টেলিভিশন

সিনেমায় আসছেন সাবিলা নূর

প্রকাশ : ২৯ আগষ্ট ২০১৯ | আপডেট : ২৯ আগষ্ট ২০১৯

সিনেমায় আসছেন সাবিলা নূর

  এমদাদুল হক মিলটন

দূর আকাশে সাদা মেঘের ভেলা। অন্যরকম সাজে প্রকৃতি। অনিন্দ্যসুন্দর মেঘের ভেলা দেখে ইচ্ছে হয় ছুঁয়ে দিতে। যেন ভাবনার আকাশে ডালপালা জেগে ওঠে। সত্যিই যদি শুভ্র মেঘের রথে চড়ে পুরো পৃথিবীটা ঘুরে দেখা যেত! 

মডেল, অভিনেত্রী সাবিলা নূর নিজেকে এভাবে ভাবতে পছন্দ করেন। তার এই ছুটে চলা যেন অভীষ্ট লক্ষ্যে পৌঁছানোর প্রবল ইচ্ছা। তাই তো সবার মন জয় করে আগামীর পথে ছুটে চলেছেন তিনি। নির্মাতারাও সবসময় চ্যালেঞ্জিং চরিত্রগুলোতে তাকে নিয়ে কাজ করার আগ্রহ প্রকাশ করেন। গেল ঈদে 'তোমার চোখেতে', 'জোকার জসিম', 'বেটার হাফ', 'স্ট্ক্রিনশট', 'তোমার হাজবেন্ড কি জানে', 'রাজকুমার', 'ফালতু সিরিজ', 'তোমার গল্পে আমি নেই', 'উবার'সহ আরও কয়েকটি ঈদের কাজ নিয়ে অন্যরকম আলোচনায় তিনি। 

ঈদের আগে অন্য টিভিশিল্পীদের দম ফেলার ফুরসত ছিল না। তখন এসবের বিপরীতে শুধু সাবিলাকে ব্যস্ত দেখা যায়নি। ছিলেন একরকম গৃহবন্দি! প্রায় এক সপ্তাহ কাজ থেকে নিজেকে সরিয়ে রেখেছেন এই টিভি তারকা। এ প্রসঙ্গে সাবিলা বলেন, 'অন্য কিছু নয়, পড়াশোনার কারণেই এ অবস্থা। আমি এখনও পড়াশোনা করছি; আমেরিকান ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি-বাংলাদেশ [এআইইউবি]-এ ইংরেজি বিভাগে। ৩ থেকে ৮ আগস্ট পর্যন্ত ছিল ষষ্ঠ সেমিস্টারের মিডটার্ম পরীক্ষা। সেজন্য ঈদের নাটকে আমাকে কম দেখা গেছে। আগে পড়াশোনা শেষ হোক, তারপর সিরিয়াসলি কাজ করব। কাজের সংখ্যার দিকে কখনও তাকাইনি। এখনও আমি একটু একটু করে অভিনয় শিখছি।'

সাবিলার জন্ম ঢাকায়। প্রথম শ্রেণিতে পড়াকালে বুলবুল ললিতকলা একাডেমি থেকে নাচ শিখে পদ্মকুঁড়ি চ্যাম্পিয়ন হয়েছিলেন আজকের এই মডেল অভিনেত্রী। 

২০১২ সালে সাবিলা পরিচিত মুখ হলেও তার কাজের শুরু আরও আগে থেকে। ২০১০ সালে দশম শ্রেণিতে পড়াকালে ফটোসেশন করান আশীষ সেনগুপ্তের কাছে। তারপর তিনিই সব ব্যবস্থা করলেন। ছবি পাঠালেন বিভিন্ন বিজ্ঞাপনী সংস্থায়। সেই ছবি দিয়ে গন্ধরাজ হাঁস মার্কা  নারিকেল তেলের একটি বিজ্ঞাপনে ডাক পান সাবিলা। এরপর অনেক জনপ্রিয় বিজ্ঞাপনে নতুন নতুন রূপে তাকে দেখা গেছে। সাবিলা নূর বলেন, 'আমি নতুনত্বে বিশ্বাসী। আমি মনে করি, দর্শকদের ভিন্ন কিছু দিতে না পারলে কাজ না করাই উত্তম। যখন কোনো নতুন বিজ্ঞাপন নিয়ে দর্শকদের সামনে এসেছি সব বিজ্ঞাপনই দর্শক গ্রহণ করেছেন।' টিনএজ নাটকগুলোতে দর্শকরা তার সু-অভিনয় মনে রেখেছে। প্রায় নাটকেই ভিন্নধর্মী চরিত্রে বেশি দেখা যায় তাকে। এর জন্য নিজেকে প্রস্তুত করেন কীভাবে? 

'আমি এখনও আয়নার সামনে দাঁড়িয়ে একা একা অভিনয়ের অনুশীলন করি। আর চরিত্রের ভিন্নতা নিয়ে সবসময় ভাবি। যত নাটকে অভিনয় করেছি এসবের প্রতিটি নাটকে চরিত্রের ভিন্নতা রয়েছে। নিজেকে ভালোভাবে তৈরি করার চেষ্টা সবসময়ই ছিল। আগামীতেও থাকবে। নিজেকে একজন ভালো অভিনেত্রী হিসেবে দেখতে চাই বলে বেশ যত্ন নিয়ে অভিনয় করছি।' শুধু কি অভিনয় আর লেখাপড়া নিয়ে ব্যস্ততা। ব্যক্তিগত জীবনে প্রেম-বিয়ে নিয়ে ভাবনা কেমন? প্রেম নিয়ে এখন কিছু বলতে চাই না। তবে বিয়ে নিয়ে আরও অনেক পরে ভাবব। পড়াশোনা আগে শেষ করি। অভিনয়ে আরেকটু মনোযোগী হতে চাই। ক্যারিয়ার গড়ার জন্য এখনও অনেক কিছু করার বাকি। সেগুলো বিয়ের আগেই সেরে ফেলতে চাই- বললেন সাবিলা নূর। নাটক, স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র, মডেলিং করলেও পূর্ণদৈর্ঘ্য সিনেমায় দেখা যায়নি সাবিলা নূরকে। সম্প্রতি অনেক ছবিতে অভিনয়ের প্রস্তাব এসেছে। লেখাপড়ার ব্যস্ততায় তাতে সায় দেননি। ক্যারিয়ারের এই সময়ে এসে সিনেমা নিয়ে সিরিয়াস তিনি। অভিনয় করতে চান এই বড় মাধ্যমে। তিনি চান শক্তিশালী গল্প। তেমন কিছু পাণ্ডুলিপি হাতে এসেছে, কথাও চলছে। ব্যাটে-বলে মিললে যে কোনো সময়ই সিনেমায় অভিনয়ের ঘোষণা দেবেন এই মডেল অভিনেত্রী।

মন্তব্য


অন্যান্য