ময়মনসিংহ

নিরাপত্তা নিশ্চিতের আশ্বাস

ময়মনসিংহ মেডিকেলে আন্দোলন স্থগিত

প্রকাশ : ১৮ মে ২০১৯ | আপডেট : ১৮ মে ২০১৯

ময়মনসিংহ মেডিকেলে আন্দোলন স্থগিত

ছাত্রীকে বহিরাগত বখাটের শ্নীলতাহানির প্রতিবাদ ও ক্যাম্পাসে সার্বিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করাসহ ১১ দফা দাবিতে দ্বিতীয় দিনের মতো আন্দোলন করে মমেক শিক্ষার্থীরা-সমকাল

  ময়মনসিংহ ব্যুরো

ছাত্রীকে বহিরাগত বখাটের শ্নীলতাহানির প্রতিবাদ এবং ক্যাম্পাসে সার্বিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করাসহ ১১ দফা দাবিতে আন্দোলন স্থগিত করেছেন ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজের (মমেক) শিক্ষার্থীরা। শনিবার তারা দ্বিতীয় দিনের মতো বিক্ষোভ করেন। পরে কর্তৃপক্ষের আশ্বাসে শিক্ষার্থীরা কর্মসূচি স্থগিত করেন।

এদিকে, শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের মুখে শনিবার কলেজ কর্তৃপক্ষ, হাসপাতাল প্রশাসন, ঊর্ধ্বতন পুলিশ কর্মকর্তা, শিক্ষার্থী ও ইন্টার্ন প্রতিনিধি এবং কর্মচারী নেতাসহ সংশ্লিষ্ট বিভাগের প্রধানদের যৌথসভা হয়েছে। সভায় ক্যাম্পাসের সার্বিক নিরাপত্তায় সিসি ক্যামেরা স্থাপন, ছাত্রী হোস্টেলে কাঁটা তারের বেড়া ও সার্বক্ষণিক আনসার, ক্যাম্পাসে পুলিশের টহল, ছাত্র হোস্টেলের সীমানা প্রাচীর নির্মাণ এবং শিক্ষার্থী নির্যাতনকারী বহিরাগতকে অবিলম্বে গ্রেফতারসহ ১১ দফা দাবি পর্যায়ক্রমে মেনে নেওয়ার আশ্বাস দেওয়া হয়। আশ্বাস পেয়ে বিকেল সাড়ে ৩টায় শিক্ষার্থীরা আন্দোলন স্থগিত করেন।

কলেজের অধ্যক্ষ ডা. আনোয়ার হোসেনের সভাপতিত্বে যৌথ সভায় মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের উপ-পরিচালক ডা. লক্ষ্মী নারায়ণ মজুমদার, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ডিএসবি) জয়িতা শিল্পী, ময়মনসিংহ সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আল আমিন, কলেজের উপাধ্যক্ষ অধ্যাপক আবুল হোসেন, ছাত্রলীগ সভাপতি আতিকুর রহমান তুষার প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

কোতোয়ালী মডেল থানার ওসি মাহমুদুল ইসলাম জানান, বর্তমানে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। ছাত্রীর শ্নীলতাহানির ঘটনায় জড়িত বহিরাগতকে চিহ্নিত করে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। অধ্যক্ষ ডা. আনোয়ার হোসেন জানান, ক্যাম্পাসের নিরাপত্তায় ও শিক্ষার্থীদের দাবিসমূহ পর্যায়ক্রমে বাস্তবায়নের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

শিক্ষার্থীরা জানান, দাবি মেনে নেওয়ার আশ্বাসে আন্দোলন স্থগিত করা হয়েছে। আগামী জুনের মধ্যে দাবিসমূহ বাস্তবায়ন না হলে ফের কর্মসূচি দেওয়া হবে। 

গত ১৫ মে সন্ধ্যায় ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজের এক ছাত্রী হোস্টেলে প্রবেশের সময় বহিরাগত এক বখাটে তার শ্নীলতাহানির চেষ্টা করে। ঘটনার প্রতিবাদে বৃহস্পতিবার থেকে আন্দোলন করে আসছিলেন শিক্ষার্থীরা।

মন্তব্য


অন্যান্য