্য