প্রবাস

বিশ্বকাপ ট্রফি একদিন বাংলাদেশে আসবেই: গাফফার চৌধুরী

প্রকাশ : ০৮ জুলাই ২০১৯ | আপডেট : ০৮ জুলাই ২০১৯

বিশ্বকাপ ট্রফি একদিন বাংলাদেশে আসবেই: গাফফার চৌধুরী

  লন্ডন প্রতিনিধি

প্রবীণ সাংবাদিক ও কলামিষ্ট আবদুল গাফফার চৌধুরী বলেছেন, এক সময়ের অভিজাত শ্রেণির খেলা ক্রিকেটকে সাধারণ মানুষের খেলায় পরিণত করেছে আমাদের দামাল ছেলেরা, সুতরাং আজ না হোক কাল ক্রিকেট বিশ্বকাপ ট্রফি একদিন বাংলার ঘরে আসবেই।

শনিবার লন্ডনে ক্রিকেট বিশ্বকাপ সংবাদ সংগ্রহে বাংলাদেশ থেকে আসা সাংবাদিকদের নিয়ে লন্ডন ভিত্তিক অনলাইন সংবাদ মাধ্যম সত্যবাণী আয়োজিত ‘ক্রিকেট মিডিয়া গার্ডেন পার্টি’তে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথ বলেন তিনি। বাংলা সাংবাদিকতার কিংবদন্তী পুরুষ ও একুশের গানের রচয়িতা আবদুল গাফফার চৌধুরী।

বক্তৃতা, সঙ্গীত ও মধ্যাহ্নভোজের সমন্বয়ে পূর্ব লন্ডনের রেডব্রিজে সত্যবাণী অফিস সংলগ্ন গার্ডেনে আয়োজিত এই অনুষ্ঠান সঞ্চালনা ও উপস্থিত সুধীজনদের পরিচয় করিয়ে দেন সংবাদ মাধ্যমটির উপদেষ্টা সম্পাদক, মুক্তিযোদ্ধা সাংবাদিক আবু মুসা হাসান। অনুষ্ঠানে উপস্থিত হওয়ায় সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়ে কথা বলেন সত্যবাণীর প্রধান সম্পাদক সৈয়দ আনাস পাশা।

ঢাকার সাংবাদিকরা ছাড়াও অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে আরও উপস্থিত ছিলেন ও বক্তব্য রাখেন- ব্রিটেনে মুক্তিযুদ্ধের প্রবীন সংগঠক সুলতান মাহমুদ শরীফ, সাবেক এমপি, সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শফিকুর রহমান চৌধুরী, বাংলাদেশ ক্রিকেট কাউন্সিলের (বিসিবি) পরিচালক শফিউল আলম নাদেল, বিসিবি’র সাবেক জাতীয় কোচ, ক্যাপিটাল কিডস ক্রিকেটের প্রধান নির্বাহী ও হেড অব ডেভোলাপমেন্ট শহিদুল আলম রতন, স্থানীয় বাংলাদেশ হাই কমিশনের মিনিষ্টার (প্রেস) আশেকুন্নবী চৌধুরী, লন্ডন বাংলা প্রেস ক্লাবের সভাপতি এমদাদুল হক চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ জোবায়ের, যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ সাজিদুর রহমান ফারুক ও যুগ্ম সম্পাদক আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী।

ঢাকার সাংবাদিকদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- এটিএন বাংলার তওসিয়া ইসলাম, চ্যানেল আই‘র সাঈদুর রহমান শামীম, বারতা ২৪ এর এম এম কায়সর, নিউ এজ এর আজাদ মজুমদার, মানব কন্ঠের মহিউদ্দিন পলাশ, বৈশাখী টিভি’র এস এম সুমন, বাসস এর আসিফ মাহমুদ ও আরটিভি’র রাজিব খান প্রমুখ। বাংলাদেশ টিমের স্বদেশ যাত্রার মুহূর্তে সর্বশেষ নিউজ আইটেম সংগ্রহের আশায় অনির্ধারিত সিডিউলে অনেক সাংবাদিক খেলোয়াড়দের হোটেলে অবস্থান করায় অনুষ্ঠানে আসতে পারেননি বলে তাদের আনুষ্ঠানিক এপোলজি পাঠান সত্যবাণীর কাছে।

