সারাদেশ

চবি শিক্ষার্থীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

প্রকাশ : ০৬ ডিসেম্বর ২০১৮ | আপডেট : ০৬ ডিসেম্বর ২০১৮

চবি শিক্ষার্থীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

নিহত রাজু

  চবি প্রতিনিধি

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় (চবি) ক্যাম্পাসের একটি কটেজ থেকে জাহাঙ্গীর ইসলাম রাজু (২৩) নামে এক শিক্ষার্থীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। 

বৃহস্পতিবার বিকেলে সোহরাওয়ার্দী হলের পাশে অবস্থিত এতিম আলী কটেজের একটি কক্ষ থেকে তার লাশ উদ্ধার করে হাটহাজারী থানা পুলিশ। ওই কক্ষেই থাকতেন তিনি। রাজু বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের ২০১৪-১৫ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী বলে জানা গেছে। 

তিনি নোয়াখালী জেলার সোনাইমুড়ী থানার লেবানন প্রবাসী মো. সিরাজের ছেলে। 

হাটহাজারী উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) অং শাং খীসার উপস্থিতিতে তার লাশ উদ্ধার করে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

হাটহাজারী মডেল থানার ওসি বেলাল উদ্দিন জাহাঙ্গীর বলেন, আলামত দেখে প্রাথমিক ধারণায় মনে হচ্ছে রাজু আত্মহত্যা করেছেন। তবে ময়নাতদন্ত শেষে মৃত্যুর কারণ জানা যাবে।

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী প্রক্টর লিটন মিত্র জানান, রাজুর পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে কথা হয়েছে। ময়নাতদন্ত শেষে রাজুর পরিবারের কাছে লাশ হস্তান্তর করা হবে।

রাজুর সহপাঠীরা জানান, চলতি বছরের জানুয়ারির দিকে রাজু ওই কটেজ ভাড়া নেন। কটেজের ওই কক্ষে একাই থাকতেন তিনি। চাকরি এবং পড়াশোনা নিয়ে খুব বেশি চিন্তায় ছিলেন রাজু।

কটেজের অন্য শিক্ষার্থীরা জানান, বুধবার বিকেল থেকে মোবাইল ফোনে বারবার কল করার পরও ফোন রিসিভ না করলে রাজুর পাশের কটেজের এক শিক্ষার্থীকে জানায় তার ছোট ভাই। পরে ডাকাডাকির পরও ভেতর থেকে কোনো সাড়াশব্দ না পেলে জানালার ফাঁক দিয়ে রাজুর লাশ দেখতে পান তারা।

রাজুর চাচাতো ভাই মো. দিদারুল আলম সমকালকে বলেন, দুই ভাইয়ের মধ্যে বড় রাজু। তার পরিবারেও তেমন কোনো ঝামেলা নেই। তবে সে সবসময় চাকরি এবং পড়াশোনা নিয়ে চিন্তায় থাকত।

রাজুর সাবেক রুমমেট মো. আজিম বলেন, গত ৩০ নভেম্বর আমি চট্টগ্রাম শহরে বাসা নিই। যখন রাজুর সঙ্গে থাকতাম তখন দেখতাম মানসিকভাবে সবসময় হতাশাগ্রস্ত ছিল সে। বিভিন্ন সময় পত্রিকায় আত্মহত্যার কলাম দেখে আমাকে দেখাত এবং বলত দিন দিন আত্মহত্যা বেড়েই চলেছে।

মন্তব্য


অন্যান্য