খেলা

অলরেডসের আগুনে পুড়ল বায়ার্ন

প্রকাশ : ১৪ মার্চ ২০১৯

অলরেডসের আগুনে পুড়ল বায়ার্ন

ছবি: গোল

  অনলাইন ডেস্ক

বায়ার্ন শব্দতার মধ্যেই কেমন একটা আগুনের ফুলকি ছোটা বিষয় আছে। সব পুড়িয়ে যেন অঙ্গার করে দিতে চায়। কিন্তু লিভারপুল তাদেরই মাঠে গিয়ে বায়ার্নকে তাদের আগুনে পুড়িয়ে ছেড়েছে। ওই যে পিছিয়ে থেকে পরের লেগে জয়। ঘরের মাঠে গিয়ে হারিয়ে ফেরার গল্প রচনা হচ্ছে এবারের চ্যাম্পিয়নস লিগে। অলরেডসরাও লিখল এক গল্প। বায়ার্নকে ৩-১ গোলে হারিয় উঠে গেল ইউরোপ সেরার লড়াইয়ে শেষ আটে।

স্কোর অবশ্য বলছে, লিভারপুল ৩-১ বায়ার্ন মিউনিখ। কিন্তু চার গোলই দিয়েছে লিভারপুল। বায়ার্ন মিউনিখ একটি গোল পেয়েছে আত্মঘাতী থেকে। ম্যাচের ২৮ মিনিটে দলের হয়ে দারুণ এক গোল করেন সেনেগাল তারকা সাদিও মানে। ভ্যান ডাইকের দেওয়া বল ধরে গোল করেন তিনি। প্রথমার্ধেই মাতিপের আত্মঘাতী গোলে লিড হারায় লিভারপুল।

এরপর দ্বিতীয়ার্ধের ৬৯ মিনিটে নিজে গোল করেন নেদারল্যান্ড ডিফেন্ডার ভ্যান ডাইক। তার গোলে ২-১ গোলে লিড নেয় অলরেডসরা। ডাইক এ ম্যাচে যেন ফরোয়ার্ডের ভূমিকায় অবতীর্থ হন। অথচ তার ইচ্ছা লিভারপুলের লিজেন্ড ডিফেন্ডার হওয়া। এরপর বার্য়ানের কফিনে শেষ পেরেক ঠুকে দেন আবার সেই মানে। তিনি ৮৬ মিনিটে গোল করে দলের চ্যাম্পিয়নস লিগের শেষ আটের টিকিত নিশ্চিত করেন।

লিভারপুলের দারুণ এই জয়ে প্রিমিয়ার লিগের চার দল শেষ আটে উঠল। এমনটি ২০০৮ সালে সর্বশেষ ঘটে। এছাড়া  ২০১১ মৌসুমে সর্বশেষ দ্বিতীয় রাউন্ড থেকে বিদায় নেয় বায়ার্ন। শেষ পাঁচ মৌসুমের চারটিতে সেমিতে খেলেছে তারা। বায়ার্ন মিউনিখ গোলরক্ষক ম্যানুয়েল নয়্যার ষষ্ঠ গোলরক্ষকহিসেবে শততম চ্যাম্পিয়নস লিগ ম্যাচ খেললেন।

সংশ্লিষ্ট খবর


মন্তব্য যোগ করুণ

পরের
খবর

আইপিএল দেখা যাবে না পাকিস্তানে


আরও খবর

খেলা

ছবি: ফাইল

  অনলাইন ডেস্ক

আর মাত্র দু'দিন বাদে টি-২০ ক্রিকেটের রমরমা লিগ আইপিএল মাঠে গড়াবে। ২৩ মার্চ থেকে শুরু হতে যাওয়া এই টুর্নামেন্ট দেখা যাবে না পাকিস্তানে। কারণ পুলওয়ামা হামলার পর ভারত তাদের দেশে 'পিএসএল' সম্প্রচার বন্ধ করে দেয়। এবার পাকিস্তানের সম্প্রচার মাধ্যমগুলো সুযোগ বুঝে নিচ্ছে তার শোধ।

চলতি বছরের ১৪ ফেব্রুয়ারি পুলওয়ামায় ভারতীয় সেনাবাহিনীর ওপর জঙ্গি হামলা হয়। এরপর দুই দেশ যুদ্ধের মেজাজে চলে আসে। ভারতের প্রায় ৪০জন সেনা ওই হামলায় মারা যায়। ওই ঘটনার পর পাকিস্তান সুপার লিগের সম্প্রচারের দায়িত্ব থেকে সরে দাঁড়ায় আইএমজি–রিলায়েন্স। ভারতে পিএসএলের সম্প্রচারের দায়িত্বে থাকা ভারতীয় স্পোর্টস চ্যানেল 'ডি স্পোর্টস' ম্যাচ সম্প্রচার বয়কট করে। এবার তাই পাকিস্তানে আইপিএলের সম্প্রচার বাতিল করা হয়েছে।

পাকিস্তান সংবাদ মাধ্যমের খবর অনুযায়ী, দেশটির সম্প্রচার মাধ্যমের নীতি-নির্ধারণ কতৃপক্ষ (পারমা) সিদ্ধান্ত নিয়েছে পাকিস্তানে আইপিএল সম্প্রচার করা হবে না। পিএসএল সম্প্রচার বন্ধ করায় তারা এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বলে জানায়।

ইন্ডিয়া টুডে বলছে, পাকিস্তানের তথ্য এবং সম্প্রচার বিষয়ক মন্ত্রী ফাহাদ আহমেদ চৌধুরি বলেন, 'পিএসএলের সময় ভারতীয় সম্প্রচার প্রতিষ্ঠান এবং দেশটির সরকার পাকিস্তান ক্রিকেটের সঙ্গে যে আচরণ দেখিয়েছে, তার পরে পাকিস্তানে আইপিএল সম্প্রচার করা হবে এটা মেনে নেওয়া যায় না।'

