প্রবাস

যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সম্মেলন দাবিতে নিউইয়র্কে সমাবেশ

প্রকাশ : ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৯ | আপডেট : ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৯

যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সম্মেলন দাবিতে নিউইয়র্কে সমাবেশ

  অনলাইন ডেস্ক

নিউইয়র্কে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ এবং আওয়ামী পরিবারের ব্যানারে আয়োজিত কর্মী সমাবেশে বক্তারা সম্মেলনের দাবি জানিয়ে বলেছেন, আমাদের বিশ্বাস বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা এবার নিজেই যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের কমিটি করে দিয়ে যাবেন। কমিটির জন্যে কাউকে টাকা দেবেন না।

যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সম্মেলনের দাবি এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা'র যুক্তরাষ্ট্র আগমন উপলক্ষে নিউইয়র্ক সিটির জ্যাকসন হাইটসে পালকি পার্টি সেন্টারে স্থানীয় সময় রোববার সন্ধ্যায় এ কর্মী সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

সমাবেশে থেকে ড. সিদ্দিকুর রহমানের নেতৃত্বাধীন ৮ বছরের কমিটির অবসান ঘটিয়ে গতিশীল ও নিয়মনীতির মাধ্যমে পরিচালনার জন্য ত্যাগী ও নিবেদিতপ্রাণ কর্মীদের সমন্বয়ে একটি নতুন কমিটি গঠনের জোর দাবি জানানো হয়।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আসন্ন জাতিসংঘ সফর ঘিরে আওয়ামী পরিবারের এ সমাবেশে 'বিশ্বনেতা শেখ হাসিনার আগমণ-শুভেচ্ছা স্বাগতম', 'যেখানে বিএনপি-জামায়াত-সেখানেই প্রতিরোধ' সহ বিভিন্ন স্লোগানের পাশাপাশি 'নো মোর সিদ্দিক' স্লোগানটি উচ্চারিত হয় বারবার। খবর ইউএসএনিউজ অনলাইনের

যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের মানবাধিকার বিষয়ক সম্পাদক মিসবাহ আহমেদের সভাপতিত্বে এবং শিল্প ও বাণিজ্য সম্পাদক ফরিদ আলমের পরিচালনায় এ কর্মী সমাবেশে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন সংগঠনের আইন বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট শাহ মো. বখতিয়ার।

বিপুলসংখ্যক নেতাকর্মীর এ সমাবেশে নীতি-নির্ধারণী বক্তব্য দেন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের অন্যতম উপদেষ্টা ও বাকসুর সাবেক ভিপি ড. প্রদীপ রঞ্জন কর। অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা হাজী সফিকুল আলম, এম এ জলিল, তোফায়েল চৌধুরী ও হাকিকুল ইসলাম খোকন, যুগ্ম সম্পাদক আইরিন পারভিন, সাংগঠনিক সম্পাদক চন্দন দত্ত, শিক্ষা সম্পাদক এমএ করিম জাহাঙ্গীর, নির্বাহী সদস্য হিন্দাল কাদির বাপ্পা, শরিফ কামরুল হীরা, ইলিয়ার রহমান, আশরাফ মাসুক, সিরাজুল ইসলাম, লিটু গাজী, সাবু মিয়া, সাখাওয়াত হোসেন চঞ্চল, শেখ হাসিনা মঞ্চের সভাপতি জালালউদ্দিন জলিল ও সাধারণ সম্পাদক কায়কোবাদ খান, যুক্তরাষ্ট্র মহিলা আওয়ামী লীগের সভানেত্রী অধ্যাপক মমতাজ শাহনাজ, নিউইয়র্ক স্টেট আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি একেএম আলমগীর, মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি জাকারিয়া চৌধুরী, সিনিয়র সহ সভাপতি আবুল হুসেন, যুগ্ম সম্পাদক সুব্রত তালুকদার, মুক্তিযোদ্ধা মিজানুর রহমান চৌধুরী, প্রফেসর ওয়াজি উল্লাহ, এম এ আওয়াল, স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা আশরাফ উদ্দিন, শ্রমিক লীগ নেতা মঞ্জুর চৌধুরী, মুক্তিযুদ্ধা যুব কমান্ডের সভাপতি মো. আবদুল মুহিত, জহিরুল ইসলাম, নাদের আলী মাস্টার, মো. মাঈনুদ্দিন, হেলাল মাহমুদ, মোল্লা মাসুদ, বিএম জাকির হোসেন, রোমানা আক্তার, ফরিদা আরভি, শারমিন আক্তার, আফরোজা, আক্কাস আলী, খন্দকার জাহিদুল ইসলাম, হুমায়ূন কবির, মো. আলিম উদ্দিন, যুবলীগ নেতা শেখ জামাল হুসেন, সেবুল মিয়া, ইফজাল চোধুরী, রাহিমুজ্জামান সুমন, রিন্টু লাল দাস, নাফিকুর রহমান তুরান, রেজা আব্দুল্লাহ স্বপন, নুরুল ইসলাম মিলন, জামাল আহমে, মনির উদ্দিন, শোহেব আহমেদ, মিজানুর রহমান চৌধুরী, রবিউল ইসলাম, মকবুল হোসেন তালুকদার, দেলোয়ার হোসেন, আতাউর রহমান তালুকদার, ওমর ফারুক, গিয়াস উদ্দিন বিশ্বাস, রকিব হোসেন প্রমুখ।

মন্তব্য


অন্যান্য