সমকাল প্রতিবেদক

যারা সেবা রফতানি করে অনলাইন পেমেন্ট গেটওয়ের মাধ্যমে বিদেশ থেকে বৈদেশিক মুদ্রা উপার্জন করেন, তাদের জন্য সুখবর আসছে। একটি লেনদেনে বর্তমানের তুলনায় দ্বিগুণ পরিমাণ অর্থ আনার সুযোগ দিতে যাচ্ছে বাংলাদেশ ব্যাংক। বর্তমানে অনলাইন পেমেন্ট গেটওয়ের মাধ্যমে একটি লেনদেনে সর্বোচ্চ পাঁচ হাজার ডলার পর্যন্ত নিজের ব্যাংক হিসাবে নিতে পারেন সেবা রফতানিকারকরা। বাংলাদেশ ব্যাংক পরিমাণ ১০ হাজার ডলার করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। সংশ্নিষ্ট সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

ফ্রিল্যান্সার হিসেবে পরিচিত দেশের অনেক ব্যক্তি বিশ্বের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের ডাটা এন্ট্রি এবং ডাটা প্রসেস করে থাকেন। অনেকে অফশোর আইটি সার্ভিস দেন। আবার অনেকে বিদেশি প্রতিষ্ঠানের ব্যবসায়িক কার্যক্রমের সফটওয়্যার তৈরি করে দেন। এসব সেবা অনলাইনেই পাঠান ফ্রিল্যান্সাররা। আবার এর পারিশ্রমিকও পান অনলাইনে। এ ধরনের সেবা রফতানির অর্থ অনলাইন পেমেন্টে গেটওয়ে সার্ভিস প্রোভাইডারদের মাধ্যমে দেশে আনার জন্য ২০১১ সালে বাংলাদেশ ব্যাংক প্রথমে সুযোগ দেয়। ওই সময় ব্যাংকগুলোকে জানানো হয়, অনলাইন পেমেন্ট গেটওয়ে সার্ভিস প্রোভাইডারদের মাধ্যমে ফ্রিল্যান্সাররা নিজের অ্যাকাউন্টে ৫০০ ডলার পর্যন্ত আনতে পারবেন। এরপর তা বাড়িয়ে দুই হাজার ডলার করে বাংলাদেশ ব্যাংক। সর্বশেষ ২০১৬ সালের আগস্টে বাংলাদেশ ব্যাংক এ ধরনের সেবা রফতানির অর্থ একটি লেনদেনে সর্বোচ্চ পাঁচ হাজার ডলার পর্যন্ত আনার সুযোগ দেয়। এখন এ খাতে কাজ ও আয় বেড়ে যাওয়ায় অর্থ আনার সুযোগও বাড়ানো হচ্ছে।

বাংলাদেশ ব্যাংক সূত্র জানায়, বর্তমানে প্রতি মাসে প্রায় এক কোটি ডলার আসে অনলাইন পেমেন্ট গেটওয়েগুলোর মাধ্যমে।


মন্তব্য