নিজের তৈরি রাস্তা নিজেই খুঁড়লেন ঠিকাদার!

  নাটোর প্রতিনিধি

নাটোরের বাগাতিপাড়া উপজেলার পাকা ইউনিয়নের চকগোয়াশ এলাকায় খানাখন্দে ভরা ৬০ মিটার রাস্তার সংস্কার শেষ করেছেন ঠিকাদার। তবে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর কর্তৃপক্ষ চূড়ান্ত পরিদর্শন না করা পর্যন্ত মিলবে না এ কাজের বিল। কর্তৃপক্ষ সন্তুষ্ট হলেই টাকা পাবেন ঠিকাদার স্থানীয় ইউপি সদস্য বাদশা মিয়া; কিন্তু এর আগেই ওই রাস্তায় শুরু হয় যানবাহন চলাচল। এতে রাস্তাটি ক্ষতিগ্রস্ত হলে বিল না পাওয়ার আশঙ্কা করেন বাদশা। এ অবস্থায় বিল আটকে যাওয়া ঠেকাতে রাস্তার মাঝ বরাবর গর্ত খুঁড়েছেন তিনি। এতে ওই রাস্তা দিয়ে যান চলাচলই বন্ধ হয়ে গেছে।

গত মঙ্গলবার সন্ধ্যার পর সংস্কার করা ওই রাস্তায় চার শ্রমিক দিয়ে তিন ফুট গর্ত খোঁড়েন বাদশা। একজন ইউপি সদস্যের এমন কাণ্ডের ছবি ছড়িয়ে পড়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। এলাকায় উঠেছে সমালোচনার ঝড়। যানবাহন চলাচল না করায় এখন হেঁটেই চলতে হচ্ছে এলাকাবাসীকে। এতে দুর্ভোগের শিকার হচ্ছেন কয়েক গ্রামের মানুষ।

জানা গেছে, সম্প্রতি এলজিএসপি প্রকল্পের আওতায় চকগোয়াশ কুলপাড়ায় ৬০ মিটার রাস্তার সংস্কার কাজ করেন ঠিকাদার বাদশা মিয়া। বিধি অনুযায়ী, স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর

কর্তৃপক্ষ চূড়ান্ত পরিদর্শন শেষে কাজ সন্তোষজনক ও সিডিউল মোতাবেক হয়েছে উল্লেখ করে প্রতিবেদন দিলেই বিল উত্তোলন করতে পারবেন তিনি।

এ ব্যাপারে বাদশা মিয়া বলেন, তিনি বিল উত্তোলনের আগেই ওই রাস্তা দিয়ে মালপত্র বহনকারী গাড়িসহ ভারী যানবাহন চলাচল শুরু হয়েছে। এতে রাস্তাটি ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। সংশ্নিষ্ট কর্তৃপক্ষ পরিদর্শনে এসে ক্ষতিগ্রস্ত রাস্তা দেখলে আটকে যেতে পারে তার বিল। তাই যান চলাচল বন্ধ করতে রাস্তা খুঁড়ে গর্ত করেছেন তিনি। এতে দুর্ভোগ তৈরি হওয়ায় দুঃখও প্রকাশ করেন তিনি।

বাগাতিপাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা প্রিয়াঙ্কা দেবী পাল বলেন, তিনি ঘটনাটি জেনেছেন। বিষয়টি খতিয়ে দেখে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।








মন্তব্য