অন্যান্য

বিশ্ব সাহিত্যে মোস্তফা কামালের ‘থ্রি নভেলস’

প্রকাশ : ০৯ নভেম্বর ২০১৮

বিশ্ব সাহিত্যে মোস্তফা কামালের ‘থ্রি নভেলস’

  অনলাইন ডেস্ক

কথাসাহিত্যিক মোস্তফা কামালের তিনটি উপন্যাসের ইংরেজি অনুবাদ ‘থ্রি নভেলস’ প্রকাশিত হয়েছে সম্প্রতি। এক মলাটের তিনটি উপন্যাসের নাম যথাক্রমে ‘তালিবান, পাক কর্নেল অ্যান্ড অ্যা ইয়াং লেডি, (তালিবান, পাক কর্নেল এবং এক তরুণী)’, ‘ফ্লেমিং ইভেনটাইড (বারুদ পোড়া সন্ধ্যা)’ এবং ‘দ্য ফ্লাটারার (তেলবাজ)’।

প্রকাশ করেছে ভারত, সিঙ্গাপুর ও মালয়েশিয়া ভিত্তিক নোশনপ্রেস। মূল প্রকাশনা প্রতিষ্ঠানটি আরো প্রায় দশটি পরিবেশক প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে বিশ্বব্যাপী বিপণনের ব্যবস্থা করেছে।

কথাসাহিত্যিক মোস্তফা কামাল তার উপন্যাসের ইংরেজি অনুবাদের প্রাসঙ্গিকতা সম্পর্কে বলেন, ‘বাংলা সাহিত্যভাণ্ডারে কী আছে, বিশ্ব সাহিত্যের পাঠকদের জানার আগ্রহ আছে। প্রকাশকরা সে বিষয়টি বুঝতে পেরে বাংলা সাহিত্যের অনুবাদ প্রকাশের দিকে নজর দিয়েছেন। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের মতো বিশাল ব্যক্তিত্ব তার পর্যায় থেকে যে পরিচিতি পেয়েছেন, সেটা ছাড়া পরবর্তী সময়ে দীর্ঘদিন বাংলা সাহিত্যের যেটুকু অনুবাদ হয়েছে, তা চোখে পড়ার মতো নয়। আমাদের সাহিত্যে, বিশেষ করে আমাদের দেশের সাহিত্যে আমাদের জীবনের প্রতিচ্ছবি অন্যদের কাছে তুলে ধরতে হলে অনুবাদের কোনো বিকল্প নেই।’ 

মোস্তফা কামালেল তিন উপন্যাসের চিত্র ফুটে উঠেছে ‘থ্রি নভেলস’-এ। ‘তালিবান, পাক কর্নেল অ্যান্ড অ্যা ইয়াং লেডি, (তালিবান, পাক কর্নেল এবং এক তরুণী)’, ‘ফ্লেমিং ইভেনটাইড (বারুদ পোড়া সন্ধ্যা)’ এবং ‘দ্য ফ্লাটারার (তেলবাজ)’ এর সংকলন এই ‘থ্রি নভেলস’। 

আমাজনসহ ভারত ও বাংলাদেশের শীর্ষস্থানীয় অনলাইন স্টোরগুলোতে মিলছে ‘থ্রি নভেলস’। ভারতের ফ্লিপকার্ট ও ইনফিবিম এবং বাংলাদেশের রকমারিতে পাওয়া যাচ্ছে বইটি।

মোস্তফা কামালের উপন্যাস তিনটির মধ্যে ‘তালিবান পাক কর্নেল অ্যান্ড আ ইয়াং লেডি’ অনুবাদ করেছেন দুলাল আল মনসুর। লেখক নিজে অনুবাদ করেছেন দ্বিতীয় উপন্যাস ‘ফ্লেমিং ইভেনটাইড’ এবং ‘দ্য ফ্ল্যাটারার’ অনুবাদ করেছেন মাছুম বিল্লাহ।

