গতির ঝড় তুলছেন যারা

প্রকাশ : ১৩ জুন ২০১৯

গতির ঝড় তুলছেন যারা

  স্টেপার্টস ডেস্ক

একসময় বিশ্বক্রিকেটে শোয়েব আখতার আর ব্রেট লির গতির দ্বৈরথ ছিল দেখার মতো। আজ একজন সর্বোচ্চ গতির বলের রেকর্ড গড়তেন তো কালই সেটা ভেঙে দিতেন অন্যজন। ক্রিকেট ইতিহাসেই সবচেয়ে বেশি গতির তিনটি বলের দুটিই এই দুই গতিদানবের করা।

এরপর অনেকদিন কোনো গতির লড়াই দেখেনি ক্রিকেটবিশ্ব। লি-শোয়েবের পর অনেকে এলেও যোগ্য প্রতিদ্বন্দ্বীর অভাবে গতির চূড়ায় তারা ছিলেন নিঃসঙ্গ শেরপার মতো। এ বিশ্বকাপ যেন সে আক্ষেপ মিটিয়ে দিচ্ছে ভালোভাবেই। এমন বেশ কয়েকজন বোলারের দেখা পেয়েছে এ বিশ্বকাপ, যারা ঘণ্টায় ৯০ মাইলের ওপরে বল করতে পারেন।

বিশ্বকাপে এখন পর্যন্ত সর্বোচ্চ গতির সেরা পাঁচ বোলারের তালিকায় আছেন ইংল্যান্ডের মার্ক উড ও জোফরা আর্চার, অস্ট্রেলিয়ার মিশেল স্টার্ক, পাকিস্তানের ওয়াহাব রিয়াজ আর নিউজিল্যান্ডের লকি ফার্গুসন। তাদের মধ্য লড়াইটা সবচেয়ে জমে উঠেছে মার্ক উড আর জোফরা আর্চারের মধ্যে।

এখন পর্যন্ত এ বিশ্বকাপের সর্বোচ্চ গতির দুটি বল করেছেন এ দু'জন। গতিতে আর্চারের চেয়ে কিছুটা এগিয়ে আছেন উড। কার্ডিফে বাংলাদেশের সঙ্গে ম্যাচে স্পিডগানে উড তুলেছিলেন ঘণ্টায় ১৫৪ কিলোমিটার আর আর্চার ১৫৩। একই দলের হলেও গতির যুদ্ধে একে অন্যকে ছাড়িয়ে যাওয়ার চেষ্টার কমতি নেই দু'জনের মধ্যেই। এ নিয়ে দু'জনের মধ্যে খুনসুটি হলেও এটাকে নিজেদের জন্য ভালো বলে মনে করছেন উড। দ্য মিররকে তিনি বলেছেন, 'আর্চারের সঙ্গে বল করা একই সঙ্গে রোমাঞ্চকর আবার একটু হতাশারও! হতাশার এজন্যই যে তাকে দেখলে মনে হয় জোরে বল করাটা তার জন্য কতই না সহজ।'

এমন গতি অন্য দলগুলোর জন্য একধরনের সতর্কবার্তা বলেই মন করছেন উড। তিনি বলছেন, 'আগে আমরাও জনসন, স্টার্ক বা কামিন্সদের মতো বোলারদের জন্য হাহাকার করতাম। এখন আমাদের দেখেও অন্যরা ভয় পাবে।'


মন্তব্য