শাহজাদপুর (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি

শাহজাদপুরে সাত পুলিশসহ ৫০ জনের নামে শাহজাদপুর আমলি আদালতে চাঁদা দাবিসহ বিভিন্ন অভিযোগে মামলা হয়েছে। বুধবার অ্যাডভোকেট মো. হাবিবুর রহমান বাদী হয়ে এ মামলা করেন। শাহজাদপুর আমলি আদালতের বিচারক এ মামলাটি সহকারী কমিশনারকে (ভূমি) তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিলের আদেশ দিয়েছেন। আসামিরা হলো শাহজাদপুর থানার এসআই গোলজার হোসেন, সাচ্চু বিশ্বাস, সামিউল ইসলাম, মতিউর রহমান, এএসআই আমজাদ হোসেন, কনস্টেবল ময়নুল হক ও সুমন সরদার।

এই মামলার ১-৩৩নং আসামিদের সঙ্গে স্বার্থসংশ্নিষ্ট বিষয় নিয়ে বিরোধ চলে আসছে। উভয় পক্ষের মধ্যে একাধিক মামলা চলমান আছে। কিন্তু নতুন কোনো মামলা বা গ্রেফতারি পরোয়ানা না থাকা সত্ত্বেও ঘটনার দিন রাতে ১-৩৩নং আসামিসহ সাত পুলিশ বাদীর ভাই মিজানুর রহমানের ঘরে ঢুকে পাঁচ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে এবং এই আসামিদের নামে দায়েরকৃত মামলা তুলে নিতে বলে। এ ছাড়া শাহজাদপুরের শেলাচাপরী মৌজার দশমিক ৮৫ শতক সম্পত্তির দাবি ছেড়ে দিতে বলে। কিন্তু ১নং সাক্ষী মিজানুর রহমান তা অস্বীকার করায় এসআই গোলজার হোসেন তাকে বেধড়ক মারপিট করে। মিজানুর রহমানের চিৎকারে তার স্ত্রী এগিয়ে এলে এসআই সামিউল শ্নীলতাহানি করে বলে মামলার আরজিতে উল্লেখ করেছেন বাদী। অন্যদিকে পুলিশের অভিযোগ, ওইদিন হ্যান্ডকাফসহ মিজানুর রহমানকে ছিনিয়ে নিয়ে যায় তার লোকজন। এ ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে অন্য একটি মোকদ্দমা  দায়ের করেছে।


মন্তব্য যোগ করুণ