সংশ্লিষ্ট খবর

পরের
খবর

ইনজুরিতে আর্জেন্টিনা দলের বাইরে ডি মারিয়া


আরও খবর

খেলা

ছবি: মার্কা

  অনলাইন ডেস্ক

রাশিয়া বিশ্বকাপের পর লিওনেল মেসি এই প্রথম আর্জেন্টিনা দলে ফিরেছেন। তাকে দলে ফেরাতে জোর চেষ্টা চালাতে হয়েছে কোচ লিওনেল স্কালোনিকে। তবে ডি মারিয়া ডাক পাননি সাম্পাওলি পরবর্তী আর্জেন্টিনার দলে। দীর্ঘবিরতীর পরে ক্লাবের হয়ে দারুণ পারফর্ম করায় আর্জেন্টিনা দলে ডাক পান পিএসজি তারকা।

কিন্তু ইনজুরির কারণে দলের বাইরে চলে গেছেন তিনি। স্পেনে আগামী ২৩ মার্চ ভেনেজুয়েলার মুখোমুখি হবে আর্জেন্টিনা। অ্যাথলেটিকো মাদ্রিদের মাঠ ওয়ান্ড মেট্রোপলিটানোতে অনুষ্ঠিত হবে ওই ম্যাচ। তার তিনদিন পরে মরক্কোর বিপক্ষে মাঠে নামবে আর্জেন্টিনা। কিন্তু বুধবার অনুশীলনের সময় চোটে পড়েন ডি মারিয়া।

হ্যামস্ট্রিংয়ের চোটের কারণে দল থেকে তিনি নিজের নাম প্রত্যাহার করেছেন। ভেনেজুয়েলা কিংবা মরক্কোর বিপক্ষে কোপা আমেরিকার আগে শেষ প্রীতি ম্যাচে তাই খেলা হচ্ছে না তার। আর্জেন্টিনা ফুটবল কনফেডারেশন টুইট করেও বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।

চলতি মৌসুমে ডি মারিয়া ক্লাবের হয়ে দারণ ফর্মে আছেন। পিএসজির হয়ে সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে তিনি ১৪ গোল এবং ১৩ গোলে সহায়তা দিয়েছেন। মার্সেইয়ের বিপক্ষে সর্বশেষ ম্যাচে দুই গোল এবং এক গোলে সহায়তা দেন তিনি। মার্সেইয়ের কোচ তাকে পিএসজির এলিয়েন বলে উল্লেখ করেন। 

সংশ্লিষ্ট খবর

পরের
খবর

ওয়ার্নারকে জায়গা করে দিতে প্রস্তুত ফিঞ্চ


আরও খবর

খেলা

ছবি: ফাইল

  অনলাইন ডেস্ক

স্মিথ-ওয়ার্নার অস্ট্রেলিয়ার বিশ্বকাপ দলে থাকবেন কিনা তা বলা মুশকিল। পাকিস্তানের বিপক্ষে সিরিজে তাদের ফেরার কথা ছিল। সত্য হয়নি সে খবর। তবে আইপিএল তাদের জাতীয় দলে ফেরার মঞ্চ। ওই মঞ্চে আলো ছড়াতে পারলে সুযোগ মিলতে পারে ইংল্যান্ড বিশ্বকাপে।

যদি ওয়ার্নার দলে জায়গা পান তবে কপাল পুড়তে পারে অস্ট্রেলিয়া অধিনায়ক অ্যারণ ফিঞ্চের। কারণ তার ব্যাটে রান নেই। ২০১৫ বিশ্বকাপে ওয়ার্নারের সঙ্গে দারুণ ব্যাটিং করেন ফিঞ্চ। কিন্তু সর্বশেষ ৮ ইনিংসে ২২.৮৭ গড়ে ১৮৩ রান করেছেন তিনি। ওদিকে খাজা আছেন দুর্দান্ত ফর্মে। ভারতের বিপক্ষে পাঁচ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে খাজার দুই সেঞ্চুরি, দুই ফিফটি।

উসমান খাজার বিশ্বকাপ দলে থাকা তাই অনেকটাই নিশ্চিত। আর ওয়ার্নার ফিরলে ওপেনে দেখা যেতে পারে এই দুই তারকাকে। তাহলে ফিঞ্চ ব্যাটিং করবেন কোথায়। অজি এই ব্যাটসম্যান জানালেন, তার নিচে ব্যাটিং করতে আপত্তি নেই।

ফিঞ্চ বলেন, 'যদি এমন হয় যে, আমাকে ছয়ে ব্যাটিং করতে হচ্ছে। আমি খুবই স্বচ্ছন্দভাবে সেটা করতে রাজী আছি। যদি এটা টপঅর্ডারে তিন-চারেও হয় কোন সমস্যা নেই। ব্যক্তিগত পারফর্ম দিয়ে আমাদের এই দলকে বোঝা যাবে না।'

ফিঞ্চ মনে করেন দলের জন্য নিবেদন নিয়ে খেলা দরকার। যদি কেউ মনে করে, পাঁচে নামলে আমি সেঞ্চুরি পাবো না। আমি ভালো করার সুযোগ পাবো না। তবে সেরাটা দিতে পারবে না, 'আমি দল নিয়ে খুবই খুশি। মাঝে মাঝে ব্যাটিং করতে গেলে নিজের টেকনিক নিয়ে ধন্দে লেগে যায়। অতীতে আমি যেভাবে ভালো করেছি সেটা আবার খুঁজে বের করতে হবে।' 

সংশ্লিষ্ট খবর