ক্রীড়া প্রতিবেদক

দুশানবের সেন্ট্রাল স্টেডিয়াম। বাংলাদেশের জন্য এখনও দুঃস্মৃতির একটা মঞ্চ। যে মাঠে শেষ দুই ম্যাচেই ১০ গোল হজম করেছিল লাল-সবুজের পতাকাবাহীরা। এবার সেই তাজিকিস্তানের একই ভেন্যু থেকে শুরু হচ্ছে বাংলাদেশের বিশ্বকাপ ও এশিয়ান কাপ বাছাইপর্ব।

গ্রুপিং হওয়ার পর বাফুফের একটা চাওয়া ছিল, যাতে আফগানিস্তানে খেলতে যেতে না হয়। যদি বাছাইপর্বের হোম ম্যাচের ভেন্যু আফগানদের মাটিতে করা হয়, তাহলে আপত্তিও জানাবে তারা। মৌখিকভাবে বিষয়টি ফিফা-এএফসির কানেও দিয়ে রাখে বাংলাদেশ ফুটবলের এই অভিভাবক সংস্থাটি। তাতেই শুরু হয় যত আলোচনা। সে ক্ষেত্রে ১০ সেপ্টেম্বর বিশ্বকাপ বাছাইয়ের দ্বিতীয় পর্বের প্রথমটি কোথায় হবে, এ নিয়ে শুরু হয় নানা জল্পনা-কল্পনা। কখনও কাতারের দোহা, কখনও আবার আরব আমিরাতের দুবাই- এমন নামগুলো ঘুরেফিরে শোনা গিয়েছিল। শেষ পর্যন্ত এগুলো পাশ কাটিয়ে চূড়ান্ত হলো তাজিকিস্তানের সেই দুশানব। গতকাল এশিয়ান ফুটবল সংস্থা আনুষ্ঠানিকভাবে বিষয়টি জানিয়ে দিয়েছে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনকে। ফলে অতীতের তিক্ততা নিয়েই আফগানিস্তানের বিপক্ষে নামতে হবে বাংলাদেশকে। ১০ সেপ্টেম্বর স্থানীয় সময় ৭টায় শুরু হবে ম্যাচটি। যে ম্যাচ দিয়েই কাতার বিশ্বকাপ বাছাইয়ের দ্বিতীয় পর্বের মিশনে নামবে বাংলাদেশ। 'ই' গ্রুপে বাংলাদেশের বাকি তিন প্রতিপক্ষ ভারত, ওমান ও ২০২২ বিশ্বকাপের স্বাগতিক কাতার।

১০ অক্টোবর বাংলাদেশের দ্বিতীয় ম্যাচ। কাতারের বিপক্ষে ওই ম্যাচ হবে ঢাকায়। এরপর কলকাতায় ভারতের মুখোমুখি হবে তারা। ১৪ নভেম্বর নিজেদের চতুর্থ ম্যাচে ওমানের বিপক্ষে মাঠে নামবে বাংলাদেশ। এদিকে আফগানদের বিপক্ষে বাংলাদেশের হোম ম্যাচ আগামী বছরের ২৬ মার্চ। কাতারের বিপক্ষে অ্যাওয়ে ম্যাচ হবে ৩১ মার্চ। এ ছাড়া ভারতের বিপক্ষে হোম ম্যাচটি হবে ৪ জুন এবং ওমানের বিপক্ষে ৯ জুন হোম ম্যাচ খেলতে মাঠে নামবে বাংলাদেশ।


মন্তব্য