এ সময় অন্যানের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- প্রবীণ সাংবাদিক উদয় শংকর দাশ, ডা. জাকি রেজওয়ানা আনোয়ার, ব্রডকাষ্ট জার্নালিষ্ট ও গবেষক বুলবুল হাসান, টিভি উপস্থাপিকা উর্মী মাজহার, খ্যাতিমান সঙ্গীত শিল্পী গৌরি চৌধুরী, সত্যবাণীর কন্ট্রিবিউটিং এডিটর আনসার আহমেদ উল্লাহ, বার্তা সম্পাদক নিলুফা হাসান, স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট মতিয়ার চৌধুরী, ব্যবস্থাপনা সম্পাদক ফেরদৌসি কলি, লন্ডন বাংলা প্রেস ক্লাব সহসভাপতি তারেক চৌধুরী,  সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য, চ্যানেল এস রিপোর্টার ইব্রাহিম খলিল, বাংলা প্রেস ক্লাব সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য আব্দুল কাইয়ুম, শাহনাজ সুলতানা, ইউকে বিডিটাইমস নির্বাহী সম্পাদক আমিমুল ইসলাম তামিম, চ্যানেল এস সিলেট প্রতিনিধি মঈনুদ্দিন মন্জু, এস এ টিভি’র যুক্তরাজ্য প্রতিনিধি হেফাজুল করিম রাকিব, সময় টিভি’র শুয়েব কবির ও অনলাইন নিউজ পোর্টাল নিউজলাইফ২৪ এর সম্পাদক শেখ মহিতুর রহমান বাবলু, রাজনীতিক সৈয়দ এনামুল ইসলাম, যুক্তরাজ্য জাসদ সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আবুল মনসুর ও যুবনেতা জামাল খান প্রমুখ।

অনুষ্ঠানের প্রধান আকর্ষণ আবদুল গাফফার চৌধুরী তার বক্তৃতায় ভারতীয় উপমহাদেশে ক্রিকেট বিস্তৃতির ইতিহাসের দিকে আলোকপাত করে বলেন, নবাব পাতৌদী এক সময় ছিলেন ভারতীয় ক্রিকেট টিমের অধিনায়ক। ওই সময় ইংল্যান্ডে আয়োজিত একটি খেলায় ভারত হেরে গেলে একজন ইংরেজ ক্রিকেট ভাষ্যকার কিছুটা খোঁচা দিয়ে তাকে বলেছিলেন, ভারত চমৎকার খেলেছে। এর উত্তরে পাতৌদী বলেছিলেন ‘এটাই শেষ খেলা নয়, আরও হবে।'

গাফফার চৌধুরী বলেন, পাতৌদী ঠিকই বলেছিলেন, এরপর আরো অনেক খেলা এসেছে, ওইসব খেলায় ক্রিকেটের জনকদেরও মাঝে মধ্যে হার মানতে হয়েছে সাধারণ মানুষ থেকে উঠে আসা ক্রিকেটারদের কাছে।

ক্রিকেট আজ অভিজাত শ্রেণি ও সাধারণ মানুষকে এক কাতারে এনে দাঁড় করিয়েছে, এমন মন্তব্য করে ইতিহাসের জীবন্ত স্বাক্ষী গাফ্ফার চৌধুরী বলেন, সাধারণ মানুষ থেকে উঠে আসা বাংলাদেশের খেলোয়াররা আজ বিশ্ব ক্রিকেটের মাঠ কাঁপাচ্ছে, জীবনের শেষ প্রান্থে এসে আমার মত একজন মানুষের জন্য এটি এক বিরাট পাওয়া।

সফলতার অব্যাহত পথ চলায় মাঝে মধ্যে একটু ছেদ পড়লে ভক্তদের হতাশ না হওয়ার আহবান জানিয়ে তিনি বলেন, আমাদের টাইগাররা আজ দেশের দূত হয়ে আলোড়ন তুলেছে বিশ্বব্যপী, তাদের উপর আস্থা রাখুন। এই সোনার ছেলেরা ক্রিকেট বিশ্ব কাপ একদিন বাংলার ঘরে নিয়ে আসবেই।

