সিলেট

মাদকাসক্ত শিক্ষার্থীর তালিকা চাইলেন শাবি উপাচার্য

প্রকাশ : ২২ আগষ্ট ২০১৯

মাদকাসক্ত শিক্ষার্থীর তালিকা চাইলেন শাবি উপাচার্য

আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদ- সমকাল

  শাবি প্রতিনিধি

শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদ বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের উদ্দেশে বলেছেন, আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে হলে থাকা মাদকাসক্ত শিক্ষার্থী এবং যারা মাদকের ব্যবসা করে তাদের নাম প্রশাসনকে দিতে হবে। পাশাপাশি ছাত্রলীগকে ঘোষণা দিতে হবে- যারা মাদকাসক্ত, মাদকের সঙ্গে যুক্ত ও মাদকের ব্যবসা করে তাদের সঙ্গে সংগঠনের সদস্যদের কোনো সম্পর্ক নেই

জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে বৃহস্পতিবার অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। ছুটির মধ্যে মাদকসহ আটক ছাত্রদের পুলিশে সোপর্দ করা হয়েছে জানিয়ে উপাচার্য আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রী বলেছেন- যারা মাদকাসক্ত তারা ছাত্রলীগে থাকবে না। প্রধানমন্ত্রীর কথাকে সম্মান করে এবং ছাত্রলীগের শৈশবকে স্মরণ করে সংগঠনটির কেউ মাদকাসক্ত হবে না। যারা মাদকাসক্ত হবে, মাদক সেবন করবে, মাদকের ব্যবসা করবে, তাদের সঙ্গে ছাত্রলীগের কোনো সম্পর্ক নেই। 

তাদের তালিকা দিলে আমরা তাদের হল থেকে বের করার ব্যবস্থা করব, সংশোধনের চেষ্টা করব। জাতীয় শোক দিবসের কর্মসূচি হিসেবে আলোচনা সভার আগে সকালে শোক র‌্যালি হয়। পরে আলোচনা সভা, জোহরের নামাজ শেষে কেন্দ্রীয় মসজিদে দোয়া মাহফিল ও সন্ধ্যায় কেন্দ্রীয় মন্দিরে প্রার্থনা হয়েছে। আলোচনা সভায় বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক এস এম সাইফুল ইসলামের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন অধ্যাপক মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার মুহাম্মদ ইশফাকুল হোসেনের সঞ্চালনায় সভায় আরও বক্তব্য দেন শাবি প্রক্টর অধ্যাপক জহীর উদ্দিন আহমদ, সাবেক কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ইলিয়াস উদ্দীন বিশ্বাস, অধ্যাপক সৈয়দ শামসুল আলম, অধ্যাপক কবীর হোসেন, সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক ফয়সাল আহমেদ, স্কুল অব এগ্রিকালচার অ্যান্ড মিনারেল সায়েন্সেস অনুষদের ডিন অধ্যাপক বেলাল হোসেন, বঙ্গবন্ধু গবেষণা সেলের পরিচালক অধ্যাপক হাসান জাকিরুল ইসলাম, বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেট সদস্য অধ্যাপক জহির বিন আলম, অফিসার্স অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মোরশেদ হোসেন, শাবি ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি রুহুল আমিন, সাধারণ সম্পাদক ইমরান খান এবং কর্মচারী ইউনিয়নের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক।

মন্তব্য


অন্যান্য