ধারাভাষ্যের মান নিয়ে বিসিবিও অখুশি

প্রকাশ : ১২ জানুয়ারি ২০১৯

  ক্রীড়া প্রতিবেদক

আল্ট্রা এজ এসেছে, দর্শক এসেছে, এমনকি মাঠের খেলায়ও জমজমাট ম্যাচ হয়েছে। এসবই গতকালের চিত্র। তার আগ পর্যন্ত বিপিএলের চলতি আসর কেবল 'নেই নেই'র তোড়ে ভেসে সমালোচিত হয়েছে। সমালোচনার বড় অংশজুড়ে ছিল সম্প্রচার। বিসিবি এবার নিজেরাই সম্প্রচারের দায়িত্বটি নিয়েছে। কিন্তু ভুলে ভরা সম্প্রচার, আল্ট্রা এজ বিহীন ডিআরএসে নিখুঁত সিদ্ধান্ত নিয়ে বিতর্ক এবং স্টাম্পে জিংক বেলের ঘোষণা দিয়েও না থাকা, টিভি ধারাভাষ্যে ভুল, সর্বোপরি মাঠে দর্শকের স্বল্পতা ও রান কম ওঠা- সব মিলিয়ে বিবর্ণ এক পরিবেশ। এমন এক প্রেক্ষাপটে গতকাল নিজেদের অবস্থান জানাতে সংবাদ সম্মেলন করে বিপিএল গভর্নিং বডি। বললেন, সবকিছু মিলিয়ে বিপিএল এখন যে অবস্থায়, তাতে তারা খুশি।

মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে আয়োজিত এ সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন বিপিএল গভর্নিং বডির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান শেখ সোহেল, সদস্য সচিব ইসমাইল হায়দার মল্লিক ও বিসিবি পরিচালক জালাল ইউনুস। সম্প্রচার ও গ্রাফিক্সে বয়স, রান ও স্কোর সংক্রান্ত ভুলের বিষয়ে মল্লিকের বক্তব্য হচ্ছে, 'গ্রাফিক্সের কয়েকটি ভুল আমাদের চোখে পড়েছে। হয়তো আরও কিছু ভুল আছে যেগুলো চোখে পড়েনি। আমরা কিন্তু এই ভুলগুলো প্রতিদিনই (রিয়াল ইমফ্যাক্টকে) জানাচ্ছি। পরে যেন আর ভুল না হয়। যন্ত্রপাতিগুলো দক্ষ লোকেরাই চালাচ্ছে। আমাদের ড্রোন এসেছে কানাডা থেকে, স্পাইডার ক্যাম অস্ট্রেলিয়া থেকে। ঠিক আইসিসি যেটি ব্যবহার করে সেই কোম্পানি থেকে আনা। একই মানুষই এই সিস্টেম অপারেট করছে।' প্রথমবারের মতো স্পাই ক্যাম, ড্রোন ব্যবহার ও ডিআরএস ব্যবহার করতে পারায় বিপিএল কর্তৃপক্ষ খুশি জানিয়ে মল্লিক বলেন, ধারাভাষ্য নিয়ে তারা নতুন করে ভাবছেন, 'আমরা বলছি না যে এটি বেস্ট প্রডাকশন। তবে প্রযুক্তি এবং যন্ত্রপাতির দিক থেকে এখন পর্যন্ত এর থেকে বেশি যন্ত্রপাতি আইসিসি বিশ্বকাপেও ব্যবহার করে না। যেগুলো সেরা প্রযুক্তি, সেগুলো আমরা নিয়ে এসেছি। আমরা ধারাভাষ্যের ব্যাপারটি নিয়ে ভেবেছি। সামনে আরও নতুন প্যানেল আসবে। ড্যারেল কালিনান আসার কথা। এ নিয়ে কথা চলছে। আরও কী কী করা যায়, আমরা চেষ্টা করছি।'


মন্তব্য