চলচ্চিত্র উৎসবে নাটক টেলিছবির প্রদর্শনী!

'বোতল ভূত' নাটকের দৃশ্য

   আনন্দ প্রতিদিন প্রতিবেদক

উৎসাহ-উদ্দীপনা নিয়ে শুরু হয়েছে 'ঢাকা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব ২০১৯'। তবে উৎসব বিভিন্ন দেশের চলচ্চিত্র প্রদর্শনের জন্য হলেও সেখানে চলচ্চিত্রের পাশাপাশি স্থান পেয়েছে নাটক ও টেলিছবি। এ নিয়ে বিস্ময় প্রকাশ করেছেন চলচ্চিত্রবোদ্ধারা। খোঁজ নিয়ে জানা যায়, ওই উৎসবে ছবি প্রদর্শনের তালিকায় রয়েছে হুমায়ূন আহমেদের গল্পে মেহের আফরোজ শাওনের পরিচালনায় পাঁচ পর্বের নাটক 'বোতল ভূত', নাজনীন হাসান চুমকীর পরিচালনায় পাঁচ পর্বের নাটক 'মানুষ' এবং শামীম আখতারের পরিচালিত টেলিছবি 'মেঘনার একাত্তর'। 'বোতল ভূত' ও 'মানুষ' নাটক হিসেবে গেল বছর রোজার ঈদে এবং ২৬ মার্চ দুরন্ত টিভিতে টেলিছবি হিসেবে প্রচার হয়েছে 'মেঘনার একাত্তর'।

রেইনবো চলচ্চিত্র সংসদের আয়োজনে ১০ জানুয়ারি থেকে শুরু হওয়া দিনের ঢাকা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের ছবিগুলো জাতীয় জাদুঘরের মূল মিলনায়তন ও বেগম সুফিয়া কামাল মিলনায়তন, গণগ্রন্থাগারের শওকত ওসমান মিলনায়তন, আলিয়ঁস ফ্রঁসেজ মিলনায়তন, শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় চিত্রশালা ও যমুনা ব্লকবাস্টার সিনেমাসে প্রদর্শিত হচ্ছে। সেখানে আজ ও ১৬ জানুয়ারি 'বোতল ভূত', ১৪ জানুয়ারি 'মেঘনার একাত্তর' ও ১৫ জানুয়ারি 'মানুষ' প্রদর্শনের কথা রয়েছে। উৎসবে ৭২টি দেশের ২১৮টি চলচ্চিত্রের এই তালিকায় নাটক টেলিছবির দেখানো বিষয়টিতে অনেকে বিস্ময় প্রকাশ করেছেন।

আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে নাটক দেখানোর প্রসঙ্গে অভিনেত্রী ও পরিচালক মেহের আফরোজ শাওন বলেন, 'বোতল ভূত' প্রথমে পাঁচ পর্বের নাটক হিসেবে দুরন্ত টিভিতে প্রচার হয়েছে। পরে হুমায়ূন আহমেদের জন্মদিনে এটি টেলিছবি হিসেবেও প্রচার হয়েছিল। কিন্তু চলচ্চিত্র হিসেবে 'বোতল ভূত' বানানো হয়নি। নির্মাণের সময় যদি জানতাম এটা এ ধরনের একটি আন্তর্জাতিক উৎসবে দেখানো হবে তাহলে ফ্রেমিংগুলো চলচ্চিত্রের মতো করেই ভাবতাম। ছোট স্ট্ক্রিন ও বড় স্ট্ক্রিনের ফ্রেমিংয়ের তো পার্থক্য আমরা করি। সেদিক থেকে এ নিয়ে একটু অতৃপ্তি আছে।' 'ঢাকা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব'-এর গণমাধ্যম সমন্বয়ক রুহুল রবীন খান বলেন, দুরন্ত টিভি আমাদের মিডিয়া পার্টনার। ওই মিডিয়া থেকে শিশুতোষ চলচ্চিত্র 'বোতল ভূত', 'মানুষ', 'মেঘনার একাত্তর'- এই তিনটি চলচ্চিত্র আমাদের কাছে এসেছে। ছবিগুলো শিশু চলচ্চিত্র বিভাগে দেখানো হবে। আমরা নাটক হিসেবে পাইনি, এগুলো শিশুতোষ চলচ্চিত্র হিসেবেই উৎসবের জন্য মনোনীত হয়েছে। এগুলো টিভিতে দেখানো হয়েছে কি-না জানা নেই। ৭০ মিনিটের বেশি হলে সেটিকে আমরা ফিচার ফিল্ম বলছি। কিন্তু 'বোতল ভূত'র দৈর্ঘ্য ৯৩ মিনিট, 'মানুষ' ৯২ মিনিট, 'মেঘনার একাত্তর'-এর দৈর্ঘ্য ৮৮ মিনিট। তাই এগুলোকে আমরা চলচ্চিত্র হিসেবেই ধরে নিয়েছি।

নাম না প্রকাশ করার শর্তে দুরন্ত টেলিভিশনের এক প্রযোজক বলেন, 'বোতল ভূত' ও 'মানুষ' টেলিভিশন ফিল্ম হিসেবেই বানানো হয়েছে। পরে আমার পর্ব করে টেলিভিশনে নাটক হিসেবে প্রচার করেছি। কিন্তু মেঘনা একাত্তর টেলিছবি হিসেবেই প্রচার হয়েছে।


মন্তব্য যোগ করুণ