বিদায় বলে কাঁদলেন মারে

প্রকাশ : ১২ জানুয়ারি ২০১৯

বিদায় বলে কাঁদলেন মারে

গতকাল মেলবোর্নের সংবাদ সম্মেলনে অবসরের ঘোষণা দিতে এসে আবেগ হারিয়ে ফেলেন অ্যান্ডি মারে টুইটার

  স্পোর্টস ডেস্ক

সবাই যে যার মতো অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের প্রস্তুতি নিচ্ছেন। অ্যান্ডি মারেও অনুশীলন শেষ করে সংবাদ সম্মেলনে সবে পা রাখলেন। মাইক্রোফোনের সামনে বসেই কান্না। সামনে বসে থাকা গণমাধ্যমকর্মীরা তখনও বুঝে উঠতে পারেননি কী হতে যাচ্ছে। মিনিট দুয়েক পর কনফারেন্স কক্ষ থেকে নীরবে বেরিয়ে গেলেন। নিজেকে শান্ত করে আবেগকে কোনো মতে চেপে ফের সাংবাদিকদের মুখোমুখি হলেন। এরপর অশ্রুভেজা চোখ নিয়ে দিলেন বিদায়ী বার্তা, 'আমার শরীরের অবস্থা ভালো নয়। অনেক দিন ধরে অসুস্থ। ব্যথাটা কিছুতেই কমছে না। এই ব্যথা নিয়ে ২০ মাস আছি। ব্যথা কমাতে সব ধরনের চেষ্টা করেছি। কিন্তু আদৌ এ থেকে পরিত্রাণ পেলাম না। জানি না কবে সারবে ব্যথা। তবে আমি খুব করে চাচ্ছি অস্ট্রেলিয়ান ওপেন চালিয়ে যেতে। উইম্বলডনে থামতে চাই। জানি না পরের ছয় মাস ঠিকমতো কোর্টে থাকতে পারব কি-না। হয়তো এটাই আমার ক্যারিয়ারের শেষ টুর্নামেন্ট।'

দীর্ঘদিন থেকে ইনজুরির সঙ্গে লড়াই করছেন অ্যান্ডি মারে। গত বছর অস্ত্রোপচারের কারণে খেলতে পারেননি অস্ট্রেলিয়ান ওপেন। এতে করে র‌্যাংকিংও অবনম হয়। জুনে কোর্টে ফিরলেও খুব একটা ম্যাচ খেলার সুযোগ হয়নি। মাত্র ১৪ ম্যাচে দেখা যায় তাকে।

২০১৬ সাল ছিল মারের ক্যারিয়ারের বর্ণিল একটা বছর। সেবার প্রথমবারের মতো টেনিসের নাম্বার ওয়ান তারকার খেতাব লুফে নেন তিনি। টেনিস কোর্টে নিয়মিত দাপট দেখিয়ে জেতেন একাধিক তকমা। এখন পর্যন্ত তিনটি গ্র্যান্ডস্লাম শিরোপা জিতেছেন মারে। যার মধ্যে একটি ইউএস ওপেন আর দুটি উইম্বলডন।

১৪ জানুয়ারি থেকে শুরু অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের ১০৭তম আসর। ২৭ জানুয়ারি শিরোপা ফয়সালার মধ্য দিয়ে শেষ হবে টুর্নামেন্টটি। এবারের অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে মারের প্রতিপক্ষ স্পেনের বাতিস্তা। অস্ট্রেলিয়ার মেলবোর্ন পার্কে এর আগে অনেকবার আলো ছড়ালেও কাঙ্ক্ষিত মুকুট ধরা হয়নি তার। অদ্যাবধি পাঁচবার এই প্রতিযোগিতার ফাইনাল খেলেছেন ৩১ বছর বয়সী ইংলিশ তারকা। তবে ক্যারিয়ারের শেষ অস্ট্রেলিয়ান ওপেন কেমন হবে মারের, সেটাই এখন দেখার অপেক্ষা।


মন্তব্য