প্রযুক্তি

ভারতে টিকটক বন্ধের নির্দেশ

প্রকাশ : ০৪ এপ্রিল ২০১৯ | আপডেট : ০৪ এপ্রিল ২০১৯

ভারতে টিকটক বন্ধের নির্দেশ

টিকটক লোগো

  অনলাইন ডেস্ক

হাজারও আপত্তিকর কনটেন্ট ঘুরছে ইন্টারনেটে। মাত্র কয়েকদিনেই এসব ভিডিওর দর্শক ছড়াচ্ছে লাখের অঙ্কে। এসব ভিডিও দেখে ঘটছে আত্মহত্যার মতো ঘটনাও। অনাকাক্ষিত এসব ঘটনা এড়াতে আপত্তিকর কনটেন্ট ছড়ায় এমন অ্যাপসের বিরুদ্ধে বাংলাদেশ সরকার বার বার হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেছে।  

এরমধ্যে রয়েছে ইন্টারনেটে ভিডিও শেয়ারিংয়ের বহুল আলোচিত অ্যাপস টিকটকও। এবার পাশের দেশ ভারতে টিকটকের ওপর নিষেধাজ্ঞার দাবি উঠেছে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি জানিয়েছে, বুধবার মাদ্রাজ হাইকোর্টে এই অ্যাপসের বিরুদ্ধে করা এক আবেদনের শুনানি হয়। শুনানিতে আদালত জানান, টিকটকের ভিডিও শিশু-কিশোরদের পর্নোগ্রাফির প্রতি আসক্ত করছে। মাদ্রাজ হাইকোর্ট কেন্দ্রকে যত দ্রুত সম্ভব অ্যাপটি বন্ধ করার নির্দেশ দিয়েছেন। পাশাপাশি টিকটকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ারও নির্দেশ দিয়েছেন।

টিকটক বন্ধ চেয়ে সিনিয়র আইনজীবী ও অধিকারকর্মী মুথু কুমার আবেদন করেন। টিকটকের ভিডিওয়ের মাধ্যমে পর্নোগ্রাফি, সাংস্কৃতিক অবনতি, শিশু নির্যাতন ও আত্মহত্যা আরও বাড়ছে বলে অ্যাপসটি নিষিদ্ধ করার আবেদন জানান মুথু। বুধবার বিচারপতি এন কিরুবাকরণ ও বিচারপতি এস এস সুন্দরের বেঞ্চ টিকটক বন্ধের নির্দেশ দেন। 

সেইসঙ্গে শিশুদের ব্যবহারের ওপর নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা চালু করতে বিচারপতিরা আগামী ১৬ এপ্রিলের আগে চিলড্রেনস অনলাইন প্রাইভেসি প্রোটেকশন অ্যাক্টের মতো আইন প্রণয়নের জন্য কেন্দ্রীয় সরকারকে মতামত জানাতে বলেছেন।

টিকটকের এক মুখপাত্র সংবাদমাধ্যম রয়টার্সকে বলেছেন, কোম্পানি স্থানীয় আইন মেনে চলতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। আমরা আদালতের আদেশের অনুলিপির অপেক্ষায় রয়েছি। এরপরেই সংস্থা যথাযথ ব্যবস্থা নেবে।

এই অ্যাপটি বর্তমানে প্রায় ১ কোটি ভারতীয় ব্যবহার করছেন। টিকটক সোশ্যাল ভিডিও অ্যাপটি বেজিংয়ের বাইটডান্স সংস্থা তৈরি করে। ২০১৮ সালে এটি চতুর্থ সর্বাধিক ডাউনলোড হওয়া অ্যাপ্লিকেশন।


মন্তব্য


অন্যান্য