নতুন রূপে পুরনো দ্বৈরথ

প্রকাশ : ০৯ জুলাই ২০১৯

নতুন রূপে পুরনো দ্বৈরথ

  স্পোর্টস ডেস্ক

চট করে মনে করতে পারলেন না বিরাট কোহলি। প্রশ্নকর্তাকে পাল্টা প্রশ্ন করে বললেন, 'কেন উইলিয়ামসনকে আমিই আউট করেছিলাম! সত্যি তো? ...তবে এবার মনে হয় না ওরকম কিছু ঘটবে।'

ভারতীয় অধিনায়ক যে উইকেটটির কথা ভুলে গিয়েছিলেন, সেটি ১১ বছর আগের। আজ নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ভারতের বিশ্বকাপ সেমিফাইনাল, এ নিয়ে কথা বলতে গতকাল সংবাদ সম্মেলনে হাজির ছিলেন কোহলি। ২০০৮ সালেও বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে মুখোমুখি হয়েছিল ভারত-নিউজিল্যান্ড। সেটি ছিল যুব বিশ্বকাপ। অনূর্ধ্ব-১৯ বছর বয়সীদের সেই বিশ্বকাপের পর এবার ২০১৯ সালে এসে সিনিয়র দলের বিশ্বকাপে সামনাসামনি দুই দল। মজার বিষয় হচ্ছে, মালয়েশিয়ায় হওয়া সেই যুব বিশ্বকাপে ভারতকে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন কোহলি, আর নিউজিল্যান্ডের দায়িত্বে ছিলেন উইলিয়ামসন। অনূর্ধ্ব-১৯ দলের পর জাতীয় দল- ১১ বছর আগে-পরের ভিন্ন দুটি বিশ্বকাপে তারা দু'জন একই ভূমিকায়। এবারের সেমির লাইনআপ চূড়ান্ত হওয়ার পর থেকে কোহলি-উইলিয়ামসনের সেই পুরনো প্রতিদ্বন্দ্বিতার প্রসঙ্গ ভাসছে সামাজিক মাধ্যমে। সোমবার কোহলির সংবাদ সম্মেলনে এক সাংবাদিক প্রসঙ্গটি টেনে আনার পর বেশ স্মৃতিকাতর হয়ে উঠলেন কোহলি, 'ওই বিশ্বকাপ খেলা আমাদের ব্যাচ, নিউজিল্যান্ডের ব্যাচ এবং অন্যান্য দলের ব্যাচের অনেকেই এখন জাতীয় দলকে প্রতিনিধিত্ব করছে। ব্যাপারটা ভাবতেই আমার কাছে বেশ ভালো লাগছে। আর উইলিয়ামসনের সঙ্গে যে আবারও বিশ্বকাপ সেমিফাইনালে দেখা হয়ে যাবে, এটা আমি বা সে কখনও কল্পনাও করিনি। কাল (আজ) যখন দেখা হবে, ওকে আমি মনে করিয়ে দেব। আমি নিশ্চিত ১১ বছর পর বিশ্বকাপে নিজ নিজ দেশের সিনিয়র টিমকে নেতৃত্ব দেওয়ার অনুভূতিটা ওকেও ছুঁয়ে যাবে।' ২০০৮ সালের কুয়ালালামপুরের সেই ম্যাচটিতে ৩ উইকেটে জিতেছিল ভারত। কিউইরা প্রথমে ব্যাট করে ৫০ ওভারে ২০৫ রান তোলে, যেখানে উইলিয়ামসন করেন ৮০ বলে ৩৭ রান। তখনকার দিনে ওপেনিং করা উইলিয়ামসন স্টাম্পড হয়েছিলেন কোহলির মিডিয়াম পেসে। বৃষ্টিবিঘ্নিত ম্যাচটিতে ভারতের জন্য লক্ষ্য দাঁড়ায় ১৯১ রানের। চার নম্বরে ব্যাটিংয়ে নেমে কোহলি খেলেন ৫৩ বলে ৪৩ রানের ইনিংস। কাকতালীয় ব্যাপার হচ্ছে, এ যাত্রায় কোহলি আউট হওয়ার পথে কভার অঞ্চলে ক্যাচ ধরেন উইলিয়ামসনই। মানে, দুই অধিনায়কের আউটেই অন্যজনের ভূমিকা ছিল। সেদিন ৩ উইকেটে জেতার পর ফাইনালে দক্ষিণ আফ্রিকাকে হারিয়ে শিরোপাও জিতেছিল কোহলির দল। চ্যাম্পিয়নশিপের প্রত্যাশা এবারও। তবে কিউই দেয়াল টপকে যাওয়ার পথে সবচেয়ে বড় বাধা ওই চেনা প্রতিদ্বন্দ্বী উইলিয়ামসনই। ২৮ বছর বয়সী উইলিয়ামসন এখন তিন নম্বরে ব্যাট করেন। চলতি বিশ্বকাপে দলের তিনি সেরা পারফরমারও। আট ম্যাচে দল যা করেছে, তার ২৯ শতাংশ রানই তার। ৯৬.২০ গড়েছেন ৪৮১ রান, ম্যাচজেতানো সেঞ্চুরি করেছেন দক্ষিণ আফ্রিকা ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে। কোহলির অবশ্য এখন পর্যন্ত কোনো সেঞ্চুরি নেই। দলের সেরা পারফরমারও এখন তিনি নন, রোহিত শর্মা। তবে ভারতের ব্যাটিং লাইনআপে প্রতিটি দলেরই প্রধান লক্ষ্য এখন পর্যন্ত কোহলি। আট ইনিংসের পাঁচটিতে ফিফটিসহ ৬৩.১৪ গড়ে করেছেন ৪৪২ রান, উইলিয়ামসনের চেয়ে মাত্র ৩৯ কম!

অর্থাৎ, ১১ বছর আগের মতো এখনও নেতৃত্বের লড়াই তো আছেই, ব্যাটিংয়ে দলের সেরা অস্ত্র হয়ে ওঠার লড়াইও কোহলি-উইলিয়ামসনের চলছেই।


মন্তব্য