টালিউড

মানসিক সমস্যা নিয়ে হাজির জয়া

প্রকাশ : ০৭ জানুয়ারি ২০১৯ | আপডেট : ০৭ জানুয়ারি ২০১৯

মানসিক সমস্যা নিয়ে হাজির জয়া

জয়া আহসান

  অনলাইন ডেস্ক

কোনো এক বৃষ্টির দিনে  ভয়ংকর এক স্মৃতি সামনে চলে আসে জয়া আহসানের। বিষাদে ভরা সেই স্মৃতি। উত্তেজিত হয়ে উঠে জয়া। পাগলের মতো করতে থাকে সে। এমন গল্পই দেখা গেলো জয়া আহসান অভিনীত সম্প্রতি্ প্রকাশ পাওয়া বৃষ্টি তোমাকে দিলাম’ ছবির ট্রেলারে। ১ মিনিট ২৬ সেকেন্ড ব্যাপ্তির ট্রেলারে পাওয়া গেছে সাইকোলজিক্যাল থ্রিলারের আভাস।

এ ছবিতে জয়ার ছবিতে জয়ার চরিত্রের নাম ‘বৃষ্টি’। যে কিনা এক ধরনের মানসিক সমস্যায় আক্রান্ত। সন্দেহ, খুন, রহস্য সবই পাওয়া গেছে ট্রেলারে। এ ধরনের চরিত্রে এবাই কিন্তু প্রথম নয় জয়া। এর আগে এমন চরিত্রে অভিনয় করতে দেখা গেছে তাকে। এতে জয়ার সঙ্গে আরও রয়েছেন কলকাতার চিরঞ্জিত, সুব্রত দত্ত, রাজেশ শর্মা ও রজতাভ দত্তর মতো তারকারা। ছবিটি পরিচালনা করেছেন অর্ণব পাল। মুক্তির নির্দিষ্ট তারিখ চূড়ান্ত না হলেও ছবিটি বছরের শুরুতেই মুক্তি দেয়ার আভাস দিয়েছেন পরিচালক। 

জয়া আহসান

এদিকে বাংলাদেশের প্রেক্ষাগৃহে চলছে জয়া আহসানের ’বিসর্জন’ ছবিটি। গত বছর কলকাতায় মুক্তি পাওয়া ছবিটি জয়াকে অনন্য সাফল্য এনে দিয়েছে। ছবিটি পেয়েছে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার। জয়া পেয়েছেন পশ্চিমবঙ্গের ফিল্মফেয়ার, জি সিনে অ্যাওয়ার্ড, সেরা বাঙালি এবিপি আনন্দ পুরস্কার, হায়দরাবাদ চলচ্চিত্র উৎসব, ওয়েস্ট বেঙ্গল জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশন অ্যাওয়ার্ড আর ইন্টারন্যাশনাল বেঙ্গলি ফিল্ম অ্যাওয়ার্ডসহ নানা পুরস্কার। 

সেই সাফল্যের ধারাবাহিকতায় নতুন বছরে কলকাতায় মুক্তি পায় ‘বিসর্জন’র সিক্যুয়েল ‘বিজয়া’। প্রশংসিত হচ্ছে এ ছবিটিও।

সংশ্লিষ্ট খবর


মন্তব্য যোগ করুণ

পরের
খবর

কলকাতায় পাত্র সংকট!


আরও খবর

টালিউড
কলকাতায় পাত্র সংকট!

প্রকাশ : ১৪ জানুয়ারি ২০১৯

পায়েল সরকার

  অনলাইন ডেস্ক

পায়েল সরকার। টালিগঞ্জের সুন্দরী নায়িকা। জানালেন এখনও সিঙ্গেল রয়েছেন তিনি। ভালো ছেলে পাওয়ার অভাবেই নাকী সিঙ্গেল থাকতে হচ্ছে তাকে।  তার ওপর কলকাতায় ভালো পাত্রও নাকী নেই!

