ময়মনসিংহ

শেরপুরে পুলিশ বিভাগের বৃক্ষ রোপণ কর্মসূচি

প্রকাশ : ২৮ আগষ্ট ২০১৯ | আপডেট : ২৮ আগষ্ট ২০১৯

শেরপুরে পুলিশ বিভাগের বৃক্ষ রোপণ কর্মসূচি

বৃক্ষ রোপণ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন পুলিশ সুপার কাজী আশরাফুল আজীম- সমকাল

  শেরপুর প্রতিনিধি

শেরপুর পুলিশ বিভাগের উদ্যোগে জেলার নকলা ও ঝিনাইগাতী উপজেলায় ১০ হাজার বৃক্ষ রোপণ কার্যক্রমের উদ্বোধন করা হয়েছে। বুধবার দুপুরে ঝিনাইগাতীর আহম্মেদ নগর উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে কর্মসূচির উদ্বোধন করেন পুলিশ সুপার কাজী আশরাফুল আজীম। 

এসময় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ঝিনাইগাতী- নালিতাবাড়ী সার্কেল) মো. জাহাঙ্গীর আলম বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. আনোয়ারুল হক, শিক্ষক সমিতির সম্পাদক জীবন চক্রবর্তী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

পরে বিদ্যালয় মিলনায়তনে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের সঙ্গে ডেঙ্গু জ্বর নিয়ে এক সচেতনতামূলক সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভাশেষে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের মধ্যে লিফলেট বিতরণ করা হয়।

সভায় বক্তারা বলেন, উন্নত ও সমৃদ্ধ বাংলাদেশের স্বপ্ন বাস্তবায়ন ও টেকসই করতে হলে আমাদের একটি সবুজ প্রকৃতি গড়ে তুলতে হবে। পাশাপাশি ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণে নিয়মিত পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রম চালাতে হবে। 

এর আগে নকলা উপজেলার গৌরদ্বার ইউনিয়নের নকলা ঢাকা বাইপাস সড়কের লাভা এলাকায় বৃক্ষ রোপনের উদ্বোধন করেন জেলা পুলিশ সুপার। এসময় এক সমাবেশে নকলা পৌর মেয়র মো. হাফিজুর রহমান লিটন, ইউপি চেয়ারম্যান শওকত হোসেন খান, জেলা পরিষদ সদস্য ছানোয়ার হোসেনসহ এলাকার গণমান্য ব্যাক্তি বক্তব্য রাখেন।

পুলিশ সুপার কাজী আশরাফুল আজীম বলেন, দেশে দিন দিন ভেষজ গাছ কমে যাচ্ছে। শেরপুর গারো পাহাড়ের পাদদেশে অবস্থিত হলেও এক শ্রেণীর বালু খেকো, পাহাড় খেকো দুর্বৃত্তরা এখানে ভেষজ বা ওষুধি গাছ ধংস করে ফেলেছে। আমরা ভেষজ গাছ সংরক্ষণে জেলার নকলা ও ঝিনাইগাতী উপজেলায় ১০ হাজার ভেষজ গাছ রোপণের উদ্যোগ নিয়েছি। প্রাথমিকভাবে আমরা নিম, আমলকি, হরতকি, বহেরা, কাঠ বাদাম, জলপাই গাছের চারাসহ প্রায় ১০ প্রকারের গাছ লাগাবো। পর্যায়ক্রমে মানুষের উপকারে আসে এমন সকল প্রকার ভেষজ গাছ রোপন করা হবে। উদ্বোধনী দিনে নকলা এবং ঝিনাইগাতীতে ৪০০ গাছ রোপন করা হয়।

মন্তব্য


অন্যান্য