প্রযুক্তি

শীর্ষে ফিরলো মাইক্রোসফট

প্রকাশ : ০২ ডিসেম্বর ২০১৮ | আপডেট : ০২ ডিসেম্বর ২০১৮

শীর্ষে ফিরলো মাইক্রোসফট

  অনলাইন ডেস্ক

প্রযুক্তি বিশ্বে সেরাদের লড়াইয়ে আবারও শীর্ষে উঠে এসেছে মাইক্রোসফট। এক্ষেত্রে কোম্পানিটি পেছনে ফেলেছে প্রয়াত স্টিভ জবসের গড়ে তোলা কোম্পানি অ্যাপলকে।

রোববার বার্তা সংস্থা এএফপির এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

এতে বলা হয়েছে, গত শুক্রবার মাইক্রোসফটের সম্পদের বাজারমূল্য অ্যাপলের সম্পদের বাজারমূল্যকে ছাড়িয়ে যায়। আর এর মধ্য দিয়েই ৮ বছর পর আবারও বিশ্বের সবচেয়ে দামি কোম্পানিতে পরিণত হয় বিল গেটসের গড়ে তোলা প্রতিষ্ঠানটি।

গত শতকের নব্বইয়ের দশক জুড়ে বিশ্বের সবচেয়ে দামি কোম্পানির মর্যাদা নিজেদের করে রাখা মাইক্রোসফটের মাথায় সর্বশেষ এ মুকুট শোভা পায় ২০১০ সালে। এরপর অ্যাপলের কাছে শীর্ষস্থান হারিয়ে বড়সড় পরিবর্তনের ভেতর দিয়ে যায় মাইক্রোসফট। বিল গেটস চেয়ারম্যানের পদ ছেড়ে মাইক্রোসফট থেকে সরে দাঁড়ান। এছাড়া ২০১৪ সালে স্টিভ বলমারের স্থলে প্রতিষ্ঠানটির প্রধান নির্বাহী দায়িত্ব নেন সত্য নাদেলা। নতুন প্রধান নির্বাহীর নেতৃত্বে চার বছরের কময় সময়েই আবারও শীর্ষে ফিরলো মাইক্রোসফট।

এ বিষয়ে জে গোল্ড অ্যাসোসিয়েটস’র প্রযুক্তি বিশ্লেষক জ্যাক গোল্ড বলেন, 'এ মুহূর্তে মাইক্রোসফট সব প্রতিযোগীকে পেছনে ফেলে শীর্ষ অবস্থানে রয়েছে।'

মাইক্রোসফট তার ব্যবসা বহুমুখী করাসহ সফটওয়ার, উইন্ডোজ অপারেটিং সিস্টেম ও পারসোনাল কম্পিউটার থেকে বিপুল আয় করছে। গত শুক্রবারের কার্যদিবস শেষে মাইক্রোসফটের বাজার মূলধন দাঁড়ায় ৮৫ হাজার ১২০ কোটি ডলারে। সত্য নাদেলা ২০১৪ সালে মাইক্রোসফটের প্রধান নির্বাহীর দায়িত্ব গ্রহণের পর থেকে প্রতিষ্ঠানটির বাজার মূলধন প্রায় তিনগুণ বেড়েছে।

অন্যদিকে গত আট সপ্তাহে অ্যাপলের বাজার মূলধন ২০ শতাংশ কমে গত শুক্রবার দিন শেষে দাঁড়ায় ৮২ হাজার ৬০০ কোটি ডলারে। একই সময় পর্যন্ত তৃতীয় স্থানে থাকা গুগলের মূল কোম্পানি অ্যালফাবেটের বাজার মূলধনের পরিমাণ ৭৬ হাজার ৩০০ কোটি ডলার।

সংশ্লিষ্ট খবর


মন্তব্য যোগ করুণ

পরের
খবর

চীনে আইফোন বিক্রি ও আমদানিতে নিষেধাজ্ঞা


আরও খবর

প্রযুক্তি

  অনলাইন ডেস্ক

চীনে আইফোন বিক্রি ও আমদানিতে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে দেশটির আদালত। চিপ নির্মাতা প্রতিষ্ঠান কোয়ালকমের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে সোমবার আদালত এ আদেশ দেয়। খবর সিএনএনের

আইফোন ৬এস, আইফোন ৬এস প্লাস, আইফোন ৭, আইফোন ৭ প্লাস, আইফোন ৮, আইফোন ৮ প্লাস এবং আইফোন এক্স-এর আমদানি ও বিক্রি বন্ধের নির্দেশ দিয়েছে আদালত।

তবে আইফোন এক্সএস, আইফোন এক্সএস প্লাস ও আইফোন এক্সআর-এর ক্ষেত্রে এ নিষেধাজ্ঞা প্রযোজ্য হবে না। 

অ্যাপল ও কোয়ালকমের মধ্যে চলমান পেটেন্ট মামলায় অ্যাপলের বিরুদ্ধে এ রায় দিয়েছে আদালত।

তবে অ্যাপলের এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, চীনে সব মডেলের আইফোন বিক্রি চালিয়ে যাবে তারা। 

কোয়ালকমের দাবি, নির্দিষ্ট কিছু আইফোনে তাদের নকশা নকল করেছে অ্যাপল। কিন্তু অ্যাপল তাদের কোনো ক্ষতিপূরণ দিচ্ছে না। 

সংশ্লিষ্ট খবর

পরের
খবর

সানগ্লাসে শোনা যাবে গান!


