সারাদেশ

গোপালগঞ্জে ঘোড়দৌড় প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত

প্রকাশ : ২৩ মে ২০১৯ | আপডেট : ২৩ মে ২০১৯

গোপালগঞ্জে ঘোড়দৌড় প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত

কোটালীপাড়ায় শতবর্ষী ঐতিহ্যবাহী ঘোড়দৌড় প্রতিযোগিতা বুধবার অনুষ্ঠিত হয়

  গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি

গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়ায় শতবর্ষী ঐতিহ্যবাহী ঘোড়দৌড় প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বুধবার বিকেলে কোটালীপাড়া উপজেলার তেঁতুলবাড়ি গ্রামে এ প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। গ্রামের ঐতিহ্যকে ধারণ করে প্রতি বছর নতুন ফসল ঘরে তোলার পর তেঁতুলবাড়ি গ্রামবাসী শতবছর ধরে এ ঘোড়দৌড় প্রতিযোগিতার আয়োজন করে আসছেন।

খুলনা, নড়াইল, মাগুরাসহ বিভিন্ন জেলা থেকে ২৯ টি ঘোড়া এ প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করে। বিকেল ৪টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত ৭ রাউন্ডে ঘোড়াদৌড় প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। মাঠে বৃত্তাকারে ৭ রাউন্ডে রেসের ঘোড়াগুলো অন্তত ১১ কিলোমিটার পথ অতিক্রম করে।

ছকের প্রথম থেকে মাষ্টার বাশি বাঁজালে ঘোড়াদৌড়াতে শুরু করে। ঘোড়ার সোয়ার কৌশলে ঘোড়ার পিঠের সাথে মিশে পেছনের দিকে সজোরে বেত মারতে থাকে। বেতের আঘাতে ঘোড়া দ্রুত ছুটে চলে সামনের দিকে। উপস্থিত দর্শক দুপাশে দাঁড়িয়ে করতালি দিয়ে ঘোড়ার সোয়ারকে উৎসাহিত করে। শেষ মাথার গন্তব্য স্থলে নিরন্তর ছুটে চলে ঘোড়ার দল। এভাবেই গন্তব্যে যে ঘোড়া আগে পৌছায়, সে ঘোড়াই পর্যায়ক্রমে বিজয়ী হয়। গোপালগঞ্জ, বরিশাল, মাদারীপুর জেলার অন্তত লক্ষাধিক মানুষ গ্রাম বাংলার ঐতিহ্যে লালিত ঘোড়দৌড় প্রতিযোগিতা উৎসব মুখর পরিবেশে উপভোগ করেন।

এ প্রতিযোগিতা উপলক্ষে সেখানে বসেছিল দুই দিনব্যাপী গ্রামীণ মেলা। মেলায় বাঁশ, বেত, মাটি , কাঠ শিল্পের পাশাপশি মিষ্টি, মাছ, মুড়ি মুড়কির শতাধিক দোকান বসে। দোকান গুলোতে  প্রচুর বেচা-কেনা হয়েছে।

তেঁতুলবাড়ি গ্রামের প্রবীণ মধুসূধন হালদার বলেন, 'প্রতিবছর নতুন ফসল ঘরে তোলার পর আমরা গ্রামবাসী মিলে এ ঘোড়দৌড় প্রতিযোগিতার আয়োজন করি। আমি ছোটবেলা থেকেই এ প্রতিযোগিতা দেখে আসছি। আমার বাপ-দাদারা এ প্রতিযোগিতার প্রচলন করেছেন। এখন এ প্রতিযোগিতার বয়স প্রায় ১শ' বছর। এ প্রতিযোগিতা দেখতে বারিশাল, মাদারীপুর থেকে বিভিন্ন বয়সের মানুষ আসেন।'

গৃহবধূ ঝর্ণা মালাকার বলেন, 'ঘোড়দৌড় প্রতিযোগিতা দেখতে আত্নীয় স্বজন, জামাই-মেয়ে বাড়িতে এসেছে। সবাই একসঙ্গে ঘোড়দৌড় প্রতিযোগিতা উপভোগ করেছি। সেই সঙ্গে বাড়িতে ভাল খাবারের আয়োজন করা হয়েছে। দিনটি আনন্দেই কাটেছে।'

মাদারীপুর জেলার রাজৈর উপজেলার দর্শনার্থী বিপুল টিকাদার বলেন, 'আমি অনেক ঘোড়দৌড় প্রতিযোগিতা দেখেছি। কিন্তু তেঁতুলবাড়ি গ্রামের ঘোড়দৌড় প্রতিযোগিতায় বেশি মানুষ ও প্রতিযোগি ঘোড়ার সমাগম ঘটে। এ দুটি সমাগমই প্রতিযোগিতাকে উৎসব মুখর করে তুলেছে।'

প্রতিযোগিতায় নড়াইল জেলার লোহাগড়ার শিমুল শেখের ঘোড়া প্রথম, গোপালগঞ্জের মুকসুদপুর উপজেলার শাহাবুল মিয়ার ঘোড়া ২য় ও মাগুরা জেলার লতিফ শেখের ঘোড়া ৩য় স্থান অধিকার করে। পরে বিজয়ীদের হাতে রঙ্গিন টেলিভিশন ও নগদ টাকা তুলেদেন অতিথিরা।

মন্তব্য


অন্যান্য