আলো ছড়াবে মাশরুম

ফোকাস

প্রকাশ : ০৯ নভেম্বর ২০১৮

আলো ছড়াবে মাশরুম

   সমকাল ডেস্ক

নিত্যনতুন উদ্ভাবনে বিজ্ঞানীদের গবেষণার অন্ত নেই। ভূপৃষ্ঠ থেকে মহাকাশ- বিজ্ঞানীদের বিচরণ সবখানেই। রাতদিন এক করে তারা গবেষণার মাধ্যমে প্রতিনিয়ত নতুন নতুন আবিস্কার উপহার দিচ্ছেন পৃথিবীকে। আর এসবই পৃথিবীতে মানুষের জীবনযাপন আরও আরামদায়ক, মসৃণ করার জন্য। সম্প্রতি একদল বিজ্ঞানী নতুন একটি উদ্ভাবন নিয়ে হাজির হয়েছেন। আর তা

হলো- একটি বায়োনিক মাশরুম, যা থেকে ছড়াবে বিদ্যুতের আলো।

বায়োনিক এই মাশরুমকে থ্রিডি প্রিন্টেড ব্যাকটেরিয়া দিয়ে আবৃত করা হয়েছে। সঙ্গে রয়েছে ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র তার। বিজ্ঞানীরা বলছেন, এই থ্রিডি প্রিন্টেড ব্যাকটেরিয়া ও তারের সাহায্যে বিদ্যুৎ উৎপন্ন হয়ে এলইডি বাল্ক্বের মতো আলো ছড়াবে। বিজ্ঞানীরা জানান, এই ছত্রাকের ক্যাপের ওপর স্থাপিত থ্রিডি মুদ্রিত

ব্যাকটেরিয়া যখন ফটোসিনথেসিসের মাধ্যমে শক্তি সরবরাহ করে, তখন তা এর বৃদ্ধি, আর্দ্রতা এবং পুষ্টি সরবরাহ করে থাকে। ভারতের ব্যাঙ্গালুরুর ইনস্টিটিউট অব সায়েন্সের তত্ত্বাবধানে এই কাজের সঙ্গে সম্পৃক্ত রয়েছে আন্তর্জাতিক একটি গবেষক দল।

বিজ্ঞানীরা প্রথমে একটি জীবন্ত মাশরুমের ওপর ক্যাপ বসান। এরপর তার ওপর কুণ্ডলীর মতো করে এক ধরনের বায়ো-ইঙ্ক প্রিন্ট করেন, যেটাকে বলা হয় সাইনোব্যাকটেরিয়া। একাধিক বিন্দুতে সেই ইলেকট্রনিক কালি দিয়ে অন্তর্ছেদ করা হয়। এর ফলে ব্যাকটেরিয়ার ঝিল্লির বাইরে দিয়ে ইলেকট্রন প্রবাহিত হয়, যা আলো তৈরিতে সহায়তা করে থাকে।

এই বায়োনিক মাশরুম ৬৫ ন্যানোএএমপিস বিদ্যুৎ উৎপন্ন করতে সক্ষম। যদিও বর্তমানে তৈরি বায়োনিক মাশরুম থেকে একটি ইলেকট্রনিক ডিভাইসের জন্য পর্যাপ্ত বিদ্যুৎ পাওয়া যাবে না। তবে বিজ্ঞানীরা বলছেন, এটি নিয়ে আরও কাজ করা গেলে ভবিষ্যতে তা থেকে একটি এলইডি বাল্ক্বকে আলোকিত করার মতো পর্যাপ্ত বিদ্যুৎ পাওয়া যাবে। সূত্র :ডেইলি মেইল






মন্তব্য যোগ করুণ