এই মুহূর্তে পায়েল সরকার ব্যস্ত রয়েছেন 'জামাই বদল' ছবি নিয়ে। এ  প্রসঙ্গে এক সাক্ষাৎকারে আসন্ন ছবির ভালোলাগা-মন্দলাগা বিষয়গুলোই তুলে ধরেছেন তিনি। আনন্দবাজার পত্রিকাকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে পায়েল বলেন, 'কলকাতায় বিয়ে বা সেটেল হওয়ার জন্য ছেলে পাওয়া মুশকিল। আর প্রেম করার আজকাল ভালো ছেলে পাওয়াই কঠিন’  

পায়েল সরকার

১৮ জানুয়ারি মুক্তি পাবে ‘জামাই বদল’। এ ছবিতেই লুকিয়ে আছে স্বামী বদলের গল্প। পায়েলের চরিত্রের নাম প্রীতি। বয়ফ্রেন্ডকে ব্ল্যাকমেইল করে সে। ছবিতে হিরণের সঙ্গে জুটি বেঁধেছেন পায়েল। এই জুটি সম্পর্কে পায়েল বলেন, ‘হিরণের সঙ্গে আগেও কাজ করেছি। তা ছাড়া সোহম, কৌশানী রয়েছেন ছবিতে। কাজের জন্য ফ্রেন্ডলি জোন ছিল।’

পায়েল সরকার ২০০৪ সালে 'শুধু তুমি আমার' ছবিতে প্রসেনজিতের বোনের ভূমিকায় অভিনয়ের মধ্য দিয়ে বড় পর্দায় নাম লেখান। এরপর ধীরে ধীরে টালিউডে একের পর এক হিট ছবি উপহার দিয়েছেন ৩৪ বছরের এ অভিনেত্রী। বাংলাদেশের শীর্ষ নায়ক শাকিব খানের সঙ্গেও অভিনয় করেছেন তিনি। গত বছর শাকিব খানের বিপরীতে তার ‘ভাইজান এলো রে’ ছবিটি মুক্তি পায়। 

সংশ্লিষ্ট খবর

পরের
খবর

এক মিনিটে ‘আহা রে’


আরও খবর

টালিউড
এক মিনিটে ‘আহা রে’

প্রকাশ : ০৪ জানুয়ারি ২০১৯

ঋতুপর্ণা ও আরিফিন শুভ

  অনলাইন ডেস্ক

নামাজ পড়া শেষ করে অ্যাপ্রোন পরে রান্না করছে আরিফিন শুভ। অন্যদিকে সদ্য সরস্বতী পুজোর অঞ্জলি শেষ করেছে ঋতুপর্ণা। আটপৌরে রান্নাঘরে ছড়িয়ে রয়েছে বাহারি সবজি। তার মাঝে বসেই নিপুণ হাতে রান্না করে চলেছে ঋতু। সদ্য প্রকাশিত আহা রে’ ছবির টিজারে এমন গল্পই দেখা গেলো। 

‘আহা রে’র টিজার প্রকাশ অনুষ্ঠানে ছবির সব কলাকুশলী ও শিল্পীরা

ঢাকার এক মুসলিম বাঙালি শেফ এবং কলকাতার এক বাঙালি হিন্দু হোম কুকের দেখা হওয়া নিয়ে এগিয়েছে এই ছবির গল্প। ছবির টিজার ইতিমধ্যেই পছন্দ করছেন দর্শকরা। এবার মুক্তির অপেক্ষা। এতে ঢাকার যুবকের চরিত্রে অভিনয় করেছেন ঢাকাই নায়ক আরিফিন শুভ এবং কলকাতার অভিনেত্রী ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত। ছবিটি পরিচালনা করেছেন রঞ্জন ঘোষ।

বৃহস্পতিবার টিজার প্রকাশ অনুষ্ঠান উপলক্ষে কলকাতায় উড়ে গিয়েছেন শুভ। সেখানেই এখন অবস্থান করছেন তিনি। এদিকে ছবিটি প্রসঙ্গে এর পরিচালক বলেন ‘ ছবিটিতে  দু’জনই খেতে এবং রান্না করতে ভালবাসে। খাবার এবং রান্নার মধ্যে যে শিল্প আছে তার প্রতি এরা দু’জনেই কমিটেড। এটা প্রেমের গল্প তো বটেই, সঙ্গে জীবনযুদ্ধ, দায়িত্ববোধের কথাও বলা হচ্ছে। আসলে আমাদের প্রত্যেকের ধর্মের পরিচয়গুলো কতটা ব্যাকসিটে থাকা উচিত। এগুলো যে একেবারেই ম্যাটার করা উচিত নয়, সে নিয়েই গল্প। গল্পটি আমাদের অনেক পরিচিত মনে হবে।’