উল্লেখ্য, মোস্তফা কামাল বর্তমানে দৈনিক কালের কণ্ঠের নির্বাহী সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করছেন। এছাড়া বিভিন্ন পত্রিকায় নিয়মিত কলাম লেখেন তিনি। সাংবাদিকতা পেশার সঙ্গে চলছে সাহিত্য রচনাও। এ পর্যন্ত ৯৮টি বই লিখেছেন তিনি। তার বিশেষ উল্লেখযোগ্য উপন্যাস হলো- ‘জননী’, ‘অগ্নিকন্যা’, ‘অগ্নিপুরুষ’, ‘পারমিতাকে শুধু বাঁচাতে চেয়েছি’, ‘হ্যালো কর্নেল’, জিনাত সুন্দরী ও মন্ত্রী কাহিনী’। 


মন্তব্য যোগ করুণ

পরের
খবর

পর্দা উঠল ঢাকা লিট ফেস্টের


আরও খবর

অন্যান্য
পর্দা উঠল ঢাকা লিট ফেস্টের

প্রকাশ : ০৮ নভেম্বর ২০১৮

  সমকাল প্রতিবেদক

শাস্ত্রীয় সংগীতের তালে কত্থক নৃত্যের পরিবেশনা দিয়ে শুরু হলো ঢাকা লিট ফেস্ট-২০১৮। বৃহস্পতিবার বাংলা একাডেমির আব্দুল করিম সাহিত্যবিশারদ মিলনায়তনে তিন দিনব্যাপী এ আয়োজনের শুভ উদ্বোধন ঘোষণা করেন সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর। 

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন- উৎসবের তিন পরিচালক কাজী আনিস আহমেদ, সাদাফ সায্ এবং আহসান আকবার। উদ্বোধনী বক্তৃতায় সংস্কৃতিমন্ত্রী বলেন, স্পিকার, লেখক ও বিদেশি অতিথিদের শুভেচ্ছা জানাই। সংস্কৃতি মন্ত্রণালয় ঢাকা লিট ফেস্টের অংশ হতে পেরে গর্বিত। আমি ঢাকা লিট ফেস্টের সাফল্য কামনা করি।

এরপর ফিতা কেটে আসরের উদ্বোধন করেন তিনি। এ সময় তার সঙ্গে ছিলেন- ফেস্টের পরিচালকরা, অভিনেত্রী নন্দিতা দাস এবং পুলিৎজার বিজয়ী লেখক এডাম জনসন।

এ আয়োজনের পরিচালক লেখক কাজী আনিস আহমেদ তার বক্তৃতায় বলেন, ঢাকা লিট ফেস্ট সবসময় মুক্তচিন্তা ও বাকস্বাধীনতায় বিশ্বাসী। ঢাকা লিট ফেস্ট বরাবরই নারী, রোহিঙ্গা ইস্যু ও বাকস্বাধীনতা নিয়ে কথা বলে। সংস্কৃতির প্রতি বাংলাদেশ সরকারের অগণিত সমর্থনের কারণে আমরা অষ্টমবারের মতো এই আয়োজন করতে পারছি। ঢাকা লিট ফেস্টের কেউ কথা বলতে বাধার সম্মুখীন হয় না। খোলামেলা আলোচনা করার জন্য এটা একটি মুক্ত জায়গা।

ঢাকা লিট ফেস্টের পরিচালক সাদাফ সায্ বলেন, ৯০টিরও বেশি সেশন নিয়ে সাজানো হয়েছে এবারের আয়োজন। নারী ইস্যু, হ্যাশট্যাগ মি টু, রোহিঙ্গা ইস্যুসহ নানা বিষয়ে আলোচনার সেশন থাকছে আসরে। 

