খেলা

রাজশাহীকে সহজে হারাল কুমিল্লা

প্রকাশ : ১১ জানুয়ারি ২০১৯ | আপডেট : ১২ জানুয়ারি ২০১৯

রাজশাহীকে সহজে হারাল কুমিল্লা

ছবি: বিসিবি

  অনলাইন ডেস্ক

আগের ম্যাচে স্বল্প রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে খুলনার বিপক্ষে জয় পায় রাজশাহী কিংস। কিন্তু পরের ম্যাচেই আবার বড় ব্যবধানে হারল মিরাজের দল। শুক্রবার মিরপুরে শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে দিনের দ্বিতীয় ম্যাচে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স ৫ উইকেটের বড় ব্যবধানে হারিয়েছে মেহেদি-মুস্তাফিজের রাজশাহীকে।

প্রথমে ব্যাট করতে নেমে রাজশাহী মোটে ১২৭ রান তোলে। সাত বল বাকি থাকতে অলআউট হয়ে যায় তারা। শতরানের নিচে অলআউট হয়ে যাওয়ার শঙ্কায় ছিল রাজশাহী। পরে ইসুরু উদানা ৩২ রান করলে শতক পেরোয় দল। এছাড়া এ ম্যাচে ওপেনে নামা মেহেদি মিরাজ করেন ৩০ রান। কিন্তু অন্য ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতায় ভালো রান পায়নি তারা। রাজশাহীর হয়ে এ ম্যাচে আগের ম্যাচে ভালো করা মুমিনুল ব্যর্থ হন। সৌম্য-হাফিজরা রান পাননি এ ম্যাচেও। তবে উইকেটরক্ষক জাকির হোসেন পান ২৭ রান।

পরে লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে ভালো শুরু করে কুমিল্লা। কুমিল্লার হয়ে এ ম্যাচে এভিন লুইসের সঙ্গে ওপেন করতে নামেন আনামুল হক। তিনে ব্যাট করেন তামিম। ওপেন করতে নেমে আনামুল ভালো করেন। তিনি ৩২ বলে ৪০ রান করেন। এছাড়া লুইস করেন ২৮ রান। তারা ওপেনিং জুটিতে পেয়ে যায় ৬৫ রান। ছোট লক্ষ্য সহজ হয়ে যায় কুমিল্লার। পরে অবশ্য কিছু দ্রুত উইকেট হারায় তারা। এরমধ্যে রান আউটে কাটা পড়েন আনামুল এবং মালিক।

আনামুল-লুইস ছাড়াও কুমিল্লার হয়ে তামিম ২১ রান করে ফিরে যান। পরে আফ্রিদি এবং ডওসন ম্যাচ জিতিয়ে ফেরেন। কুমিল্লার হয়ে এ ম্যাচে ১০ রানে ৩ উইকেট নেন আফ্রিদি। এছাড়া ডওসন, মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন এবং আবু হায়দার দুটি করে উইকেট নেন। ম্যাচ সেরার পুরস্কার জেতেন আফ্রিদি। স্মিথ দেশে ফিরে যাওয়ায় এ ম্যাচে কুমিল্লার নেতৃত্ব ছিল ইমরুল কায়েসের ওপর। 

সংশ্লিষ্ট খবর


মন্তব্য যোগ করুণ

পরের
খবর

ক্রাইস্টচার্চের আঘাত ভুলতে মাঠে নামছেন সৌম্যরা


আরও খবর

খেলা

  অনলাইন ডেস্ক

ক্রাইস্টচার্চের মসজিদে হামলার ঘটনার খুব কাছে ছিলেন বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের খেলোয়াড়রা। ওই হামলার কারণে হ্যাগলি ওভালের শেষ টেস্ট বাতিল করা হয়। আগে ভাগেই দেশে ফিরিয়ে আনা হয় ক্রিকেটারদের। ঘটনার পর থেকে মানসিক অবসাদে ভুগছেন ক্রিকেটাররা। তবে ঘরে আবদ্ধ থাকলে ওই অবসাদ আরও বাড়তে পারে। তাই সৌম্য সরকার, সাদমান ইসলাম এবং মোহাম্মদ মিঠুন খেলায় ফেরার কথা জানিয়েছেন।

