ময়মনসিংহ

প্রতিবন্ধী কিশোরকে এমন নির্যাতন!

প্রকাশ : ০৭ জুন ২০১৯

প্রতিবন্ধী কিশোরকে এমন নির্যাতন!

মোশাররফকে নির্যাতনের দৃশ্য। ছবিটি ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়া ভিডিও থেকে নেওয়া

  কিশোরগঞ্জ অফিস

কিশোরগঞ্জের তাড়াইলে চোর অপবাদ দিয়ে দিয়ে মোশারফ নামে এক প্রতিবন্ধী কিশোরকে বেঁধে নির্যাতনের ঘটনা ঘটেছে। বৃহস্পতিবার সকালে উপজেলার দড়িজাহাঙ্গীরপুর গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় অভিযুক্ত সাজ্জাদ হোসেন হিটলারকে আটক করেছে পুলিশ। 

স্থানীয়রা জানায়, ওই কিশোরকে নির্যাতনের দৃশ্য কে বা কারা মুঠোফোনে ভিডেও ধারণ করে ফেসবুকে পোস্ট করে। পরে সেটি ভাইরাল হয়ে যায়। পরে ফেসবুকে দেওয়া ভিডিওর সূত্র ধরে শুক্রবার দুপুরে তাড়াইল থানার ওসি মো. মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে পুলিশ অভিযান চালিয়ে নির্যাতনকারী সাজ্জাদ হাসান হিটলারকে (৩০) আটক করে। 

আটক হিটলার উপজেলার দড়িজাহাঙ্গীরপুর গ্রামের মৃত নূর হোসেনের ছেলে। 

ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়া ভিডিওতে দেখা গেছে, মোশারফকে রশি দিয়ে বেঁধে তার দুই পা এক ব্যক্তি ধরে রেখেছেন। সাজ্জাদ হাসান হিটলার ছেলেটিকে লাঠি দিয়ে বেধড়ক পেটাচ্ছেন। এ সময় চারপাশে লোকজন জড়ো হয়ে দেখছিলেন। মারপিটের সময় মোশারফ চিৎকার করে তার বাবা-মাকে ডাকছিলো।

পুলিশ জানায়, ওই প্রতিবন্ধী কিশোরের বাড়ি উপজেলার রাম শামুকজানি গ্রামে। তার বাবার নাম কেন্তু মিয়া। ওই তরুণ পাশের গ্রাম দড়িজাহাঙ্গীরপুরের অবসরপ্রাপ্ত কাস্টম অফিসার মোখলেসুর রহমান খান শাহানের বাড়ির ছাদে উঠে পাশের নারকেল গাছে ওঠার চেষ্টা করছিল। এ সময় বাড়ির লোকজন মোশারফকে আটক করেন। পরে বাড়ির মালিক মোখলেসুর রহমান খান শাহানের নির্দেশে বাড়ির পাশের গুলবাগ জামে মসজিদের সামনে খোলা মাঠে চোর অপবাদ দিয়ে ছেলেটিকে বেঁধে নির্মমভাবে পেটানো হয়।

তাড়াইল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মুজিবুর রহমান জানান, বিষয়টি তার নজরে আসার পর পরই অভিযুক্তকে ধরতে তারা অভিযান পরিচালনা করেন। দুপুরেই অভিযুক্ত সাজ্জাদ হাসান হিটলারকে আটক করা হয়।

তিনি জানান, এ ঘটনায় মোশারফের বড় ভাই সাদ্দাম হোসেন বাদি হয়ে মোখলেসুর রহমান খান শাহান, আলম ও সাজ্জাদ হাসানসহ অজ্ঞাত কয়েকজনকে আসামি করে শুক্রবার থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। মামলার অন্য আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। 

মন্তব্য


অন্যান্য