এবারের আসরে থাকছেন ১৫ দেশের দুই শতাধিক সাহিত্যিক, অভিনেতা, রাজনীতিক, গবেষক এবং বাংলাদেশের প্রায় দেড়শ’ লেখক, অনুবাদক, সাহিত্যিক ও শিক্ষাবিদ। অনুষ্ঠানের শেষ দিন যোগ দেবেন ভারতীয় লেখক শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায়। 

বিদেশি অতিথিদের মধ্যে অংশ নিচ্ছেন পুলিৎজার জয়ী মার্কিন সাহিত্যিক অ্যাডাম জনসন, পাকিস্তানি বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ লেখক মোহাম্মদ হানিফ, ব্রিটিশ উপন্যাসিক ফিলিপ হেনশের, বুকার বিজয়ী ব্রিটিশ উপন্যাসিক জেমস মিক, ভারতীয় জনপ্রিয় লেখিকা জয়শ্রী মিশরা, লন্ডন ন্যাশনাল একাডেমি অব রাইটিংয়ের পরিচালক রিচার্ড বেয়ার্ড, ভারতীয় লেখিকা হিমাঞ্জলি শংকর, শিশুতোষ লেখিকা মিতালি বোস পারকিন্স, ওয়ালস্ট্রিট জার্নাল এশিয়ার প্রধান হুগো রেস্টল, মার্কিন সাংবাদিক প্যাট্রিক উইন, লেখক ও সাংবাদিক নিশিদ হাজারি।

নিজের লেখালেখি নিয়ে কথা বলতে আসছেন অস্কার জয়ী অভিনেত্রী টিলডা সুইন্টন। থাকছেন বলিউড অভিনেত্রী মনীষা কৈরালা। লিট ফেস্টে তিনি নিজের আত্মজীবনী নিয়ে কথা বলবেন। এসেছেন অভিনেত্রী ও চলচ্চিত্র পরিচালক নন্দিতা দাস। 

এছাড়া বাংলাদেশের লেখক, অনুবাদক, সাহিত্যিক ও শিক্ষাবিদদের মধ্যে থাকছেন- ড. আনিসুজ্জামান, আফসান চৌধুরী, আসাদুজ্জামান নূর, সৈয়দ মনজুরুল ইসলাম, কামাল চৌধুরী, আসাদ চৌধুরী, ফখরুল আলম, ইমদাদুল হক মিলন, মঈনুল আহসান সাবের, আলী যাকের, সেলিনা হোসেন, শামসুজ্জামান খান, আনিসুল হক, কায়সার হক, খাদেমুল ইসলাম, অমিতাভ রেজা, মুন্নী সাহা, শাহনাজ মুন্নী ও নবনীতা চৌধুরী।

লিট ফেস্টের দ্বিতীয় দিন শুক্রবার ঘোষণা করা হবে ‘জেমকন সাহিত্য পুরস্কার’। একই দিনে লঞ্চ করা হবে ক্যামব্রিজ শর্ট স্টোরি প্রাইজ। তিন দিনের এই সাহিত্য উৎসব চলবে আগামী শনিবার পর্যন্ত। 

সংশ্লিষ্ট খবর

পরের
খবর

'গ্যালিলিও'র তৃতীয় প্রদর্শনী কাল


আরও খবর

অন্যান্য

  অনলাইন ডেস্ক

নাগরিক নাট্য সম্প্রদায়-এর ৪৬ তম প্রযোজনা বের্টোল্ট ব্রেশ্‌টের 'গ্যালিলিও'র পুনঃমঞ্চায়নে তৃতীয় প্রদর্শনী আগামীকাল মঙ্গলবার (৬ নভেম্বর) সন্ধ্যা ৭টায়, এক্সপেরিমেন্টাল থিয়েটার হল, বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমিতে। আব্দুস সেলিম অনূদিত নাটকটির নির্দেশনায় রয়েছেন পান্থ শাহ্‌রিয়ার। 