ঢাকা প্রিমিয়াম ডিভিশন ক্রিকেট ক'দিনের বিরতি দিয়ে মঙ্গলবার থেকে মাঠে গড়াবে। ওয়ানডে ফরম্যাটের ওই ক্রিকেটে খেলার কথা জানিয়েছেন সৌম্য। বাংলাদেশ দলের ব্যাটসম্যান সৌম্য সরকার বলেন, 'আমি আগামীকাল (মঙ্গলবার) আবাহনীর হয়ে খেলার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।' মাশরাফির সঙ্গে কথা বলে খেলার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বলে জানান সৌম্য। পরিবার বাইরে থাকায় তিনি ঢাকায় একাকী অনুভব করছেন বলেও জানান।

তার ফেরা নিয়ে বাংলাদেশ ওয়ানডে দলের অধিনায়ক মাশরাফি মর্তুজা বলেন, 'আমার মতে, ওই আঘাত কাটিয়ে ওঠার সবচেয়ে ভালো উপায় ক্রিকেটে ফেরা।' বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের আরেক সদস্য মিঠুনও খেলবেন বলে জানা গেছে।

ওদিকে বাংলাদেশ দলের হয়ে টেস্ট খেলা সাদমানও ডিপিএলে খেলবেন বলে জানিয়েছেন, 'আগামীকাল খেলতে পারবো কিনা জানি না, আমার পিঠে সামান্য ব্যথা আছে। তবে খেলার অবস্থায় ফিরলেই আমি খেলবো।' 

সাদমানের ক্রিকেটে ফেরার ব্যাপারে তার বাবা (বিসিবি কর্মকর্তা) শহিদুল ইসলাম বলেন, 'আমি তাকে দ্রুতই খেলার জন্য বলেছি। ঘরে বসে থাকলে এটা আরও চাপ বাড়াবে। অনেক আত্মীয় তাকে ওই ঘটনা নিয়ে নানান প্রশ্ন করছে। যা নিয়ে কথা বলতে সে ভালোবোধ করছে না।'

এর আগে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন ক্রিকেটারদের নিউজিল্যান্ডের হামলায় পাওয়া ওই মানসিক আঘাত কাটিয়ে উঠতে নিজেদের মতো করে কিছু সময় কাটাতে বলেন। খেলাকে কিছুদিনের জন্য ছুটি দেওয়ার পরামর্শ দেন। পরিবারের সঙ্গে সময় কাটাতে বলেন। এরপর ক্রিকেটাররা স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরলে খেলায় ফেরার কথা বলেন তিনি। 

সংশ্লিষ্ট খবর

পরের
খবর

দুই সপ্তাহ মাঠের বাইরে সুয়ারেজ


আরও খবর

খেলা

ছবি: ফাইল

  অনলাইন ডেস্ক

রিয়াল বেটিসের বিপক্ষে তাদের মাঠে গিয়ে ৪-১ গোলের দুর্দান্ত জয় পেয়েছে বার্সেলোন। দলের হয়ে হ্যাটট্রিক করেন লিওনেল মেসি। এছাড়া দারুণ এক গোল করেন উরুগুয়ে স্ট্রাইকার লুইস সুয়ারেজ। কিন্তু বেটিসের বিপক্ষে ম্যাচেই ইনজুরিতে পড়েন সুয়ারেজ। ওই ইনজুরি তাকে দু' সপ্তাহ মাঠের বাইরে ঠেলে দিয়েছে।

লুইস সুয়ারেজ গোড়ালির ইনজুরিতে পড়েছেন। সোমবার তার মেডিকেল রিপোর্ট হাতে পেয়েছে বার্সেলোনা। তা থেকে সুয়ারেজ প্রায় দু' সপ্তাহ মাঠের বাইরে থাকবেন বলে জানানো হয়েছে। বেটিসের বিপক্ষে ম্যাচের পরে বার্সার পরবর্তী ম্যাচ ৩০ মার্চ। কিন্তু এর মধ্যে আন্তর্জাতিক বিরতি আছে খেলোয়াড়দের।