মুক্তিযুদ্ধের প্রবীন সংগঠক সুলতান শরীফ জাতীর জনক বঙ্গবন্ধুর প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করে বলেন, আমাদের ছেলেরা আজ বিশ্ব ক্রিকেটাঙ্গন কাঁপাচ্ছে বাংলাদেশের জন্মদাতা বঙ্গবন্ধু এটি দেখে যেতে পারেননি। তার দেখানো পথে হাঠতে পারলে শুধু ক্রিকেট নয়, বাংলাদেশের প্রতিটি ক্ষেত্রেই সফলতা এসে ধরা দিতে বাধ্য, এটি আমি নিশ্চিত করে বলতে পারি। 

বিসিবি পরিচালক শফিউল আলম নাদেল ক্রিকেট গার্ডেন পার্টির আয়োজন করায় সত্যবাণী পরিবারকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, বাংলাদেশ ক্রিকেটের আজকের যা অর্জন তার ভাগিদার শুধু ক্রিকেট টিম বা বিসিবিই নয়, পুরো বাংলাদেশের মানুষ। বিশ্বকাপ ক্রিকেট মাঠের গ্যালারিতে টাইগার সমর্থক প্রবাসীদের আলোড়ন জাগানিয়া উচ্ছ্বাসের ব্যাপক প্রশংসা করে তিনি বলেন, বাংলাদেশ বুকে ধারণ করা এই মানুষগুলোর প্রতি বিসিবি’র পক্ষ থেকে আমার শ্রদ্ধা ও স্যালুট। এইসব মানুষের প্রেরণাই বাংলাদেশকে বিশ্ব ক্রিকেটের অন্যতম মধ্যমনি হতে সহায়তা করেছে।

পাকিস্তানের সাথের সর্বশেষ খেলার হতাশাজনক ফলাফলের কথা স্বীকার করে বিসিবি’র এই পরিচালক বলেন, সফলতাগুলো যেমন আমরা উদযাপন করে থাকি, ঠিক তেমনি ব্যর্থতা নিয়েও বিসিবি ও টিমে হয় পর্যালাচনা। সুতরাং পর্যালাচনার মাধ্যমেই আগামীর সফলতা নিশ্চিতে বিশ্বকাঁপানো টাইগাররা অনুশীলন করবে এটি আমার বিশ্বাস। সুতরাং হতাশা থেকে আমরা যেন আস্থাহীন হয়ে না পড়ি, ভক্তদের প্রতি এটিই আমার অনুরোধ।

লন্ডন বাংলা প্রেস ক্লাব সভাপতি এমদাদুল হক চৌধুরী ক্রিকেট নিয়ে এমন একটি মিডিয়া আড্ডা আয়োজনের জন্য ধন্যবাদ জানান সত্যবাণীকে। বলেন, যে ক্রিকেট আজ জাতি হিসেবে আমাদের একটি প্লাটফর্মে এনে মিলিত করেছে সেই ক্রিকেট নিয়ে মিডিয়া আড্ডা অবশ্যই গুরুত্বের দাবি রাখে।

মিডিয়া গার্ডেন পার্টিতে উপস্থিত বাংলাদেশ থেকে আগত সাংবাদিকরা তাদের সম্মানে আয়োজিত এমন একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করায় ধন্যবাদ জানান সত্যবাণী পরিবারকে।

সত্যবাণী উপদেষ্টা সম্পাদক, প্রধান সম্পাদক, বার্তা সম্পাদক, ব্যবস্থাপনা সম্পাদক এবং ন্ট্রিবিউটিং এডিটর সংবাদ মাধ্যমটির লগো খচিত মগ উপহার দিয়ে ঢাকা থেকে আগত সাংবাদিকদের আগমনকে স্বাগত জানান।

অনুষ্ঠানের শেষ পর্যায়ে ছিলো এক সংক্ষিপ্ত সঙ্গীতানুষ্ঠান। এতে সঙ্গীত পরিবেশন করেন ব্রিটেনের খ্যাতিমান সঙ্গীত শিল্পী গৌরি চৌধুরী ও শিশু শিল্পী রাফা হক।

মন্তব্য


অন্যান্য