প্রবাস

লন্ডনে সাম্প্রদায়িকতাবিরোধী গোলটেবিল আলোচনা

প্রকাশ : ০৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯ | আপডেট : ০৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯

লন্ডনে সাম্প্রদায়িকতাবিরোধী গোলটেবিল আলোচনা

ছবি: সমকাল

  লন্ডন প্রতিনিধি

‘ন্যায় বিচার, সাম্য ও শান্তির জন্য সাম্প্রদায়িকতাবিরোধী আপোষহীন সংগ্রাম’ শ্লোগানে লন্ডনে অনুষ্ঠিত হয়েছে সাম্প্রদায়িকতাবিরোধী গোলটেবিল আলোচনা। শনিবার পূর্ব লন্ডনের মাইক্রো বিজনেস সেন্টারে যুক্তরাজ্য একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি, উদীচী শিল্পী গোষ্ঠী ও সেক্যুলার বাংলাদেশ মুভমেন্ট ইউকের যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত ‘প্রতিবাদ, প্রতিরক্ষা, প্রতিরোধ ও প্রচার’ শীর্ষক সাম্প্রদায়িকতা বিরোধী এই গোলটেবিল আলোচনায় ৪টি বিষয়ে পৃথক প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন আনসার আহমেদ উল্লাহ, পুষ্পিতা গুপ্ত, নিসার আহমেদ ও হারুনুর রশীদ।

একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি যুক্তরাজ্য শাখার সভাপতি নূর উদ্দিন আহমেদের সভাপতিত্ব ও সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত আলোচনায় অতিথি আলোচক ছিলেন- বাংলাদেশ থেকে আগত ঘাতক দালাল নির্মূল কেন্দ্রীয় কমিটির উপদেষ্টা সাবেক বিচারপতি ব্যারিস্টার শামসুদ্দিন চৌধুরী মানিক ও নির্মূল কমিটির আইন বিষয়ক সম্পাদক ব্যারিস্টার নাদিয়া চৌধুরী। অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- ব্রিটেনে মুক্তিযুদ্ধের প্রবীন সংগঠক সুলতান শরীফ, যুক্তরাজ্য নির্মূল কমিটির উপদেষ্টা মাহমুদ এ রউফ ও মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিলর খলিল কাজি ওবিই প্রমুখ।

ব্যারিস্টার শামসুদ্দিন চৌধুরী মানিক তার বক্তৃতায় বাংলাদেশের হাজার বছরের সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির ইতিহাস তুলে ধরে বলেন, এই অঞ্চলের প্রতিটি ধর্মের মানুষ পারস্পরিক শ্রদ্ধাবোধ নিয়ে পাশাপাশি বসবাস করে আসছে সুদীর্ঘকাল ধরে। ৪৭ এ ভারত ছেড়ে আসার মুহূর্তে মূলত ব্রিটিশরাই দক্ষিণ এশিয়ায় সাম্প্রদায়িকতার বীজ বপন করে এসেছিলো। 

ব্যারিস্টার নাদিয়া চৌধুরী সাম্প্রদায়িকতাবিরোধী আন্দোলনে দেশে নির্মূল কমিটির বিভিন্ন কর্মসূচির বিস্তারিত তুলে ধরেন। সাম্প্রদায়িকতা নির্মূলে দক্ষিণ এশিয়ার জনগণের ঐক্যবদ্ধ আন্দোলনের কোনো বিকল্প নেই- মন্তব্য করে অন্য বক্তারা বলেন, এ অঞ্চলে দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনা নিয়ে ন্যায় বিচার, সমতা ও শান্তির জন্য কাজ করে যেতে হবে আমাদের। অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠায় দেশ ও দেশের বাইরের সব সমমনা ব্যক্তি, গোষ্ঠী ও সংগঠনগুলোকে একযোগে কাজ করতে হবে।


মন্তব্য


অন্যান্য