অভিনয়ে আলী যাকের, আসাদুজ্জামান নূর, পান্থ শাহ্‌রিয়ার, রুহে তামান্না লাবণ্য, ফারহানা মিঠু, আব্দুর রশীদ, মোস্তাফিজ শাহীন এবং আরো অনেকে। পোষাক পরিকল্পনায় রয়েছেন সারা যাকের এবং সহযোগিতায় রয়েছেন নিমা রহমান। আলোক নির্দেশনায় আছেন নাসিরুল হক খোকন। মঞ্চ পরিকল্পনা করেছেন অপি করিম। প্রযোজনাটির নির্বাহী অধিকর্তা সারা যাকের। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি।

পরের
খবর

বৃহস্পতিবার শুরু ঢাকা লিট ফেস্ট, চলছে নিবন্ধন


আরও খবর

অন্যান্য

ঢাকা লিট ফেস্ট উপলক্ষে সোমবার বাংলা একাডেমির শহীদ মুনীর চৌধুরী মিলনায়তনে সংবাদ সম্মেলন করেন আয়োজকরা। ছবি: সমকাল

  সমকাল প্রতিবেদক

আবারও পর্দা উঠতে যাচ্ছে ঢাকা লিট ফেস্টের। আগামী বৃহস্পতিবার থেকে রাজধানীর বাংলা একাডেমি প্রাঙ্গণে শুরু হচ্ছে তিন দিনের এ সাহিত্য উৎসব। বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় এই আয়োজনের উদ্বোধন করবেন সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর। 

অষ্টমবারের মতো আয়োজিত এ উৎসব শেষ হবে শনিবার। প্রতিদিন চলবে সকাল ৯টা থেকে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টা পর্যন্ত। বরাবরের মতো এবারও এ উৎসবের আয়োজন করছে যাত্রিক; সহযোগিতায় রয়েছে সংস্কৃতিবিষয়ক মন্ত্রণালয়। পুরো উৎসব পরিচালনা করছেন কথাসাহিত্যিক কাজী আনিস আহমেদ, কবি সাদাফ সায্ সিদ্দিকী ও কবি আহসান আকবার। এবারের উৎসবের প্রধান পৃষ্ঠপোষক হিসেবে থাকছে ঢাকা ট্রিবিউন ও বাংলা ট্রিবিউন। সহ-পৃষ্ঠপোষক ব্র্যাক ব্যাংক।

সোমবার বাংলা একাডেমির শহীদ মুনীর চৌধুরী মিলনায়তনে এই ঘোষণা দেন আয়োজকরা। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা লিট ফেস্টের তিন পরিচালক- বাংলা একাডেমির পরিচালক ডা. কে এম মুজাহিদুল ইসলাম, ব্র্যাক ব্যাংকের ভাইস প্রেসিডেন্ট জারা মাহবুব খান ও ঢাকা ট্রিবিউনের সম্পাদক জাফর সোবহান এবং বাংলা ট্রিবিউনের সম্পাদক জুলফিকার রাসেল।

সংবাদ সম্মেলনে কাজী আনিস আহমেদ বলেন, ২০১১ সালে ‘হে ফেস্টিভ্যাল’ নাম দিয়ে এই আয়োজন যাত্রা শুরু করে। ২০১৫ সাল থেকে এটি ঢাকা লিট ফেস্ট নামে আত্মপ্রকাশ করে। গত আট বছরে এ উৎসবের মধ্য দিয়ে বাংলাদেশকে বিশ্বের কাছে তুলে ধরার চেষ্টা করা হয়েছে। যার কারণে নোবেল, ম্যান বুকার, পুলিৎজার বিজয়ীরা এ উৎসবে অংশ নিচ্ছেন। ঢাকা লিট ফেস্টের মঞ্চ এখন বিশ্বের কাছে সুপরিচিত। তারই জের ধরে ক্যামব্রিজ শর্ট স্টোরি প্রাইজ কর্তৃপক্ষ এবার এই মঞ্চে এ পুরস্কার ঘোষণা করবেন। সে সঙ্গে আন্তর্জাতিক সাহিত্য পত্রিকা গ্রান্টা ম্যাগাজিন দ্বিতীয়বারের মতো এ উৎসবে অংশীদার হচ্ছে। প্রদান করা হবে জেমকন সাহিত্য পুরস্কার।

