জীবনশৈলী

ফাস্টফুডে বাড়ছে শিশুর স্থূলতা

প্রকাশ : ০৬ জানুয়ারি ২০১৯

ফাস্টফুডে বাড়ছে শিশুর স্থূলতা

প্রতীকী ছবি

  ডা. আবু সাঈদ শিমুল

শিশুদের খাওয়া নিয়ে অনেক মা চিন্তিত হলেও ইদানীং উল্টো চিত্র দেখা যাচ্ছে। নাগরিক জীবনযাত্রা আর খেলাধুলার অভাবে শিশুদের অনেকেই এখন মুটিয়ে যাচ্ছে। এর ফলে ডায়াবেটিস, কিডনিসহ নানা অসুখে শিশুরা আক্রান্ত হচ্ছে।

অবশ্য এই স্থূলতার অনেক কারণ রয়েছে। এর মধ্যে একটি হলো বংশগত। বাবা-মা যদি পারিবারিকভাবে স্থূল হন, শিশু একটু স্থূল হওয়ার আশঙ্কা থাকে। আগে শিশুদের স্কুলের পর বাইরে খেলার যথেষ্ট সুবিধা ছিল। এখন খেলার মাঠ তেমন নেই। আর ভুল স্কুল ব্যবস্থাপনাও ক্ষতির কারণ।

৫ থেকে ৬ বছরের একটি শিশু সকাল থেকে রাত পর্যন্ত কোচিং ও পড়াশোনায় ব্যস্ত থাকে। এতে করে তার সামাজিক বন্ধন গড়ে ওঠার সুযোগ নেই। সে শারীরিক কার্যক্রমও করছে না। এর কারণে স্থূল হয়। আবার অতিরিক্ত স্নেহের কারণে শিশু ফাস্টফুড খাচ্ছে। এতে শিশু স্থূল হচ্ছে।

শিশু বয়স থেকেই মায়েদের সচেতন হতে হবে। শিশু বয়সে খাবারের জন্য এত পীড়াপীড়ি করার দরকার নেই। ডিম, দুধ, মাছ, মাংস বেশি খাওয়াতে হবে। আর এর সঙ্গে কার্বোহাইড্রেট, মানে ভাত, রুটি, চিনি— এগুলো প্রয়োজনীয় পরিমাণে খেতে হবে। এ ছাড়া শাকসবজি ও ফলমূল খাওয়ার জন্য বেশি বেশি তাগিদ দিতে হবে।

সফট ড্রিংকস একেবারেই নিষিদ্ধ করতে হবে। এর পরিবর্তে পানি পানের বিষয়টিকে গুরুত্ব দিতে হবে। এসব অভ্যাস ছোটবেলা থেকেই তৈরি করতে হবে। অন্যথায় খুবই অসুবিধা হবে।

খেলাধুলার জন্য একটি নির্দিষ্ট সময় বেছে নিতে হবে। শিশুরা যেন অবশ্যই খেলাধুলায় দেড় থেকে দুই ঘণ্টা ব্যয় করে। কেবল কম্পিউটারে বসে থাকার অভ্যাস থেকে বেরিয়ে আসতে হবে। এ বিষয়ে লক্ষ্য রাখুন। শিশুর যত্ন নিন, ভালো থাকুন।


লেখক: কনসালট্যান্ট  শিশু বিভাগ  মুগদা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল

মন্তব্য


অন্যান্য