রাজশাহী

স্ত্রীকে গলা কেটে হত্যার পর থানায় আত্মসমর্পণ স্বামীর

প্রকাশ : ১৯ জুলাই ২০১৯ | আপডেট : ১৯ জুলাই ২০১৯

স্ত্রীকে গলা কেটে হত্যার পর থানায় আত্মসমর্পণ স্বামীর

ছবি: গুগল

  রাজশাহী ব্যুরো

রাজশাহীতে পরকীয়ার অভিযোগে লাভলি বেগম (২৮) নামে এক গৃহবধূকে গলা কেটে হত্যার পর থানায় গিয়ে আত্মসমর্পণ করেছেন শরিফুল ইসলাম রেন্টু নামে এক স্বামী। বৃহস্পতিবার রাত আড়াইটার দিকে পবা উপজেলার শিতলাই ইউনিয়নের কলারটিকর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

ঘাতক শরিফুল উপজেলার দামকুড়া থানার কলারটিকর গ্রামের খোকার ছেলে।

পুলিশ জানায়, বৃহস্পতিবার রাতে ঘুমন্ত স্ত্রীর মাথায় আঘাত করেন শরিফুল। পরবর্তীতে মৃত্যু নিশ্চিত করতে পায়ের রগ ও গলা কেটে লাভলি বেগমকে হত্যা করেন তিনি। পরে রাত সাড়ে তিনটার দিকে শরিফুল নিজে থানায় হাজির হয়ে পুলিশকে স্ত্রী হত্যার কথা জানিয়ে আত্মসমপর্ণ করেন।

দামকুড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাজহারুল ইসলাম সমকালকে জানান, রেন্টু রাত সাড়ে তিনটার দিকে থানায় হাজির হয়ে স্ত্রীকে পায়ের রগ ও গলা কেটে হত্যার করার কথা জানিয়েছে। পরে পুলিশ তার বাড়িতে গিয়ে স্ত্রীর লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ফরেন্সিক বিভাগে পাঠায়।

ওসি বলেন, 'স্বামী শরিফুলের অভিযোগ ছিলো- তার স্ত্রী পরকিয়ার সর্ম্পকে জড়িত ছিলো। তাই দীর্ঘদিন যাবৎ তাদের মধ্যে বিবাদ চলছিলো। এরই জের ধরে স্ত্রীকে পায়ের রগ ও গলা কেটে হত্যা করে বলে শরিফুল প্রাথমিকভাবে পুলিশকে জানিয়েছে।'

মন্তব্য


অন্যান্য