খেলা

চেতেশ্বর লড়লেন বুক চিতিয়ে

প্রকাশ : ০৬ ডিসেম্বর ২০১৮ | আপডেট : ০৬ ডিসেম্বর ২০১৮

চেতেশ্বর লড়লেন বুক চিতিয়ে

ছবি: এএফপি

  অনলাইন ডেস্ক

নতুন বলে শুরুতে অস্টেলিয়ার পেসারদের গতি-বাউন্সে সামলে উঠতে পারেনি ভারত। ম্যাচের আগে সবচেয়ে বেশি উচ্চারিত প্রশ্ন ছিল ভারত ফেবারিট নাকি অস্ট্রেলিয়া। ম্যাচের শুরুতেই যেন অজি পেসাররা তার উত্তর দিয়ে দিচ্ছিলেন। শুরুর ৮৬ রানে তারা ভারতের ৫ উইকেট তুলে নেন।

কিন্তু তখনও ব্যাটে ছিলেন চেতেশ্বর পূজারা। শুরু থেকেই ধাক্কা সামলে যান তিনি। সতীর্থদের হয়তো বলেছেন, আমি আছি তোমরা একটু সেট হও। কিন্তু কেউ দাঁড়াতে পারেননি। শুরুতে মুরলি বিজয়, কোহলি কিংবা রাহানে যেমন পারেননি। তেমনি রোহিত-ঋশভ পান্তরা সেট হয়ে ফিরে গেছেন।

সেঞ্চুরির পর চেতেশ্বর পূজারা। ছবি: এএফপি

কিন্তু পূজারা দারুণ এক সেঞ্চুরি তুলে নিয়ে ভারতকে এনে দিয়েছেন ২৫০ রানের সংগ্রহ। প্রথম দিন শেষে ভারত হারিয়েছে ৯ উইকেট। দ্বিতীয় দিনটা শুরু করবেন দুই অপরাজিত থাকা মোহাম্মদ শামী ও জসপ্রিত বুমরাহ। প্রথম দিন শেষে ভারত ভালো অবস্থানে আছে বলা যাচ্ছে না। আবার প্রথম ইনিংসেই তারা ম্যাচ হেরে বসেছে এমনও না।

ভারতের হয়ে অ্যাডিলেডে প্রথম টেস্টের প্রথম ইনিংস পূজারা খেলেছেন ১২৩ রানের ইনিংস। বল খেলেছেন ২৪৬টি। নবম ব্যাটসম্যান হিসেবে ফিরেছেন রানআউট হয়ে। এ নিয়ে টেস্টে আটবার রানআউট হলেন তিনি। তার ওপরে আছেন কেবল রাহুল দ্রাবিড় (১৩) ও সচীন টেন্ডুলকার (৯)।

ভারতের হয়ে মিডল অর্ডারে রোহিত শর্মার ৩৭, ঋশভ পান্ত ও অশ্বিনের ২৫ করে রান ২৫০ সংগ্রহ পেতে বড় ভূমিকা রাখে। নতুন বল একটু নরম হতেই ব্যাট করা সহজ হয়েছে রোহিত-ঋশভদের জন্য। কিন্তু তারা সেট হয়েও সেটা কাজে লাগাতে পারেননি। অস্ট্রেলিয়ার হয়ে প্রথম ইনিংসে মিশেল স্ট্রাক, জজ হ্যাজলউড, প্যাট ক্যামিন্স এবং নাথান লায়ন দুটি করে উইকেটন নেন।

সংক্ষিপ্ত স্কোর: অস্ট্রেলিয়া-ভারত প্রথম টেস্ট অ্যাডিলেড

প্রথম দিন শেষে

প্রথম ইনিংস ভারত: ২৫০/৯; পূজারা-১২৩, রোহিত-৩৭, ঋশভ পান্ত-২৫, অশ্বিন-২৫, বিজয়-১১, কোহলি-৩, রাহানে-১৩, শামি- ৬ (অপ.), বুমরাহ-০ (অপ.)।

