খেলা

পাঞ্জাবের বিপক্ষে হারলেই বিদায় মুম্বাইয়ের

প্রকাশ : ১৬ মে ২০১৮

পাঞ্জাবের বিপক্ষে হারলেই বিদায় মুম্বাইয়ের

  অনলাইন ডেস্ক

মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের নিজস্ব ফেসবুক পেজে পাঞ্জাবকে শুভ কামনা জানাচ্ছেন অনেকে। পাঞ্জাবের বিপক্ষে এই ম্যাচে মুম্বাই হারুক এটাই কাম্য তাদের। কারণ অনুমান করতে কষ্ট হওয়ার কথা না। এরা মুম্বাই কিংবা পাঞ্জাবের সমর্থক নন। সবাই বাংলাদেশের বামহাতি কাটার মাস্টার মুস্তাফিজের ভক্ত। 

মুস্তাফিকজে প্রথম ছয় ম্যাচে মাঠে নামিয়েছিল মুম্বাই। এরপর বেঞ্চ গরম করছেন ফিজ। আর তাই ভক্তদের এই আক্ষেপ। আজ বুধবার রাতে কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের মুখোমুখি হবে রোহিত শর্মার মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স। এ ম্যাচে হারলেই বিদায় নিতে হবে গতবারের চ্যাম্পিয়নদের। 

কারণ মুম্বাই এখন পর্যন্ত পাঁচ ম্যাচে জয় পেয়েছে। এই ম্যাচ হেরে যদি তারা শেষ ম্যাচে জেতে তবুও তাদের জয় হবে ছয়টি। অন্যদিকে শেষ চারে যাওয়ার জন্য অন্য চার দলের সাতটি করে জয় হয়ে যাবে। তবে মুম্বাই যদি এই ম্যাচে জয় পায় এবং শেষ ম্যাচেও জেতে তবে তাদের শেষ চারে যাওয়ার ভালো সুযোগ থাকবে। সেক্ষেত্রে চ্যাম্পিয়নদের নেট রান রেটের উপর নির্ভর করতে হবে। 

পাঞ্জাব যদি মুম্বাইয়ের বিপক্ষে জেতে তবুও তাদের শেষ চারের রাস্তা পরিষ্কার হবে না। কারণ নেট রান রেটে সবার চেয়ে পিছিয়ে আছে পাঞ্জাব। ওদিকে নিজেদের শেষ ম্যাচে রাজস্থান জিতলে তাদের সুযোগ বেড়ে যাবে প্লে অফ খেলার। রাহানের দলের নেট রান রেট পাঞ্জাবের চেয়ে ভালো হওয়ায় সুযোগ থাকবে তাদের পক্ষে। 

তাছাড়া ১২ ম্যাচে ৫ জয় পাওয়া ব্যাঙ্গালুরুও যদি শেষ দুই ম্যাচে জেতে তবে তারাও শেষ চারের দাবিদার হবে। তাদের নেট রান রেটও কিংসদের থেকে ভালো। এগিয়ে যাবে রাজস্থান-কলকাতার চেয়েও। শেষ দুই ম্যাচে জিতলে মুম্বাইয়েরও শেষ চারে যাওয়ার ভালো সুযোগ আছে। ম্যাচ হারলেও নেট রান রেটের হিসেবে এখনো অন্যদের চেয়ে অনেক এগিয়ে মুম্বাই। 

তাছাড়া কলকাতার নেট রান রেটও বেশ কম। শেষ চার নিশ্চিত করতে হলে তাদের তাই শেষ ম্যাচ জিততে হবে। নয়তো অন্যদের দিকে তাকিয়ে থাকতে হবে। তবে নেট রান রেটের হিসেবে কলকাতা এখন পর্যন্ত পাঞ্জাব এবং রাজস্থানের চেয়ে এগিয়ে আছে। 

সংশ্লিষ্ট খবর


মন্তব্য যোগ করুণ

পরের
খবর

পুরনো ঘটনায় ক্লপ-রামোসের কথা চালাচালি


আরও খবর

খেলা

  অনলাইন ডেস্ক

'সের্গিও রামোস যা করেছে তা এখনও আমি মানতে পারছি না', লিভারপুল কোচ ইর্য়োগেন ক্লপ বলেছেন কথাটা। সালাহর কোচ কোন বিষয়টা ভুলতে পারছেন না ফুটবল প্রেমিদের তা ভুলে যাওয়ার কথা নয়। মোহামেদ সালাহকে করা রামোসের ট্যাকলের ঘটনা। 