আরও খবর

প্রযুক্তি
সানগ্লাসে শোনা যাবে গান!

প্রকাশ : ০৮ ডিসেম্বর ২০১৮

  অনলাইন ডেস্ক

সানগ্লাসের সাহায্যে শোনা যাবে গান। শুধু গান নয় কাউকে ফোন করা বা ফোন রিসিভ করা যাবে যাবে সানগ্লাসে। এমনই সানগ্লাস বাজারে আনতে যাচ্ছে বিখ্যাত গ্যাজেটস নির্মাণকারী সংস্থা বোস।

কিভাবে কাজ করবে এই ‘স্মার্ট’ সানগ্লাস’? ‘বোস’-এর পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে, শুধুমাত্র গান শুনতে বা ফোন করতেই নয়, এই সানগ্লাসের সাহায্যে বিভিন্ন সংস্থার ভার্চুয়াল অ্যাসিসট্যান্টগুলোও ব্যবহার করা যাবে। অ্যালেক্সা, সিরি বা গুগল অ্যাসিসট্যান্টের মতো প্ল্যাটফর্মগুলোতে সহজেই নির্দেশ পাঠানো যাবে এই সানগ্লাসের মাধ্যমে।

আপাতত ওয়েফেরার ও সামান্য গোলাকার আকৃতির ফ্রেমে এই সানগ্লাস পাওয়া যাবে বলে জানানো হয়েছে। ৪৫ গ্রামের মধ্যেই থাকবে এর ওজন। ক্ষতিকর সৌর রশ্মি আটকানোর জন্য ইউভি-ব্লকিং সিস্টেমও থাকছে এই সানগ্লাসে। তবে ব্যবহার করার জন্য চার্জ দিতে হবে এই সানগ্লাসগুলোতে। একবার চার্জ দিলে ১২ ঘণ্টা চলবে।

২০১৯ এর শুরুতেই এই সানগ্লাস বাজারে আসবে বলে জানিয়েছে ‘বোস’। আমেরিকার বিভিন্ন জায়গায় ইতিমধ্যেই এর অগ্রিম বুকিং শুরু হয়ে গেছে। একটি সানগ্লাসের দাম পড়বে প্রায় ১৯৯ মার্কিন ডলার ( ১৬ হাজার ৬৫১ টাকা)। সূত্র: গ্যাজেট নাউ ও আনন্দবাজার।  

পরের
খবর

হুয়াওয়ের নির্বাহীকে গ্রেফতারে রাজনৈতিক উদ্দেশ্য নেই: ট্রুডো


আরও খবর

প্রযুক্তি

  অনলাইন ডেস্ক

চীনের টেলিকম জায়ান্ট হুয়াওয়ের প্রতিষ্ঠাতা রেন ঝেংফেইয়ের মেয়ে মেন ওয়ানঝো’কে গ্রেফতারের বিষয়ে কানাডার সরকারের কোনো হস্তক্ষেপ নেই বলে জানিয়েছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো। খবর বিবিসির

জাস্টিন ট্রুডো বলেন, মেন ওয়ানঝো’কে গ্রেফতারে কোনো রাজনৈতিক উদ্দেশ্য নেই। 

বৃহম্পতিবার মিন্ট্রয়ালে সাংবাদিকদের ট্রুডো বলেন, মেন ওয়ানঝো’কে গ্রেফতারের বিষয়টি কয়েকদিন আগে তার সরকার জেনেছে। তবে মেন'কে গ্রেফতারের বিষয়ে কানাডা সরকারের কোনো ভূমিকা নেই। 

তিনি আরও বলেন, আমি প্রত্যেককে আশ্বস্ত করতে পারি যে আমরা এমন একটি দেশ যাদের স্বাধীন বিচার ব্যবস্থা নিয়ে আছে।

কানাডার ভ্যাঙ্কুভারে গত ১ ডিসেম্বর গ্রেফতার করা হয় হুয়াওয়ের চিফ ফাইন্যান্সিয়াল অফিসার ও ডেপুটি চেয়ারম্যান মেন ওয়াংঝোকে। গতকাল বৃহস্পতিবার এ বিষয়টি গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়। 

মেন ওয়াংঝোকে’র বিরুদ্ধে কী অভিযোগ আনা হয়েছে, তা এখন নিশ্চিত হওয়া যায়নি। তবে কানাডার বিচার বিভাগের একজন মুখপাত্র বলেছেন, মেন ওয়াংঝোকে আদালতের নির্দেশ অমান্য করেছেন এবং তিনি একটি প্রকাশনা বাতিলের অনুরোধ করেছেন

তবে কিছু সংবাদমাধ্যমের খবরে বলা হয়, ইরানের বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করায় হুয়াওয়ের বিরুদ্ধে তদন্ত করছে যুক্তরাষ্ট্র। যুক্তরাষ্ট্রের আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর অনুরোধে তাকে কানাডায় গ্রেফতার করা হয়।  

কানাডায় চীনের দূতাবাস এ গ্রেফতারের নিন্দা জানিয়েছে এবং মেন-এর মুক্তি দাবি করেছে। 

সংশ্লিষ্ট খবর