খেলা

মুশফিকের চোখ ২০২৩ বিশ্বকাপে

প্রকাশ : ১৮ জুলাই ২০১৯

মুশফিকের চোখ ২০২৩ বিশ্বকাপে

ছবি: ফাইল

  অনলাইন ডেস্ক

বাংলাদেশ ক্রিকেট দলকে যারা বড় দলে পরিণত করেছেন মুশফিকুর রহিম তাদের একজন। ইংল্যান্ড বিশ্বকাপ দিয়ে চারটি বিশ্বকাপে খেলে ফেলেছেন এই উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান। তার চোখ ২০২৩ বিশ্বকাপে। ভারত বিশ্বকাপে দেশকে পঞ্চমবারের মতো প্রতিনিধিত্ব করার আশা মুশফিকের। ফর্মে থেকে যেতে চান বিশ্বকাপে। সেজন্য প্রত্যেক সিরিজে ভালো খেলার দিকে মনোযোগ তার।

মুশফিকুর রহিম ক্রিকবাজকে বলেন, 'অবশ্যই ২০২৩ বিশ্বকাপ নিয়ে আমার পরিকল্পনা আছে। তবে আমি সিরিজ ধরে এগোতে চাই। বেশি দূরে নজর রাখলে ফর্ম থাকে না। সিরিজ ধরে চিন্তা করলে ফর্ম ধরে রাখা যায়। আমি সেভাবেই নিজেকে তৈরি করছি। বিশ্বকাপ নিয়ে ধাপে ধাপে এগোতে হবে। বিশ্বকাপ আসলে এখনও অনেক দূরে। তবে আমার লক্ষ্য ২০২৩ বিশ্বকাপে খেলা।'

২০১৫ সাল থেকে ধরলে বাংলাদেশ দলের সেরা পারফরমারদের একজন মুশফিক। সাকিব, তামিমের সঙ্গে ৪৭.২১ গড়ে দলের সেরা পারফরমার তিনিই। ইংল্যান্ড বিশ্বকাপও খারাপ যায়নি তার। দেশের হয়ে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রান করেছেন। বাংলাদেশের তৃতীয় ব্যাটসম্যান হিসেবে বিশ্বকাপে সেঞ্চুরি পেয়েছেন। মুশফিকের বয়স এখন ৩২। ব্যাটসম্যান হিসেবে ভারত বিশ্বকাপে ভালো মতোই তার খেলার সুযোগ আছে।

দলে তার ভূমিকা কিংবা সামনের বিশ্বকাপ নিয়ে ধারণা দিতে গিয়ে মুশফিক বলেন, 'আমি দলের তরুণ ক্রিকেটারদের মতো বেড়ে ওঠার পর্যায়ে নেই। দলে এমনভাবে খেলতে চাই যেন ম্যাচে তার বড় প্রভাব ফেলতে পারি। ক্যারিয়ারের শেষ ধাপে আছি আমি। আত্মতুষ্টিতে ভোগার সুযোগ নেই আমার। ক্রিকেটে ১০-১৫ বছর কাটানোর পর খেলাটাকে পরের ধাপে নিয়ে যাওয়ার চিন্তা করতে হবে আমার। ম্যাচ জয়ী ইনিংস খেলতে হবে, ৫০-৬০ রান করে আউট হলে হবে না। আমারও দলকে জিতিয়ে ফেরার আত্মবিশ্বাস আছে।'

ইংল্যান্ড বিশ্বকাপে ভালো খেললেও মুশফিক বেশ কিছু ম্যাচে সেট হয়ে আউট হয়েছেন। ক্রিজে থাকা সেট ব্যাটসম্যানকে সঙ্গ দিতে পারলে ম্যাচগুলোর ফল ভিন্ন হতে পারত। তবে চারে ব্যাটিং করে খারাপ করেননি মুশফিক। বিশ্বকাপে চারে ব্যাটিং করে রস টেইলরের পরে ৩৬৭ রান করেছেন তিনি। মুশফিক তার এই পারফরম্যান্স নিয়ে খুশি। তবে নিজের কাছে যে প্রত্যাশা ছিল সেটা পূরণ হয়নি বলে জানান।

ব্যাটিংয়ে তামিম এবং মুশফিকের মধ্যে প্রতিযোগিতা হয় বলে শোনা যায়। এ নিয়ে মুশফিক জানান, তাদের মধ্যে প্রতিযোগিতা হয়। তবে তামিম ক্যারিয়ারে যত রান করেছেন তিনিও যদি করতে পারতেন দলের খুব কাজে আসতো। দল আরও ম্যাচ জিততো। সাকিব বিশ্বকাপে যেভাবে ব্যাটিং করেছে সেটা ধরে রাখতে পারলে। সৌম্য এবং লিটন ধারাবাহিক হলে দলের জন্য খুবই ভালো হবে বলে উল্লেখ করেন মুশফিক।

মন্তব্য


অন্যান্য