প্রযুক্তি

মোবাইল ফোনে আসক্ত? বুঝবেন যেভাবে

প্রকাশ : ০৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯ | আপডেট : ০৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯

মোবাইল ফোনে আসক্ত? বুঝবেন যেভাবে

  অনলাইন ডেস্ক

মোবাইল ফোন এ সময়ে নিঃসন্দেহে একটি নিত্যসঙ্গী এবং গুরুত্বপূর্ণ ডিভাইস। তবে ফোনে অতি আসক্তি এক ধরনের রোগ। যারা ফোন হাতে না থাকলে বা ফোনের চার্জ শেষ হলেই অস্থির হয়ে যান, বিজ্ঞানীরা বলছেন তারা ‘নোমোফোবিয়া’-য় আক্রান্ত। চিনে নিন মোবাইলে আসক্তির কিছু লক্ষণ।

পাঁচ মিনিট
ফোন থেকে পাঁচ মিনিটও দূরে থাকতে অসহ্য লাগছে! ফোন যেন আপনার একটা অংশ হয়ে গেছে। হাতে, পকেটে, ব্যাগে না থাকলে অথবা দূরে চার্জে থাকলে উদ্ভট লাগে। বাসার বাইরে গিয়ে ফোন নেই মনে পড়লে চমকে উঠছেন, আর যত দেরিই হোক না কেন, স্কুল-কলেজ অথবা কাজে যেতে, ফোন আনতে বাসায় ছুটছেন আবার।

চেঁচিয়ে অস্থির
ফোন খুঁজে না পেলে আঁতকে উঠছেন। 'হায় খোদা, কেউ কি আমার ফোনটা দেখেছ?' -বলে চেঁচিয়ে পরে বুঝতে পারছেন, ফোনটা আসলে হাতেই ধরা!

ব্যাগটা ধরবি!
শপিং কিংবা লাঞ্চে- ফোনটাকে ব্যাগে বা পকেটে রাখতে পারছেন না। আপনার হাতেই যেন থাকতে হবে সব সময়। আর এ জন্য বন্ধুদের বার বার বলতে পিছপা হচ্ছেন না, 'ব্যাগটা একটু ধরবি?'

ফোন হাতে ঘুম
ফোন নিয়েই প্রতি রাতে ঘুমাতে যান। বালিশের নিচে হোক কিংবা পাশের টেবিলে, ফোন আপনার কাছে থাকা চাই। কোনো ম্যাসেজ এলো কিনা- দেখছেন একটু পর পর। ফোন হাতেই ঘুমিয়ে পড়ছেন।

চোখে ফোনের ডিসপ্লে
টেক্সট করতে করতে বা ফোনে কথা বলতে বলতে অন্যমনস্ক হয়ে ব্যথা পেয়েছেন কয়েকবার। হাঁটার সময় অন্যদের সঙ্গে ধাক্কা লাগছে, জিনিসপত্রে ঠোক্কর খাচ্ছেন। কিন্তু কোনো খেয়াল নেই; কারণ আপনি ফোনে ব্যস্ত। সব সময় চোখের সামনে ফোনের ডিসপ্লেটা ধরা।

অন্যে বিরক্তি
আপনার ফোন কেউ ধরলে বা ব্যবহার করতে নিলে প্রচণ্ড বিরক্ত লাগে!

নোমোফোবিয়ার লক্ষণ এগুলো৷ সুতরাং সচেতন হোন, অভ্যাসে পরিবর্তন আনুন। 

   


মন্তব্য


অন্যান্য