সংসদ

সংসদে উত্তাপ ছড়ালেন বিএনপির দুই এমপি

প্রকাশ : ১১ জুন ২০১৯

সংসদে উত্তাপ ছড়ালেন বিএনপির দুই এমপি

হারুনুর রশীদ ও রুমিন ফারহানা- ফাইল ছবি

  সমকাল প্রতিবেদক

সংসদে উত্তাপ ছড়ালেন বিএনপির দুই সংসদ সদস্য।

'বর্তমান সংসদ জনগণের ভোটে নির্বাচিত নয়'- সংরক্ষিত নারী আসন থেকে নির্বাচিত বিএনপির একমাত্র সদস্য রুমিন ফারহানার এ মন্তব্যে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে সংসদের বৈঠক।

সরকারি দলের মন্ত্রী-এমপিরা একযোগে তার এ বক্তব্যের প্রতিবাদ জানাতে হৈচৈ শুরু করেন। তার বক্তব্যের পুরো সময়েই এমন পরিস্থিতি চলতে থাকে।

পরে রেলমন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজনের প্রস্তাবে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী কার্যপ্রণালি বিধির ৩০৭ ধারা অনুযায়ী ওই বক্তব্য এক্সপাঞ্জ করার ঘোষণা দেন। সরকারি

দলের সদস্যদের হৈচৈয়ের মধ্যেই বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার জামিন প্রসঙ্গ ও তার দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের বিষয়ে বক্তব্য দেন রুমিন ফারহানা।

এ সময় সরকারি দলের সদস্যদের একাধিকবার শান্ত থাকার আহ্বান জানান স্পিকার। কিন্তু চিৎকার-চেঁচামেচির মধ্যেই রুমিন ফারহানার দুই মিনিটের বক্তব্য শেষ হয়। পরে তিনি মাইক ছাড়াই আরও কিছুক্ষণ বক্তব্য দেন, যা সাংবাদিক গ্যালারি থেকে শুনতে পাওয়া যায়নি।

মঙ্গলবার একাদশ সংসদের তৃতীয় অধিবেশনের প্রথম দিনের বৈঠকে এমন পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়। এর আগে বিকেল ৫টায় স্পিকারের সভাপতিত্বে সংসদের বৈঠক শুরু হয়। আগামীকাল এ অধিবেশনেই ২০১৯-২০ অর্থবছরের বাজেট পেশ করবেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। সংসদে যোগ দেওয়ার প্রথম দিন উপলক্ষে রুমিন ফারহানাকে দুই মিনিটের জন্য শুভেচ্ছা বক্তব্য দেওয়ার সুযোগ দেন স্পিকার।

এর আগে মাগরিবের নামাজের বিরতির পর সংসদের বৈঠক শুরু হলে পয়েন্ট অব অর্ডারে দাঁড়িয়ে চাঁপাইনবাবগঞ্জ-৩ আসন থেকে নির্বাচিত বিএনপির আরেক এমপি হারুনুর রশীদ চাঁদ দেখা নিয়ে বিভ্রান্তি তৈরি এবং সংবিধানে বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিমের বাংলা অর্থ সঠিকভাবে লেখা হয়নি- এমন অভিযোগ তোলেন।

একপর্যায়ে তিনি রোজার ঈদের চাঁদ দেখা নিয়ে বিভ্রান্তির দায়ে ধর্ম প্রতিমন্ত্রী শেখ মো. আবদুল্লাহর পদত্যাগও দাবি করেন। তার বক্তব্যের সময়ও সরকারি দলের সদস্যদের হৈচৈ করতে দেখা যায়। এ ছাড়া সংসদের প্রধান বিরোধী দল জাতীয় পার্টির সদস্য রুস্তম আলী ফরাজী ও পীর ফজলুর রহমানও পয়েন্ট অব অর্ডারে দাঁড়িয়ে ঈদের চাঁদ দেখা নিয়ে বিভ্রান্তি তৈরির জন্য ধর্ম প্রতিমন্ত্রীর সমালোচনা করেন।

রোববার সংরক্ষিত নারী সদস্য হিসেবে শপথ নেন রুমিন ফারহানা। মঙ্গলবারই তিনি প্রথম দিনের মতো সংসদের বৈঠকে অংশ নেন। রুমিন ফারহানা বলেন, সংসদে তার প্রথম দিন। যে কোনো রাজনীতিবিদের মতই সংসদে আসা, দেশের কথা ও মানুষের কথা বলা তার স্বপ্ন ছিল; কিন্তু দুর্ভাগ্য তার। তিনি এমন একটি সংসদে প্রতিনিধিত্ব করছেন, যে সংসদটি জনগণের ভোটে নির্বাচিত নয়।

রুমিন ফারহানা আরও বলেন, টিআইবির রিপোর্ট, বিদেশি গণমাধ্যম, বিদেশি পর্যবেক্ষকদের প্রতিবেদন, এমনকি নির্বাচন কমিশনের রিপোর্টেও দেখা যাবে এই সংসদ জনগণের ভোটে নির্বাচিত নয়। সুতরাং এই সংসদের মেয়াদ আর একদিনও যদি না বাড়ে, তাহলে তিনি খুশি হবেন।

তিনি বলেন, এই সংসদে তিনবারের সাবেক প্রধানমন্ত্রী, যিনি জীবনে কোনো দিন কোনো আসন থেকেই পরাজিত হননি, সেই খালেদা জিয়া নেই। তাকে পরিকল্পিতভাবে আটক রাখা হয়েছে।

নিজের আইন পেশার উদ্ধৃতি দিয়ে তিনি বলেন, মামলার মেরিট, শারীরিক অবস্থা, সামাজিক অবস্থান এবং বয়স ও জেন্ডার- সবকিছু বিবেচনায় তাৎক্ষণিক জামিন পাওয়ার যোগ্য খালেদা জিয়া। সরকারের হুমকিতে দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান দেশে ফিরতে পারেন না। তাদের দলের শীর্ষ থেকে তৃণমূল পর্যন্ত একেকজন নেতার নামে শত শত মামলা।

তার এ বক্তব্যের পর রেলমন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজন বলেন, তার (রুমিন ফারহানা) এ বক্তব্য ১৬ কোটি মানুষের প্রতি কটাক্ষ করা হয়েছে। নির্বাচিত একটি সংসদকে অনির্বাচিত এবং অবৈধ বলেছেন। একদিকে তিনি নিজে শপথ নিয়েছেন, অন্যদিকে বলছেন এই সংসদ অবৈধ এবং জনগণ কর্তৃক নির্বাচিত নয়। এই অংশটুকু এক্সপাঞ্জ করার জন্য প্রস্তাব করেন তিনি।

মন্তব্য


অন্যান্য