ছবিটি মুক্তির তারিখ জানানো হয়নি এখনও। তবে শিগগিরই মুক্তি দেয়া হবে বলে জানান পরিচালক। 

সংশ্লিষ্ট খবর

পরের
খবর

সাদামাটা ভাবেই মৃণাল সেনের বিদায়


আরও খবর

টালিউড

মৃণাল সেনের মরদেহ নিয়ে শেষ যাত্রা

  অনলাইন ডেস্ক

অনাড়ম্বর ভাবেই শেষ হলো চিত্রপরিচালক মৃণাল সেণের শেষকৃত্য। সদ্য প্রয়াত এ পরিচালকের  ইচ্ছাতেই অনাড়ম্বর ভাবে করা হয়েছে শেষকৃত্য। বরেণ্য এ পরিচালকের শেষ যাত্রায়  টালিউডের বিশিষ্টজনেরা ও গুণগ্রাহী বহু মানুষ উপস্থিত ছিলেন। 

তার আগে পিস ওয়ার্ল্ডে রাখা হয়েছিলে এ গুণীর মরদেহ।পরে পরিবারের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী গতকাল বিকালে তার মরদেহ নিয়ে যাওয়া হয় দেশপ্রিয় পার্কের নিকটে। যে বাড়িতে দীর্ঘ একটা সময় কাটিয়েছেন তিনি। সেখান থেকে কেওড়াতলা মহাশ্মশানে নিয়ে যাওয়া হয়। 

মৃনাল সেনের শেষযাত্রায় ছিলেন প্রসেনজিত এবং অর্পনা সেন

পরিবারের সদস্যদের কাছে মৃণাল সেন আগেই বলে গিয়েছিলেন তার শেষকৃত্যে যেন অনাড়ম্বর হয়, কোনো ফুলের মালা না থাকে। সরকারি আতিশয্যও যেন না থাকে। এমনকি রবীন্দ্র সদন কিংবা নন্দনেও শ্রদ্ধা নিবেদনের না নেয়া হয়। তার কথামত কাজ করেছেন পরিবার। সাদামাটা ভাবেই শেষ হয় শেষকৃত্য। 

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, রঞ্জিত মল্লিক, অঞ্জন দত্ত, রঞ্জিত মল্লিক, শ্রীলা মজুমদার, নন্দিতা দাশ, প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়, মাধবী মুখোপাধ্যায়, অপর্ণা সেনসহ  বিমান বসু, সুজন চক্রবর্তী ছাড়াও অনেক রাজনৈতিক নেতারা। 

মৃণাল সেনকে শেষ শ্রদ্ধা জানাতে আসেন রঞ্জিত মল্লিক, পরান ঠাকুরসহ অনেকেই

গত ৩০ ডিসেম্বর মৃত্যুবরণ করেন মৃনাল সেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৯৫ বছর।  বার্ধক্যজনিত কারণেই  মৃত্যুবরণ করেন তিনি।  

মৃণাল সেনের প্রথম ছবি ‘রাতভোর’। এ ছবির খুব একটা আলোচিত হয়নি। পরে ১৯৫৯ সালে ‘নীল আকাশের নীচে’ ছবিটি পরিচিত করে তাকে। এরপরই কলকাতা-৭১, পদাতিক, এক দিন প্রতিদিন, খারিজ, চালচিত্র ও ভুবন সোমের মতো বেশকিছু কালজয়ী সিনেমা নির্মাণ করে চলচ্চিত্রের ইতিহাসে কিংভদন্তী পরিচালক হয়ে উঠেন।  তার জন্ম বাংলাদেশের ফরিদপুরে।



সংশ্লিষ্ট খবর