সিলেট

কুলাউড়ার সেই প্রধান শিক্ষক জেলহাজতে

প্রকাশ : ০৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯

কুলাউড়ার সেই প্রধান শিক্ষক জেলহাজতে

  কুলাউড়া (মৌলভীবাজার) সংবাদদাতা

কুলাউড়া উপজেলার রাজনগর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সেই প্রধান শিক্ষক মো. মন্তাজ আলীকে রোববার গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তাকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। চতুর্থ শ্রেণির এক ছাত্রীকে নির্যাতনের পর অর্ধনগ্ন করে ছবি তোলার অভিযোগে তার বিরুদ্ধে শনিবার রাতে মামলা করেন ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীর ফুফু।

ওই শিক্ষার্থীকে নির্যাতনের ঘটনায় শনিবার 'ক্ষোভ মেটাতে প্রধান শিক্ষকের কাণ্ড' শিরোনামে সমকালে সংবাদ প্রকাশ হয়। বিষয়টি দৃষ্টিগোচর হলে ঘটনা তদন্ত করে সত্যতা পায় কুলাউড়া থানা পুলিশ, গোয়েন্দা পুলিশ ও প্রাথমিক শিক্ষা বিভাগ।

পুলিশ জানায়, প্রধান শিক্ষক মো. মন্তাজ আলী (৪৯) ও তার ছেলে জাকারিয়াকে (১৫) আসামি করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করা হয়েছে।

কুলাউড়া থানার ওসি ইয়ারদৌস হাসান জানান, গণমাধ্যমে সংবাদ দেখেই পুলিশ বিষয়টি আলাদা করে তদন্ত শুরু করে। তদন্তে ঘটনার সত্যতা পাওয়া যায়। নির্যাতিতা ছাত্রীর পরিবারের পক্ষ থেকে থানায় মামলার পর প্রধান শিক্ষক মন্তাজ আলীকে গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। অপর আসামি জাকারিয়াকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

মামলার সূত্রে জানা যায়, গত ২০ জুলাই প্রধান শিক্ষক মন্তাজ আলী বিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণির ওই ছাত্রীকে দ্বিতীয় সাময়িক পরীক্ষার ফি দিতে দেরি হওয়ায় মারধর করেন। এতে ছাত্রীর পিঠ ও হাতের বিভিন্ন জায়গায় ফুলে যায়। এ ঘটনায় অভিভাবকরা ওই ছাত্রীকে হাসপাতালে ভর্তি করেন এবং প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তার মাধ্যমে ইউএনও বরাবর লিখিত অভিযোগ দেন। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে প্রধান শিক্ষক গত বুধবার সকালে বিদ্যালয়ের অফিস কক্ষে ডেকে নেন ওই স্কুলছাত্রীকে। তার পিঠের জখম দেখার কথা বলে তার পরনের কামিজ খুলে শ্নীলতাহানি করেন এবং তার ছেলে জাকারিয়াকে দিয়ে মোবাইল ফোনে আপত্তিকর ছবি তুলে রাখেন।


মন্তব্য


অন্যান্য