সিলেট

সিলেটে 'মেডিকেল হাব' হওয়ার সম্ভাবনা আছে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

প্রকাশ : ১৮ মে ২০১৯

সিলেটে 'মেডিকেল হাব' হওয়ার সম্ভাবনা আছে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন- ফাইল ছবি

  সিলেট ব্যুরো

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন বলেছেন, সিলেটে অনেক ক্লিনিক আছে, ভালো হাসপাতাল তৈরি হচ্ছে। এখানে একটি মেডিকেল হাব হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। শনিবার সকালে ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নতুন এমআরআই ও সিটিস্ক্যান মেশিন এবং আনসার ক্যাম্পের উদ্বোধন শেষে পররাষ্ট্রমন্ত্রী একথা বলেন। পরে তিনি ওসমানী হাসপাতালের ব্যবস্থাপনা কমিটির সভায় যোগ দেন।

সম্প্রতি ওসমানী হাসপাতালের ওপর চাপ কমাতে নগরীর চৌহাট্টায় ২৫০ শয্যার জেলা হাসপাতাল নির্মাণের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। মহান মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিবিজড়িত প্রায় দেড় শত বছরের পুরনো আবু সিনা ছাত্রাবাস ভেঙে সেখানে নতুন হাসপাতাল নির্মাণের উদ্যোগ নেওয়া হলে নাগরিক সমাজ তাতে বাধা দেয়। আবু সিনা ছাত্রাবাস রক্ষায় সচেতন নাগরিক সমাজের ব্যানারে নানা কর্মসূচি পালিত হচ্ছে। আবার নির্ধারিত জায়গায় দ্রুত হাসপাতালের দাবিও জানাচ্ছেন অনেকে। এ নিয়ে দ্বিধাবিভক্তির সৃষ্টি হওয়ায় ছাত্রাবাস ভাঙা বন্ধ রয়েছে।

এ প্রসঙ্গে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে ড. মোমেন বলেন, ওসমানী হাসপাতাল ৯০০ শয্যার; কিন্তু এ হাসপাতালে সবসময় রোগী ভর্তি থাকেন ২৪০০ জন। এ ছাড়া ডাক্তার ও নার্স সংকট রয়েছে। ফলে অনেক সময় কাঙ্ক্ষিত সেবা পাওয়া যায় না। আবু সিনা ছাত্রাবাসের জায়গায় নতুন হাসপাতাল হলে এ চাপ কমবে। তিন বছর পর ওসমানীতে এমআরআই-সিটিস্ক্যান মেশিন চালু :এদিকে তিন বছর বন্ধ থাকার পর ওসমানী হাসপাতালে চালু হলো এমআরআই ও সিটিস্ক্যান মেশিন। গতকাল এই দুটি মেশিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী উদ্বোধন করেন। এ সময় ওসমানী হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. ইউনুছুর রহমান, সহকারী পরিচালক (প্রশাসন ও প্রশিক্ষণ) ডা. আবুল কালাম আজাদসহ সংশ্নিষ্টরা উপস্থিত ছিলেন।

বৌদ্ধ বিহারে পররাষ্ট্রমন্ত্রী : শনিবার বিকেলে আখালিয়ার নয়াবাজার ব্রাহ্মণশাসনে বৌদ্ধ বিহারে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে যোগ দেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. মোমেন। 

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাচ্য ভাষা বিভাগের চেয়ারম্যান ড. জ্ঞানরত মহাথেরের সভাপতিত্বে প্রধান আলোচক ছিলেন প্রকৌশলী পুলক কান্তি বড়ূয়া। স্বাগত বক্তব্য দেন সিলেট বৌদ্ধ সমিতির সভাপতি অরুণ বিকাশ চাকমা ও শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন বৌদ্ধপূর্ণিমা উদযাপন কমিটির আহ্বায়ক সাধন কুমার চাকমা।

মন্তব্য


অন্যান্য