টেলিভিশন

মোশাররফ করিমের সুরত!

প্রকাশ : ১৪ আগষ্ট ২০১৯ | আপডেট : ১৪ আগষ্ট ২০১৯

মোশাররফ করিমের সুরত!

‘সুরত’ নাটকের একটি দৃশ্যে মোশাররফ করিম

  বিনোদন প্রতিবেদক

চরিত্রের প্রয়োজনে কত রুপ ধরতে হয় একজন অভিনেতাকে। টিভি নাটকের ভার্সেটাইল অভিনেতা মোশাররফ করিম। নাটকে মোশাররফ করিম মানেই যেন ভিন্ন কিছু। বহুমাত্রিক চরিত্রে অভিনয়ে তার জুড়ি মেলা ভাড়। নাটকে বিনোদনের পূর্ণ প্যাকেজের নামই মোশাররফ করিম।

প্রতিটি নাটকেই যেনো নিজেকে ভাঙ্গার চেষ্টা থাকে মোশাররফ করিমের। সে ধারাবাহিকতা দেখা যাচ্ছে এবারের ঈদুল আজহার নাটকগুলোতেও। ঈদের ‘সুরত’ নাটকে অন্য এক মোশাররফকেই দেখতে পাবেন দর্শক। যে মোশাররফ  করিমের কোন গ্ল্যামার নেই। মুখে কালি, কমদামি লুঙ্গী আর শার্ট। এতেবারে বস্তিতে থাকা এক সাধারণ মানুষ।

নাটকের গল্পের প্রয়োজনেই এমন চরিত্র তার। যে গল্পে দেখা যাবে, চলার পথে সুলতান মা হতে যাচ্ছেন তার স্ত্রী। সে আনন্দে আত্মহারা হয়ে যায়। কিন্তু পরক্ষণেই তার মনে শংকার জন্ম নেয় যদি তার অনাগত সন্তান দেখতে তার মতই হয়? কারণ তার চেহারা কুৎসিত। এই চেহারার কারণে তাকে দেখতে পারেনা কেউ। দূরে সরিয়ে রাখে। তারপরও সুলতানের শান্তনা যে  তার স্ত্রী পারুল তো তাকে  অনেক ভালোবাসে। ঘরে ফিরে সে পারুলকে এক অভিনব সিদ্ধান্ত জানায় যে, যতদিন না তার সন্তান ভুমিষ্ট হয় ততদিন সে তার কাছ থেকে মুখ লুকিয়ে রাখবে। এদিকে এ বস্তিতেই বসবাস করা হালিম পেশায় যে মেকআপম্যান, যাকে সুলতান এবং পারুল  নিজের ছোট ভাইয়ের মতো দেখে। ঘটনাচক্রে একদিন বাড়ী ফিরতেই আড়াল থেকে পারুল আর হালিমের কিছু কথা শুনে তার মাথায় যেন আকাশ ভেঙ্গে পড়ে। নানা ঘটনার মধ্য দিয়ে এগিয়ে যায় নাটকের গল্প। 

জুয়েল এলিনের রচনায় নাটকটি পরিচালনা করেছেন জাহিদুর রহমান। এতে মোশাররফ করিমের বিপরীতে অভিনয় করেছেন নাদিয়া। ঈদের ৪র্থ দিন রাত ৯টা ০৫ মিনিটে বাংলাভিশনে প্রচার হবে নাটকটি। 

মন্তব্য


অন্যান্য