প্রযুক্তি

গুগল ডুডলে পহেলা বৈশাখ

প্রকাশ : ১৪ এপ্রিল ২০১৯

গুগল ডুডলে পহেলা বৈশাখ

ডুডলের মাধ্যমে পহেলা বৈশাখের শুভেচ্ছা জানিয়েছে গুগল

  অনলাইন ডেস্ক

আজ রোববার, পহেলা বৈশাখ। বাংলা ১৪২৬ সনের প্রথম দিবস। নতুন বছর উদযাপনে ব্যস্ত এখন দেশবাসী। বাঙালির সব জীর্ণতা, সব অমঙ্গলকে অগ্নিস্নানে পুণ্য করার প্রত্যয়ের এই দিনটিকে গুগল তাদের ডুডলের মাধ্যমে তুলে ধরেছে। গুগল লেখাটিকে বাঘের আকারে সাজিয়ে নববর্ষের শুভেচ্ছা জানিয়েছে তারা।

যারাই আজ গুগলের হোমপেজে যাচ্ছেন, তাদের সবারই চোখে পড়ছে বাঘের প্রতিকৃতি। লাল, সাদা, হলুদ, কালো রঙে আঁকা সেই বাঘ বাঁশের মাথায় তুলে ধরেছেন পহেলা বৈশাখের মঙ্গল শোভাযাত্রায় অংশ নেওয়া মানুষেরা।

গুগল ডুডল হলো, গুগল ওয়েবসাইটের হোমপেজে দেওয়া গুগলের সাময়িক লোগো। বিভিন্ন দিবস, জনপ্রিয় কাজ কিংবা নানা দেশের বিখ্যাত ব্যক্তিকে শ্রদ্ধা জানিয়ে এই ডুডল বানানো হয়।

ইতিহাসবিদদের মতে, বৈদিক যুগে বাংলা সনের প্রথম মাস ছিল অগ্রহায়ণ। মোগল সম্রাট আকবর ফসলি সন হিসাবের সুবিধার্থে বৈশাখ মাসকে প্রথম মাস ধরে বাংলা বর্ষপঞ্জি চালু করেন। নবাব মুর্শিদকুলি খান বৈশাখ মাস থেকে বাংলায় প্রথম খাজনা আদায় শুরু করেন। জমিদারি আমলে বৈশাখের মূল আয়োজন ছিল খাজনা আদায় উপলক্ষে 'রাজপুণ্যাহ' ও ব্যবসায়ীদের 'হালখাতা' উৎসব। জমিদারি প্রথা বিলোপের পর রাজপুণ্যাহও বিলুপ্ত হয়। আর আধুনিক সময়ে অর্থনৈতিক লেনদেনের ধারায় পরিবর্তন আসায় হালখাতাও তার জৌলুস হারিয়েছে। বর্তমানে পহেলা বৈশাখের আয়োজনে তাই মুখ্য হয়ে উঠেছে সাংস্কৃতিক কার্যক্রম, যা প্রবর্তনের কৃতিত্ব পুরোটুকুই কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের। তিনি শান্তিনিকেতনে প্রথম ঋতুভিত্তিক উৎসবের আয়োজন করেন। বর্তমানে এ উৎসবকে কেন্দ্র করে অর্থনৈতিক ক্ষেত্রেও এসেছে নতুন এক গতিশীলতা।

বর্ষবরণ উপলক্ষে রোববার রয়েছে সরকারি ছুটি। তবে স্কুল-কলেজসহ বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে আজ মঙ্গল শোভাযাত্রাসহ নানা সাংস্কৃতিক কার্যক্রম চলছে। দিবসটি উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, বিরোধীদলীয় নেতা হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ ও বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর পৃথক বাণীতে দেশবাসীকে নববর্ষের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। সংবাদপত্রগুলোও প্রকাশ করেছে বিশেষ ক্রোড়পত্র। রেডিও-টেলিভিশনে প্রচার হচ্ছে বিশেষ অনুষ্ঠানমালা।

মন্তব্য


অন্যান্য