গেল মৌসুমের ঘটনা। ওই ট্যাকলে চ্যাম্পিয়নস লিগের ফাইনাল জেতার স্বপ্ন শেষ হয়ে যায় লিভারপুলের। ক্লপ সেই স্মৃতিচারণ করেছেন মৌসুমের শুরুতে। আর তোপে ফেলেছেন রামোসকে। 

রামোস তো আর ছেড়ে কথা বলার পাত্র নন। ক্লপের সেই সমালোচনার জবাব দিলেন তিনিও। ক্লপ বাড়াবাড়ি করছেন উল্লেখ করে রামোস বলেন, 'এমন প্রসঙ্গ না টেনে নিজের চরকায় তেল দিন। আমি চাই না এটা নিয়ে আবারও কথা বলতে। তিনি (ক্লপ) একটু বাড়াবাড়ি করছেন।'

সালাহকে চ্যাম্পিয়নস লিগের ফাইনালে রামোসের ট্যাকলে নিয়ে আলোচনা-সমালোচনা কম হয়নি। সে কথা মনে করতেই হয়তো ক্লপ ঘটনাটা আবার পেড়েছিলেন। তবে রামোস মনে করেন হারের পর অজুহাত দিচ্ছেন ক্লপ। তিনি বলেন, 'আসলে এটা তার প্রথম ফাইনাল হার নয়। এর আগেও তিনি ফাইনালে হেরেছেন। আমার মনে হয় তিনি হারের অজুহাত দাঁড় করিয়েছেন।'

রামোস রিয়ালের অধিনায়ক হয়ে গত দুই আসরে চ্যাম্পিয়নস লিগের শিরোপা জিতেছেন। দলনেতা হিসেবে সেরা কোচ নির্বাচনে  ক্লপকে ভোটও দিয়েছিলেন তিনি। স্প্যানিশ তারকা বিষয়টি সামনে টেনে বলেন, 'সেরা কোচের নির্বাচনে আমি তাকে ভোট দিয়েছিলাম। সে জন্য হলেও তাকে এখন মাথা ঠাণ্ডা রাখা উচিত।'

সংশ্লিষ্ট খবর

পরের
খবর

ভারতের এমন হারই প্রাপ্য: বয়কট


আরও খবর

খেলা

ছবি: ফাইল

  অনলাইন ডেস্ক

স্বাগতিক ইংল্যান্ডের বিপক্ষে দুই টেস্ট খেলে ফেলেছে ভারত। প্রথম টেস্টে এজবাস্টনে জিততে জিততে হেরে যায় তারা। আর দ্বিতীয় টেস্টে লর্ডসে ইংল্যান্ডের সামনে দাঁড়াতেই পারেনি ধাওয়ান-কোহলিরা। শক্তিশালী ব্যাটিং লাইন আপ নিয়ে ইনিংস ব্যবধানে হেরেছে কোহলির দল। তবে সাবেক ইংলিশ ক্রিকেটারের মতে, এটা খুবই স্বাভাবিক ফল যা ভারতের প্রাপ্য ছিল। 

ভারতের ব্যাটসম্যানরা এরই মধ্যে চার ইনিংস ব্যাট করেছেন। তাতে দলীয় অধিনায়ক  বিরাট কোহলি সর্বোচ্চ ২৪০ রান করেছেন। তাও প্রথম টেস্টে ২০০ রান ছিল তার নামের পাশে। আর কেউ চার ইনিংসে শতক পেরুতে পারিনি। হার্দিক পান্ডিয়া ৯০ ও রবিচন্দ্রন অশ্বিন করেছেন মোট ৮৫ রান। আর ধাওয়ান, বিজয়, রাহুল কিংবা রাহানেরা পঞ্চশের ঘরেও যেতে পারেননি। 

ভারত দুই টেস্টের ব্যাটিংয়ের কারণে হেরেছে। টপ অর্ডারের ব্যাটসম্যানরা যেন ব্যাট করতে ভুলেই গেছেন। ভারতের এ্ই হতশ্রী দশায় অবাক হয়েছেন অনেকে। তবে ব্যতিক্রম সাবেক ইংলিশ ক্রিকেটার জিওফ্রে বয়কট। তার মতে, এমন দুরবস্থাই  প্রাপ্য  রবি শাস্ত্রীর শিষ্যদের। 

ভারতীয় ব্যাটসম্যানদের বুদ্ধিহীন বলে উল্লেখ করেছেন বয়কট। ব্রিটিশ দৈনিক টেলিগ্রাফে তিনি লেখেন, 'ভারতীয় দল ভেবেছিল, দেশের মাটিতে তারা যেভাবে ব্যাট করে, ইংল্যান্ডে এসেও তারা সেভাবেই ব্যাট করবে। কিন্তু ভিন্ন কন্ডিশনে ভিন্ন পরিকল্পনা ছাড়া আপনাকে স্রেফ বিধ্বস্ত হতে হবে। ভারত যে দুরবস্থায় পড়েছে, এটা তাদের প্রাপ্য।' 

