প্রবাস

পাকিস্তানে বাংলাদেশ হাইকমিশনে বিজয় দিবস উদযাপন

প্রকাশ : ১৬ ডিসেম্বর ২০১৮ | আপডেট : ১৬ ডিসেম্বর ২০১৮

পাকিস্তানে বাংলাদেশ হাইকমিশনে বিজয় দিবস উদযাপন

  অনলাইন ডেস্ক

পাকিস্তানের ইসলামাবাদে বাংলাদেশ হাইকমিশনের উদ্যোগে রোববার যথাযথ মর্যাদা ও উৎসাহ-উদ্দীপনার সঙ্গে মহান বিজয় দিবস উদ্‌যাপন হয়েছে। এদিন হাইকমিশন প্রাঙ্গণে দিনব্যাপী বিজয় দিবসের নানা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

এ উপলক্ষে চান্সারি প্রাঙ্গণ জাতীয় পতাকা, বীরশ্রেষ্ঠদের ছবি ও বিজয় দিবসের পোস্টার এবং অন্যান্য সামগ্রী দিয়ে সাজানো হয়। সকালে চান্সারি প্রাঙ্গণে আনুষ্ঠানিকভাবে জাতীয় পতাকা উত্তোলনের মধ্য দিয়ে বিজয় দিবসের অনুষ্ঠানের সূচনা করেন হাইকমিশনার তারিক আহসান।

পতাকা উত্তোলনের সময় মিশনের সব পর্যায়ের কর্মকর্তা-কর্মচারি উপস্থিত ছিলেন। পরে বিকেলে বিজয় দিবসের তাৎপর্য তুলে ধরে এক আলোচনা অনুষ্ঠান হয়। অনুষ্ঠানের শুরুতে বঙ্গবন্ধু ও শহীদ মুক্তিযোদ্ধাদের স্মৃতির প্রতি সম্মান জানিয়ে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়। এরপর, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুষ্পার্ঘ অর্পণ করে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন হাইকমিশনার ও হাই কমিশনের কর্মকর্তা-কর্মচারিরা।

বিজয় দিবস উপলক্ষে রাস্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, পররাস্ট্র মন্ত্রী ও পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী প্রদত্তবাণী অনুষ্ঠানে পাঠ করা হয়।

অনুষ্ঠানে হাই কমিশনার তারিক আহসান দেশের স্বাধীনতা অর্জনে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও দেশের শ্রেষ্ঠ সন্তান মুক্তিযোদ্ধাদের অবদানের কথা কৃতজ্ঞতার সঙ্গে স্মরণ করেন। তিনি ৩০ লাখ শহীদ, যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা ও দুই লাখ সম্ভ্রম হারানো মা-বোনের প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা জানান। 

তিনি ১৬ ডিসেম্বর মুক্তিযোদ্ধাদের বিজয়কে সামরিক আগ্রাসনের বিরুদ্ধে নৈতিক শক্তির বিজয় হিসেবে উল্লেখ করে বলেন, এই বিজয় অন্যায়ের বিরুদ্ধে ন্যায়ের জয় এবং একটি ঘুনে ধরা সামন্তবাদী ভাবধারার বিপরীতে আধুনিক প্রগতিশীল আদর্শের বিজয়।

আলোচনা শেষে জাতির পিতা ও মুক্তিযুদ্ধে শহীদদের আত্মার মাগফেরাত এবং দেশ ও জাতির সমৃদ্ধি, অগ্রগতি ও কল্যাণ কামনা করে বিশেষ মোনাজাত করা হয়।। এরপর, 'মুক্তিযুদ্ধ ও বিজয়' শীর্ষক একটি প্রামাণ্য ভিডিও চিত্র প্রদর্শন হয়। শেষে এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

মন্তব্য


অন্যান্য