স্ট্রাক-৬৩/২, হ্যাজলউড-৫২/২, কামিন্স-৪৯/২, লায়ন-৮৩/২।

সংশ্লিষ্ট খবর


মন্তব্য যোগ করুণ

পরের
খবর

রিয়ালে ফিরতে চান রদ্রিগেজ


আরও খবর

খেলা
রিয়ালে ফিরতে চান রদ্রিগেজ

প্রকাশ : ২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

ছবি: ফাইল

  অনলাইন ডেস্ক

দুই বছরের জন্য রিয়াল মাদ্রিদ থেকে ধারে বায়ার্ন মিউনিখে খেলতে যান হামেস রদ্রিগেজ। কয়েক মাস পর সেই সময় পূর্ণ হবে। তার আগেই জানিয়ে দিলেন রিয়াল মাদ্রিদে ফেরার কথা, 'রিয়ালের জন্য আমি সবকিছু করতে প্রস্তুত। এটা আমার বাড়ির মতো, যেখানে সবাই আমাকে অনেক আপন করে নেয়, অনেক ভালোবাসে।'

মোনাকো থেকে রিয়ালে যোগ দেওয়ার পর খুব বেশিদিন থাকা হয়নি স্পেনে। লস ব্লাঙ্কোসদের স্কোয়াডে থাকলেও প্রায় সময় তাকে দেখা যেত সাইড বেঞ্চে। এরপর জিনেদিন জিদানের জামানায় হামেসকে বায়ার্নে পাঠিয়ে দেয় রিয়াল। কথা ছিল দুই বছর সেখানে খেলবেন তিনি, এরপর বায়ার্ন চাইলে তার সঙ্গে চুক্তি পাকাও করতে পারবে। এই জুনে শেষ হবে দুই বছরের মেয়াদ। তার আগে হামেসের রিয়াল-প্রীতি হয়তো চিন্তায় ফেলতে পারে বাভারিয়ানদের।

বায়ার্নে যোগ দেওয়ার পর খুব একটা খারাপ পারফর্ম করেননি রদ্রিগেজ। এখন পর্যন্ত ৩৬ ম্যাচে অংশ নিয়ে করেছেন ১০ গোল। যদিও এই পারফর্ম খুব একটা উল্লেখ করার মতোও নয়। সে ক্ষেত্রে বায়ার্ন কি কলম্বিয়ান উইঙ্গারকে রেখে দেবে? উত্তরটা এ মুহূর্তে দেওয়া একটু মুশকিল। তবে যতদূর শোনা যাচ্ছে, বায়ার্ন চাইছে হামেস স্পেনে না ফিরুক।

রিয়ালেরও তারকা প্রয়োজন! ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো যাওয়ার পর আক্রমণভাগে এখনও বড় কোনো তারকাকে নিতে পারেনি তারা। সে জন্য অবশ্য কম কথা হচ্ছে না। যদিও শীতকালীন দলবদলের সময় রিয়াল প্রধান পেরেজ একটা আভাস দিয়েছিলেন। তিনি বলেছিলেন, গ্রীষ্মকালীন দলবদল সামনে রেখে তারা প্রস্তুতি নিচ্ছে। পেরেজের কথা-কাজে মিলে গেলে হয়তো একাধিক নতুন তারকার দেখা মিলতেও পারে সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে। সেইসঙ্গে রদ্রিগেজকে পেলেও মন্দ কী।

সংশ্লিষ্ট খবর

পরের
খবর

চকবাজারের ঘটনায় তামিম, মুস্তাফিজ, মাহমুদুল্লাহদের শোক


আরও খবর

খেলা

  অনলাইন ডেস্ক

পুরান ঢাকার চকবাজারে অগ্নিকাণ্ডে হতাহতের ঘটনায় শোক জানিয়েছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের সদস্যরা। বাংলাদেশ দলের ওপেনার তামিম ইকবাল, অলরাউন্ডার মাহমুদুল্লাহ, পেসার মুস্তাফিজরা আলাদা আলাদাভাবে শোক প্রকাশ করেছেন। 

ফেসবুকে তামিম হতাহতের ঘটনায় সবার জন্য প্রার্থনা করার আহ্বান জানিয়েছেন। শোকাহত পরিবারের প্রতি সহমর্মিতা জানিয়েছেন। বাংলাদেশ দলের বাঁ-হাতি পেসার মুস্তাফিজ তার নিজস্ব ফেসবুকে শোক প্রকাশ করেছেন। তিনি ফেসবুকে লিখেছেন, 'ঢাকার চকবাজারের অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় আমরা গভীরভাবে শোকাহত। ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের প্রতি আমার সমবেদনা। নিহতদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করছি।'

পুরান ঢাকার চকবাজারে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় ৭০ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। ছবি: এএফপি

