সিলেট

সুনামগঞ্জে লক্ষাধিক মানুষ পানিবন্দি, ঘরে কাদা

প্রকাশ : ১৫ জুলাই ২০১৯ | আপডেট : ১৫ জুলাই ২০১৯

সুনামগঞ্জে লক্ষাধিক মানুষ পানিবন্দি, ঘরে কাদা

  সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি

সুনামগঞ্জে বন্যা পরিস্থিতি অপরিবর্তিত রয়েছে। সোমবার সকাল ৯ টায় সুরমা নদীর পানি বিপদসীমার ৭৯ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছিল। গত ২৪ ঘণ্টায় বৃষ্টি হয়েছে ৮০ মিলিমিটার।

সুরমা নদীর পানি উপচে প্রত্যন্ত এলাকায় ঢুকা অব্যাহত থাকায় নতুন নতুন এলাকা প্লাবিত হচ্ছে। সুনামগঞ্জ শহরের পূর্বাঞ্চলের হাছননগর, ওয়েজখালী, কালীপুর, পূর্ব নতুনপাড়া, শান্তিবাগ এলাকায় পানি ওঠেছে। 

বন্যা আক্রান্ত এলাকায় জনদুর্ভোগও বেড়েছে। ঘরে কাদা, টয়লেট ডুবে আছে ও চুলোয় পানি ওঠেছে। যাতায়াত ভোগান্তি রয়েই গেছে। জেলার ছাতক, দিরাই, শাল্লা, জামালগঞ্জ ও ধর্মপাশা উপজেলার নিম্নাঞ্চলের নতুন নতুন এলাকা রোববার প্লাবিত হয়েছে।

জেলা ত্রাণ ও পুনর্বাসন কর্মকর্তা ফরিদুল হক জানান, নতুন কোন এলাকা প্লাবিত হওয়ার খবর পাওয়া যায়নি। পানিবন্দির সংখ্যা এক লাখ ৪ হাজারেই আছে। দুর্গতদের জন্য বরাদ্দকৃত ৫০০ টন চালের ৪১০ টন ইতিমধ্যে বণ্ঠন হয়েছে। শুকনো খাবার ৫ হাজার কার্টুন বণ্টন হয়েছে। রোববার আরও ৪ হাজার কার্টুন এসেছে। নগদ টাকা আগে এসেছিল ৩ লাখ টাকা, বণ্টন হয়েছে আড়াই লাখ। আরও ১০ লাখ টাকা এসেছে, আগের ৫০ হাজার টাকা এবং নতুন আসা ১০ লাখ সহ সাড়ে ১০ লাখ টাকা মওজুদ আছে।

সুনামগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী আবু বকর সিদ্দিক ভুইয়া জানালেন, সুরমা নদীর পানি সোমবার সকাল ৯ টায় বিপদসীমার ৭৯ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছিল। রোববার প্রবাহিত হয়েছিল বিপদসীমার ৭৮ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে। 

মন্তব্য


অন্যান্য