অন্যান্য

সন্তানের নাম কি রাখলেন শোয়েব-সানিয়া?

প্রকাশ : ৩১ অক্টোবর ২০১৮ | আপডেট : ৩১ অক্টোবর ২০১৮

সন্তানের নাম কি রাখলেন শোয়েব-সানিয়া?

ফাইল ছবি

  অনলাইন ডেস্ক

ক্রিকেট ও টেনিস তারকা দম্পতি শোয়েব মালিক ও সানিয়া মির্জার ঘর আলো করে নতুন অতিথি এসেছেন। মঙ্গলবার সকালে পাকিস্তান দলের ক্রিকেটার শোয়েব মালিক এক টুইটার বার্তায় পুত্রের জনক হওয়ার কথা জানান।

এরপর ভারত ও পাকিস্তানের হয়ে খেলা এই দম্পত্তি পুত্র সন্তানের কি নাম রাখছেন তা নিয়েই ছিল ভক্তদের আগ্রহ। জন্মের একদিন বাদেই নতুন অতিথীর নাম রাখলেন শোয়েব-সানিয়া দম্পতি।

দুই দেশের হয়ে প্রতিনিধিত্ব করা এই দুই তারকা ২০১০ সালের এপ্রিলে ঘরোয়া অনুষ্ঠানে গাঁটছড়া বাধেন। চলতি বছরের এপ্রিলে সানিয়ার মা হওয়ার খবর টুইটারে শেয়ার করেন শোয়েব মালিক।

এরপর সানিয়া বলেছিলেন, তাদের সন্তানের নাম রাখা হবে বাবা-মায়ের পদবি যোগ করে। করেছেনও তাই। এনডিটিভির খবর অনুযায়ী, দু'জনের পদবীর সঙ্গে মিল রেখে তারা ছেলের নামকরণ করেছেন ইজহান মির্জা মালিক। এখন থেকে এ নামেই তাকে চি‌নবে সবাই।


মন্তব্য যোগ করুণ

পরের
খবর

১৪ ডিসেম্বরের পর নির্বাচনের মাঠে নামবেন মাশরাফি


আরও খবর

অন্যান্য

  সমকাল প্রতিবেদক

জাতীয় ক্রিকেট দলের ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা বলেছেন, এখনও ক্রিকেট নিয়ে আছি। নির্বাচনের মাঠে নামিনি। আগামী ১৪ ডিসেম্বরের পর নির্বাচনের মাঠে নামবো। 

মঙ্গলবার দুপুরে মিরপুরে শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন মাশরাফি।

মাশরাফি বলেন, আমাদের সবার একটা রাজনৈতিক মতাদর্শ থাকে। সেটি লুকিয়ে রাখার কিছু নেই। সেটি প্রকাশ করা উচিত এবং আমি তা প্রকাশ করেছি। 

ওয়ানডে দলের এই অধিনায়ক বলেন, আমি নড়াইলের উন্নয়ন করতে চাই। নড়াইলে আমার একটা ফাউন্ডেশন আছে সেটা দেখে আমার মনে হয়েছি নড়াইলের আরও উন্নয়নের জন্য আমার রাজনীতিতে আসা উচিত।

মাশরাফি বলেন, প্রধানমন্ত্রী আমাকে বলেছেন সে কাজগুলো করছো সেগুলো আরও বৃহৎ পরিসরে করো। প্রধানমন্ত্রীর এ কথা আমাকে অনুপ্রাণিত করেছে।  

পরের
খবর

নির্বাচন করার আগে সিরিজ যেমন ছিল এখনও তেমনি: মাশরাফি


আরও খবর

অন্যান্য

সংবাদ সম্মেলনে মাশরাফি বিন মর্তুজা- সমকাল

  সমকাল প্রতিবেদক

জাতীয় ক্রিকেট দলের ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা বলেছেন, নির্বাচন করার আগে আমার কাছে প্রত্যেকটা সিরিজ যেমন ছিল, এখনও প্রত্যেকটা সিরজিও তেমন। আমার কাছে কোনো পার্থক্য নাই। 

মঙ্গলবার দুপুরে মিরপুরে শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন মাশরাফি।

মাশরাফি বলেন, এখনও ক্রিকেট নিয়ে আছি। নির্বাচনের মাঠে নামিনি। আগামী ১৪ ডিসেম্বরের পর নির্বাচনের মাঠে নামবো। 

তিনি বলেন, আমাদের সবার একটা রাজনৈতিক মতাদর্শ থাকে। সেটি লুকিয়ে রাখার কিছু নেই। প্রকাশ করা উচিত এবং আমি তা প্রকাশ করেছি। 

ওয়ানডে দলের এই অধিনায়ক বলেন, আমি নড়াইলের উন্নয়ন করতে চাই। নড়াইলে আমার একটা ফাউন্ডেশন আছে সেটা দেখে আমার মনে হয়েছি নড়াইলের আরও উন্নয়নের জন্য আমার রাজনীতিতে আসা উচিত।

মাশরাফি বলেন, প্রধানমন্ত্রী আমাকে বলেছেন, যে কাজগুলো করছো সেগুলো আরও বৃহৎ পরিসরে করো। প্রধানমন্ত্রীর এ কথা আমাকে অনুপ্রাণিত করেছে।  

সংশ্লিষ্ট খবর