সারাদেশ

পুলিশে চাকরি দেওয়ার নামে অর্থ আত্মসাৎ, প্রতারক গ্রেফতার

প্রকাশ : ১৯ জুন ২০১৯

পুলিশে চাকরি দেওয়ার নামে অর্থ আত্মসাৎ, প্রতারক গ্রেফতার

  বগুড়া ব্যুরো

বগুড়ায় পুলিশের কনস্টেবল পদে চাকরি দেওয়ার কথা বলে এক কলেজছাত্রের কাছ থেকে প্রায় এক লাখ টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগে প্রতারক আহসানুল কবিরকে গ্রেফতার করা হয়েছে। 

বুধবার দুপুরে শহরের লতিফপুর কলোনি এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ। আহসানুল পাবনা জেলা সদরের চক পৈলানপুর গ্রামের মৃত শামছুদ্দিনের ছেলে।

পুলিশ জানায়, বগুড়ার কাহালু উপজেলার সাকোহালি গ্রামের মাকছুদুর রহমানের ছেলে আসিফ খান স্থানীয় একটি পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের ছাত্র। তার সঙ্গে আহসানুল কবিরের পরিচয় হলে সে তাকে পুলিশের কনস্টেবল পদে চাকরি পাইয়ে দিতে চায়। এজন্য ছয় লাখ টাকা দাবি করে। চলতি বছরের ১৯ ফেব্রুয়ারি আসিফ খানের পরিবারের কাছ থেকে ৯২ হাজার টাকা নেয় আহসানুল। নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করলে বাকি টাকা দিতে হবে বলেও জানায়। 

সম্প্রতি বগুড়াসহ সারাদেশে পুলিশ কনস্টেবল পদে নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি পত্রিকায় প্রকাশিত হলে আহসানুল কবির বাকি টাকার জন্য আসিফের পরিবারকে চাপ দিতে থাকে।

সদর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) সুমন কুমার জানান, পুলিশ কনস্টেবল নিয়োগের ক্ষেত্রে সরকার নির্ধারিত ১০০ টাকা ছাড়া আর কোনো টাকা খরচের প্রয়োজন নেই। বগুড়ার পুলিশ সুপার আলী আশরাফ ভুঞার নির্দেশে এ-সংক্রান্ত ঘোষণা সংবলিত পোস্টার শহরজুড়ে সাঁটানো হলে আসিফ খানের সন্দেহ হয়। পরে সে পুলিশের সঙ্গে যোগাযোগ করে আহসানুলের প্রতারণার বিষয়টি জানায়। 

এ ঘটনা শোনার পর পুলিশ আহসানুলকে ধরার ফাঁদ পাতে। পুলিশের কথামতো বাকি টাকা নেওয়ার জন্য আহসানুলকে বুধবার দুপুরে কলোনির একটি এলাকায় আসতে বলে আসিফ। আহসানুল টাকা নিতে গেলে দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে পুলিশ সেখান থেকে তাকে গ্রেফতার করে।

আসিফ খানের চাচা মশিউর রহমান বাদী হয়ে প্রতারণার অভিযোগে আহসানুল কবিরের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন।

মন্তব্য


অন্যান্য