সুয়ারেজ তাই জাতীয় দল থেকে ছিটকে গেলেন। তার দল চায়না কাপের সেমিফাইনালে আছে। শুক্রবার উজবেকিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচ খেলবে উরুগুয়ে। ওই ম্যাচে জিতলে ফাইনাল। সেখানে তাদের প্রতিপক্ষ হতে পারে থাইল্যান্ড নয়তো চীন। হারলেও থাইল্যান্ড-চীনের মধ্যে পরাজিত দলের বিপক্ষে তৃতীয় স্থান নির্ধারণী ম্যাচে মুখোমুখি হবে তারা।

লিগে সুয়ারেজ মৌসুমের শুরুতে দারুণ ফুটবল উপহার দেন। মেসিহীন বার্সাকে প্রথম এল ক্লাসিকোতে তিনি হ্যাটট্রিক করে বড় জয় এনে দেন। মধ্যে গোল পাচ্ছিলেন না সুয়ারেজ। পরে আবার ফিরেছেন ফর্মে। চলতি মৌসুমে দলের হয়ে মেসির (৩৯) পরে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ২১ গোল করেছেন উরুগুয়ে স্ট্রাইকার।  

সংশ্লিষ্ট খবর

পরের
খবর

রোনালদোর শাস্তির সিদ্ধান্ত বৃহস্পতিবার


আরও খবর

খেলা

ছবি: ফাইল

  অনলাইন ডেস্ক

পরপর তিনটি চ্যাম্পিয়নস লিগ জয়ের সুখস্মৃতি নিয়ে জুভেন্টাসে আসেন ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। সিরি আ' লিগে অল্প সময়েই মানিয়ে নেন তিনি। তবে চ্যাম্পিয়নস লিগে জুভেন্টাসের হয়ে তার প্রথম ম্যাচেই লাল কার্ড দেখেন। ভ্যালেন্সিয়ার বিপক্ষে লাল কার্ড দেখে চ্যাম্পিয়নস লিগের পরের ম্যাচে নিষিদ্ধ ছিলেন তিনি।

সেই ফাঁড়া কাটিয়ে চ্যাম্পিয়নস লিগের শেষ ষোলোর দ্বিতীয় লেগে অ্যাথলেটিকোর বিপক্ষে দুর্দান্ত এক হ্যাটট্রিক করেন সিআরসেভেন। শেষ গোলটি করে বাজে অঙ্গভঙ্গি করে উদযাপন করেন সাবেক রিয়াল তারকা। ওই উদযাপনের কারণে আবার এক ম্যাচ নিষিদ্ধ হতে পারেন জুভেন্টাস তারকা। আর তা হলে শেষ আটের ম্যাচে আয়াক্সের বিপক্ষে তাদের মাঠে খেলা হবে না পর্তুগিজ যুবরাজের।

উয়েফা তাদের এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, 'উয়েফার নিয়ম-নীতি বিষয়ক পরিদর্শক তার ব্যাপারে তদন্ত করেছেন। উয়েফার ৫৫ ধারা অনুযায়ী, মাঠে বাজে অঙ্গভঙ্গি করার দরুণ শাস্তির পথ খোলা আছে। নিয়ম অনুযায়ী, রোনালদো আর্টিকেল ১১ (২) (বি) ও (ডি) ধারা ভেঙেছেন।' এই ধারায় তার কি শাস্তি হতে পারে তা উয়েফার আগামী বৃহস্পতিবারের সভায় ঠিক করা হবে।

এর আগে জুভেন্টাসের বিপক্ষে ঘরের মাঠে চ্যাম্পিয়নস লিগের শেষ ষোলোর প্রথম লেগের ম্যাচে জয় পায় অ্যাথলেটিকো মাদ্রিদ। ওই জয়ে অশোভন অঙ্গভঙ্গি করে উদযাপন করেন অ্যাথলেটিকো কোচ সিমিওনে। রোনালদো তারই শোধ নিয়েছেন উদযাপনে সামান্য পরিবর্তন এনে। ওই উদযাপনের কারণে সিমিওনে ১৭ হাজার পাউন্ড জরিমানা গোনেন। এছাড়া ডাগআউট থেকে এক ম্যাচ নিষিদ্ধ করা হয় তাকে। রোনালদোরও তাই শাস্তি পাওয়ার সম্ভাবনাই বেশি।

সংশ্লিষ্ট খবর