ভারতীয় দল তাদের সমর্থকদের মাথা নিচু করে দিয়েছে বলে উল্লেখ করেন তিনি। বয়কট বলেন, 'ভারতীয় ক্রিকেটাররা শুধু নিজেদের নয়, সমর্থকদের মাথাও নিচু করে দিয়েছে। তাদের ব্যাটিং দেখে শিশুসুলভ, দায়িত্বজ্ঞানহীন এবং বুদ্ধিহীন মনে হয়েছে। আউটসুইংয়ে তাদের ড্রাইভ খেলতে যাওয়া পরিকল্পনাহীনতার বড় প্রমাণ।'

বয়কট ভারতীয় ব্যাটসম্যানদের আউটসু্ইংয়ে ব্যাট চালানো নিয়ে বলেন, 'তারা আউটসুইংয়ে মিড উইকেটে খেলতে গেছে। এরপর স্লিপে ক্যাচ হওয়া বা বোল্ড হতে দেখা আশ্চর্য কিছু না।' ভারত প্রথম টেস্টে ৩১ রানে হারের পর লর্ডসে হেরেছে ইনিংস ও ১৫৯ রানের বড় ব্যবধানে। স্বাগতিকদের বিপক্ষে টেন্টব্রিজে ১৮ আগস্ট থেকে তৃতীয় টেস্টে মাঠে নামবে ভারত। ওই ম্যাচই হয়ে যেতে পারে সিরিজ নির্ধারক। 

সংশ্লিষ্ট খবর

পরের
খবর

পবিত্র হজ পালন করছেন সাকিব


আরও খবর

খেলা

ছবি: ফেসবুক

  অনলাইন ডেস্ক

আপাতত বাংলাদেশের কোন খেলা নেই। ওয়েস্ট ইন্ডিজের সফর ভালো খারাপের মধ্যে দিয়ে শেষ করেছে বাংলাদেশ। সাকিবের সামনে অবশ্য ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (সিপিএল) খেলা ছিল। কিন্তু আঙুলের ইনজুরির কারণে খেলবেন না সেটা আগেই জানিয়ে দিয়েছেন তিনি। সেই সময়টা তিনি মুসুলমানদের 'ফরজ ইবাদত' পবিত্র হজ পালনে কাজে লাগাচ্ছেন। 

হজ পালন করতে সাকিব দু'দিন আগেই সৌদি আরব পৌঁছেছেন। হজের নিয়ম অনুযায়ী শুরুতে গেছেন মক্কায়। এরপর নিয়ম অনুযায়ী, মাথার চুল ফেলে দিয়েছেন তিনি। তার সেই ছবি নিজের ফেসবুক পেজে দিয়েছেন সাকিব। তাতে ভক্তরা সাকিবকে শুভ কামনা জানিয়ে বিভিন্ন মন্তব্য করেছেন। অনেকের মন্তব্যে আছে কৌতুহলও। 

পবিত্র হজ পালন শেষে সাকিবকে গুরুত্বপূর্ণ এক সিদ্ধান্ত নিতে হবে। আগামী সেপ্টেম্বর অনুষ্ঠিত এশিয়া কাপে অংশ নেবেন। নাকি আঙুলের ইনজুরিতে ভোগা সাকিব অস্ত্রোপচার করাবেন। সাকিব আঙুলে অস্ত্রোপচার করালে এশিয়া কাপ খেলতে পারবেন না। 

সে সিদ্ধান্ত জানতে সাকিবের পবিত্র হজ পালন শেষে দেশে আসার অপেক্ষা করতে হবে। এ মাসের শেষেই দেশে ফেরার কথা আছে তার। তারপর সিদ্ধান্ত নেবেন সংযুক্ত আরব আমিরাতে এশিয়া কাপের দলের সঙ্গে বিমানে উঠবেন নাকি অস্ত্রোপচারের জন্য অন্য কোন দেশের বিমানে। 

এছাড়া বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপনেরও পবিত্র হজ পালনে যাওয়ার কথা ছিল। তিনি সেখানে গিয়ে সাকিবের সঙ্গে দেখা করবেন বলেও জানান। অস্ত্রোপচারের বিষয়ে সাকিবের সঙ্গে আলাপ হওয়ার সম্ভাবনার কথাও বলেন তিনি।

সংশ্লিষ্ট খবর