সাদাফ সায্ সিদ্দিকী বলেন, এবারের উৎসবের তিন দিনে ৯০টির বেশি অধিবেশন অনুষ্ঠিত হবে। এখানে শুধু সাহিত্য নয় শিল্পকলা, আলোকচিত্র, চলচ্চিত্র- সব কিছুরই প্রদর্শনী থাকছে। বিশ্বের ২৫ দেশের দুই শতাধিকের বেশি সাহিত্যিক, বক্তা ও চিন্তাবিদ এই আয়োজনে অংশ নেবেন।

আহসান আকবর বলেন, লিট ফেস্টে আমাদের মূল আগ্রহ থাকে বাংলা সাহিত্যকে প্রচার ও প্রসারের। সেটিকে এগিয়ে নিতে আমরা বাংলা সাহিত্যের লেখকদের বই বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে দিতে ভারতীয় প্রকাশনা সংস্থা সি গার্ল যুক্ত হয়েছে ঢাকা লিট ফেস্টের সঙ্গে।

এবারের আয়োজনে বিদেশি অতিথিদের মধ্যে অংশ নিচ্ছেন ভারতীয় লেখক শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায়, অস্কার বিজয়ী অভিনেত্রী টিলডা সুইন্টন, বলিউড অভিনেত্রী মনীষ কৈরালা, অভিনেত্রী নন্দিতা দাস, পুলিৎজার বিজয়ী মার্কিন সাহিত্যিক অ্যাডাম জনসন, পাকিস্তানি বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ লেখক মোহাম্মদ হানিফ, ব্রিটিশ উপন্যাসিক ফিলিপ হেনশের, বুকার বিজয়ী ব্রিটিশ উপন্যাসিক জেমস মিক, ভারতীয় জনপ্রিয় লেখিকা জয়শ্রী মিশ্র, লন্ডন ন্যাশনাল অ্যাকাডেমি অব রাইটিংয়ের পরিচালক রিচার্ড বিয়ার্ড, ভারতীয় লেখিকা হিমাঞ্জলি শংকর, শিশুতোষ লেখিকা মিতালি বোস পারকিন্স, ওয়ালস্ট্রিট জার্নাল এশিয়ার প্রধান হুগো রেস্টল, মার্কিন সাংবাদিক প্যাট্রিক উইন, লেখক ও সাংবাদিক নিশিদ হাজারি প্রমুখ।

বাংলাদেশ থেকে সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর, আফসান চৌধুরী, সৈয়দ মনজুরুল ইসলাম, আসাদ চৌধুরী, ফকরুল আলম, ইমদাদুল হক মিলন, মঈনুল আহসান সাবের, আলী যাকের, সেলিনা হোসেন, শামসুজ্জামান খান, আনিসুল হক, কামাল চৌধুরী, মুস্তাফিজ শফি, মাহবুব আজীজ, কায়জার হক, খাদেমুল ইসলাম, অমিতাভ রেজা, মুন্নী সাহা, শাহনাজ মুন্নী, নবনীতা চৌধুরীসহ দেড় শতাধিক লেখক, অনুবাদক, সাহিত্যিক ও সাংবাদিক অংশ নিচ্ছেন এই আয়োজনে।

ইতিমধ্যেই ঢাকা লিট ফেস্টে অংশগ্রহণের জন্য বিনামূল্যে নিবন্ধন প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। নিবন্ধন করুন এই লিংকে গিয়ে- https://www.dhakalitfest.com/register/। উৎসবের শেষ দিন পর্যন্ত চলবে নিবন্ধন প্রক্রিয়া।

সংশ্লিষ্ট খবর