ছাতক (সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধি

সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজারে প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতে গিয়ে সৎভাই আব্দুল আবিজকে গলা কেটে হত্যার দায় স্বীকার করল আসামিপক্ষ। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন আব্দুল আবিজ হত্যা মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা মঞ্জুরুল ইসলাম। গত রোববার সুনামগঞ্জ আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিতে হত্যার বর্ণনা দিয়েছে মামলার প্রধান আসামি আবুল কাশেম।

গত বৃহস্পতিবার রাতে দোয়ারাবাজার সদর ইউনিয়নের মাইজখলা (নয়াপাড়া) গ্রামের মোকশদ আলীর ছেলে আব্দুল আবিজ খুন হন নিজ বসতঘরে। খবর পেয়ে পরদিন শুক্রবার দুপুরে থানা পুলিশ আব্দুল আবিজের গলাকাটা লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠায়। এ সময় হত্যায় জড়িত সন্দেহে থানায় নিয়ে আসা হয় নিহতের চার সৎভাইসহ মোট ছয়জনকে। ওই সময় প্রতিপক্ষ মমিন উদ্দিনের ছেলে মইন উদ্দিন ও জসিম উদ্দিনকে ফাঁসাতে আব্দুল আবিজকে গলা কেটে হত্যা করার বিষয়টি স্বীকার করে নিহতের সৎভাই আবুল কাশেম। এর পরই মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা আদালতের মামলার প্রধান আসামি আবুল কাশেমের ১৬৪ ধারার জবানবন্দি রেকর্ড করেন। এই হত্যাকাণ্ডে গত শনিবার নিহতের ছেলে মোস্তাকিম মিয়া বাদী হয়ে তার চার সৎভাই আবুল কাশেম, আব্দুল আওয়াল, আব্দুল মজিদ ও ফয়জুর রহমানের বিরুদ্ধে থানায় হত্যা মামলা দায়ের করে।


মন্তব্য