সারাদেশ

লঞ্চে তরুণীর মৃতদেহ, পরিচয় মিলল ফেসবুকের ছবিতে

প্রকাশ : ১১ সেপ্টেম্বর ২০১৯

লঞ্চে তরুণীর মৃতদেহ, পরিচয় মিলল ফেসবুকের ছবিতে

  গলাচিপা (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছবি দেখে অজ্ঞাত এক তরুণীর মৃতদেহের পরিচয় মিলেছে পটুয়াখালীর গলাচিপায়।

নিহত ওই তরুণী উপজেলার চিকনিকান্দি ইউনিয়নের কচুয়া গ্রামের আজিজ কারলের মেয়ে লামিয়া। বুধবার তার বড় ভাই মো. রাজিব ও এলাকাবাসী সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছবি দেখে মৃতদেহ শনাক্ত করেন।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন গলাচিপা থানার ওসি মো. আখতার মোর্শেদ।

চিকনিকান্দি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. সাজ্জাদ হোসেন রিয়াদ জানান, উপজেলার চিকনিকান্দি ইউনিয়নের কচুয়া গ্রামের আজিজ কারলের মেয়ে লামিয়া দীর্ঘদিন নানাবাড়ি পটুয়াখালী ও ঢাকা থাকতেন। ঢাকায় বসে মোবাইল ফোনে লালমনিরহাট জেলার কানসাই গ্রামের লুৎফর রহমানের ছেলে আল আমিনের সঙ্গে তারা প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে।

তিনি জানান, গত ২৫ জুন লামিয়াদের বাড়ি বেড়াতে এসে আল আমিন লামিয়াকে বিয়ে করেন। ১৭-১৮ দিন আগে ভাইয়ের বাড়ি বেড়ানোর পর ৫ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার আল আমিন ও লামিয়া গলাচিপা থেকে ঢাকার উদ্দেশে রওনা হন। শনিবার সকালে অজ্ঞাত হিসেবে গলাচিপা থানা পুলিশ বাগেরহাট-২ লঞ্চ থেকে লামিয়ার লাশ উদ্ধার করে পটুয়াখালী মর্গে পাঠায় এবং অজ্ঞাত হিসেবে আঞ্জুমান মুফিদুলে লাশ দাফন করা হয়।

লামিয়ার ভাই রাজিব বলেন, ১৭-১৮ দিন আগে তাদের বাড়িতে আল আমিন ও লামিয়া বেড়াতে আসেন। ৫ সেপ্টেম্বর তারা দোতলা লঞ্চে ঢাকা চলে যান। মঙ্গলবার সকালেও আল আমিন লামিয়ার ব্যাপারে আমাকে মোবাইল করে কথা বলেছেন।

গলাচিপা থানার ওসি আখতার মোর্শেদ জানান, লামিয়ার ভাই রাজিব ফেসবুকে ছবি দেখে তার বোনকে (লামিয়াকে) শনাক্ত করেন। গত শনিবার লাশ ময়নাতদন্তের জন্য পটুয়াখালী মর্গে পাঠানো হয় এবং ওই সময় লাশের পরিচয় না পাওয়ায় আঞ্জুমান মুফিদুলে দাফন করা হয়। তবে ঘটনার রহস্য উন্মোচনের জন্য তদন্ত চলছে।

মন্তব্য


অন্যান্য