প্রযুক্তি

গ্লোবাল ইয়ুথ সামিট ও লিডারশিপ অ্যাওয়ার্ড পেলেন ৭ বাংলাদেশি

প্রকাশ : ১৪ মে ২০১৯ | আপডেট : ১৪ মে ২০১৯

গ্লোবাল ইয়ুথ সামিট ও লিডারশিপ অ্যাওয়ার্ড পেলেন ৭ বাংলাদেশি

  অনলাইন ডেস্ক

গ্লোবাল ইয়ুথ পার্লামেন্টের আয়োজনে নেপালে অনুষ্ঠিত হয়েছে গ্লোবাল ইয়ুথ সামিট ও লিডারশীপ অ্যাওয়ার্ড-২০১৯। ২৬ মার্চের এ অনুষ্ঠানে বিশ্বের ৪১টি দেশ থেকে ৪৭ জনকে পুরস্কারের জন্য নির্বাচিত করা হয়। বাংলাদেশ থেকে ৭ জন পুরস্কার পান।

নেপালের ন্যাশনাল অ্যাসেম্বলি অডিটোরিয়ামে বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন দেশটির সাবেক প্রধানমন্ত্রী জলোনাথ খোনেল। 

পুরস্কার বিতরণি অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন- নেপালের সাবেক অর্থমন্ত্রী রাম শারান মহত, বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রদূত, আন্তর্জাতিক সমাজকর্মী এবং গ্লোবাল ইয়ুথ পার্লামেন্টের সভাপতি দিয়াকর আরিয়াল। 

পুরস্কারপ্রাপ্ত সাত বাংলাদেশি হলেন- মোটিভেশন বিভাগে অ্যাডভোকেট রাওমান স্মিতা, লিডারশিপ বিভাগে অ্যাডভোকেট খালেদ মাসুদ মজুমদার এবং অ্যাডভোকেট ফারুক তপাদার, উদ্যোক্তা বিভাগে প্রকাশক মাশফিকুল্লাহ তন্ময় এবং সমাজকর্মী অ্যাডভোকেট আমানা আনোয়ার, ইনফ্লুয়েন্সার বিভাগে লেখক রাকিব আল হাসান এবং গণতন্ত্র বিভাগে ছড়াকার ও সাংবাদিক অনিক খান। 


সারা বিশ্ব থেকে নানা বর্ণ,গোত্র ও পেশার তরুণেরা মিলিত হয়েছিলেন এই সামিটে।। সবাই দেশ ও বিশ্ব নিয়ে তাদের চিন্তাভাবনা ও মতামত তুলে ধরেন। ‘টেকশই উন্নয়নে’ তরুণদের ভূমিকা কেমন হবে তা নিয়ে আলোচনা ও প্রশ্ন-উত্তর পর্ব চলে। এছাড়া নিজ নিজ সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য ও কৃষ্টি বিনিময়ের মাধ্যমে শেষ হয় অনুষ্ঠান।

অনুষ্ঠান শেষে বাংলাদেশের তরুণদেরকে গ্লোবাল নেটওয়ার্কিং এবং টেকসই উন্নয়নে বিশেষ ভূমিকা রাখার সুযোগ করে দিতে গ্লোবাল ইয়ুথ পার্লামেন্টের প্রেসিডেন্ট দিবাকর আরিয়ালের সঙ্গে বৈঠক করেন লাইফ কোচ অ্যাডভোকেট রাওমান স্মিতা। দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলো নিয়ে ‘২য় সার্ক ইয়ুথ কনফারেন্স ও লিডারশিপ অ্যাওয়ার্ড-২০১৯’ বাংলাদেশে পরিচালনার জন্য গ্লোবাল ল’থিঙ্কারস সোসাইটি’র পক্ষে প্রেসিডেন্ট অ্যাডভোকেট খালেদ মাসুদ মজুমদার ও  রাওমান স্মিতা দ্বিপাক্ষিক চুক্তি স্বাক্ষর করেন।

মন্তব্য


অন্যান্য