বাংলাদেশ দলের অলরাউন্ডার মাহমুদুল্লাহ শোক প্রকাশ করেছেন। তিনি ফেসবুক বার্তায় লিখেছেন, 'হতাহতের প্রতি আমার প্রার্থনা এবং সহমর্মিতা। তাদের পরিবারের শোক সামলানোর শক্তি দাও আল্লাহ।' ফেসবুক পোস্টে শোক প্রকাশ করেছেন বাংলাদেশ দলের পেসার রুবেল হোসেন। আলাদা পোস্টে তিনি অগ্নিকাণ্ডে আহতদের রক্ত দেওয়ার আহ্বান জানিয়েনে।       

রুবেল লিখেছেন, 'এই মুহূর্তে যারা কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার বা এর আশেপাশে অবস্থান করছেন, তারা দয়া করে ঢাকা মেডিকেলে চলে যান। চকবাজারের অগ্নিকান্ডে আহতদের জন্য প্রচুর রক্ত লাগতেসে। চলুন রক্ত দিয়ে অর্জিত এই ভাষা দিবসে রক্ত দিয়ে জীবন বাঁচাই।' এছাড়া তাসকিন আহমেদ, সৌম্য সরকার এবং সাব্বির রহমান ফেসবুকে দিয়েছেন এক পোস্টটি।

রাজধানীর পুরান ঢাকার চকবাজারে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় ৭০ জনের প্রাণহানি হয়েছে। বুধবার রাতে চকবাজারের চুড়িহাট্টার ওই অগ্নিকাণ্ড নিয়ে বৃহস্পতিবার দুপুরে ফায়ার সার্ভিসের পক্ষ থেকে এ তথ্য জানানো হয়। বৃহস্পতিবার বেলা ১টার দিকে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকন অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় উদ্ধার অভিযান আনুষ্ঠানিকভাবে সমাপ্ত ঘোষণা করেন।

সংশ্লিষ্ট খবর

পরের
খবর

চকবাজার অগ্নিকাণ্ডে আহতদের জন্য রক্ত চাইলেন রুবেল


আরও খবর

খেলা

  অনলাইন ডেস্ক

'এই মুহূর্তে যারা কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার বা এর আশেপাশে অবস্থান করছেন, তারা দয়া করে ঢাকা মেডিকেলে চলে যান। চকবাজারের অগ্নিকান্ডে আহতদের জন্য প্রচুর রক্ত লাগতেসে। চলুন রক্ত দিয়ে অর্জিত এই ভাষা দিবসে রক্ত দিয়ে জীবন বাঁচাই। নয়তো, পারলে এই বার্তাটি ছড়িয়ে দিন সবার মাঝে....।'

নিউজিল্যান্ড থেকে বাংলাদেশ জাতীয় দলের পেসার রুবেল হোসেন তার ফেসবুক পোস্টে লিখেছেন। ওয়ানডে সিরিজ খেলে তাদের দেশে ফেরার কথা বৃহস্পতিবার। সেখানে থেকেই চকবাজারের অগ্নিকাণ্ডে নিহতদের জন্য শোক জানালেন রুবেল হোসেন। এছাড়া যারা আহত তাদের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান জানালেন তিনি। 

এর আগের পোস্টে শোক জানিয়ে তিনি খেলেন, 'আল্লাহ চকবাজারে যেন আর মৃতের সংখ্যা না বাড়ে। ভয়াবহ এই অগ্নিকান্ডে যারা মারা গিয়েছেন মহান আল্লাহ যেন সবাইকে জান্নাত নসিব করেন...। হে আল্লাহ আপনি নিহতদের পরিবারেকে ধৈর্য ধারণ করার তৌফিক দান করুন। আমিন।'

এছাড়া বাংলাদেশ দলের ওপেনার তামিম ইকবাল ফেসবুকে অগ্নিকান্ডে নিহত-আহতের ঘটনায় শোক জানিয়েছেন। তিনি ফেসবুকে লিখেছেন, 'চকবাজারের ঘটনায় হতাহতদের জন্য প্রার্থনা করুণ। আল্লাহ তাদের পরিবারকে ধৈর্য্য ধারণের ক্ষমতা দিন।'

রাজধানীর পুরান ঢাকার চকবাজারে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় ৭০ জনের প্রাণহানি হয়েছে। বুধবার রাতে চকবাজারের চুড়িহাট্টার ওই অগ্নিকাণ্ড নিয়ে বৃহস্পতিবার দুপুরে ফায়ার সার্ভিসের পক্ষ থেকে এ তথ্য জানানো হয়। বৃহস্পতিবার বেলা ১টার দিকে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকন অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় উদ্ধার অভিযান আনুষ্ঠানিকভাবে সমাপ্ত ঘোষণা করেন।

সংশ্লিষ্ট খবর