সাক্ষাৎকার

সাক্ষাৎকার :আইজিপি

নির্বাচনোত্তর সহিংসতায় জড়ালে ছাড় নেই

প্রকাশ : ০৩ জানুয়ারি ২০১৯ | আপডেট : ০৩ জানুয়ারি ২০১৯ | প্রিন্ট সংস্করণ

নির্বাচনোত্তর সহিংসতায় জড়ালে ছাড় নেই

  সাহাদাত হোসেন পরশ

'দেশে একটা শান্তিপূর্ণ নির্বাচন হয়েছে। এখন নির্বাচন-পরবর্তী কোনো সহিংসতা বরদাশত করা হবে না। দলমত নির্বিশেষে দোষীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে; সেটা যে বা যাদের বিরুদ্ধেই হোক। নোয়াখালীতে ধর্ষণের ঘটনায় জড়িত কেউ ছাড় পাবে না। জড়িত সবাইকে দ্রুত সময়ের মধ্যে গ্রেফতার করতে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। ঘটনাস্থল পরিদর্শনে একজন অতিরিক্ত ডিআইজিসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের পাঠানো হয়েছে।' গতকাল বুধবার দুপুরে পুলিশ সদর দপ্তরে একান্ত সাক্ষাৎকারে এসব কথা বলেন আইজিপি ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী।

পুলিশ মহাপরিদর্শক বলেন, অতীতের যে কোনো নির্বাচনের তুলনায় একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ হয়েছে। তুলনামূলকভাবে সংঘাত ও রক্তারক্তির ঘটনা কম ঘটেছে। তিনটি ধাপে সারাদেশে আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে ছক করা হয়েছিল। নির্বাচন-পূর্ববর্তী, নির্বাচনকালীন ও নির্বাচনোত্তর। দুটি ধাপ এরই মধ্যে সুন্দরভাবে সম্পন্ন হয়েছে। নির্বাচনোত্তর পরিস্থিতিও বেশ ভালো। দু-একটি ঘটনার খবর আসছে। তবে নির্বাচন-পরবর্তী এসব সহিংসতার ঘটনায় কেউ জড়ালে বিন্দুমাত্র ছাড় দেওয়া হবে না।

আইজিপি আরও বলেন, এ দেশের মানুষ ২০১৩-১৪ সালের ভয়ঙ্কর জ্বালাও-পোড়াও দেখেছে। তখন কী ভীতিকর অবস্থা তৈরি করা হয়েছিল, তা সবার মনে আছে। যেভাবে সাধারণ জনগণ সহিংসতার শিকার হয়েছে, সেটা ছিল অকল্পনীয়। তখন একজন রিকশাওয়ালা, একজন খেটে খাওয়া মানুষ হয়তো গাড়িতে যাচ্ছিল, তাকে আগুনে জ্বালিয়ে দেওয়া হচ্ছিল। যে মানুষটি সহিংসতার শিকার হয়েছিল তার সঙ্গে রাজনীতির কোনো সম্পৃক্ততা ছিল না। কিন্তু তাকে জীবন দিতে হয়েছে। তার পরিবার এখনও হয়তো রাস্তায় দিনাতিপাত করছে। সে সময় আমাদের অনেক সহকর্মীকেও হারিয়েছি। তাদের পরিবারে যারা বেঁচে আছেন, এখন তাদের অবস্থা কী? মানুষ সহিংসতা চায় না। এটা এ নির্বাচনে আমাদের কাছে প্রতীয়মান হয়েছে। মানুষ সুন্দর জীবন চায়। তাই এবার নির্বাচন ঘিরে দেশব্যাপী সহিংসতার ঘটনা কম হয়েছে।

জাবেদ পাটোয়ারী বলেন, স্বাধীনতার পর এই প্রথম নির্বাচনকালীন সহিংসতা ছিল সর্বনিম্ন পর্যায়ে। সাধারণ মানুষকে অবশ্যই ধন্যবাদ জানাই। সব শ্রেণি-পেশার মানুষ আমাদের সহায়তা করেছে। সহিংসতার খবরও 'গ্লোরিফাই' করা ঠিক নয়। এতে যারা সহিংসতায় জড়ায়, তারা উৎসাহিত হয়। নির্বাচন-পরবর্তী সহিংসতা যাতে না ঘটে, সেদিকে এখন আমাদের নজর। সারাদেশে এ ব্যাপারে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে সজাগ করা হয়েছে। জিরো টলারেন্স নীতি নিয়ে এ ব্যাপারে সার্বক্ষণিক নজর রাখা হচ্ছে।

পুলিশ মহাপরিদর্শক বলেন, পুলিশের প্রতি মানুষের আস্থা বেড়েছে। সারাদেশে নির্বাচনকালীন সহিংসতা কম হওয়া সে রকম একটা বার্তা। এবার নির্বাচনকালীন দায়িত্ব পালনকালে পুলিশের কোনো সদস্যকে হারাতে হয়নি। পুলিশপ্রধান হিসেবে এটা একধরনের আত্মতৃপ্তির জায়গা।

এক প্রশ্নের জবাবে ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী বলেন, নোয়াখালীর ধর্ষণের ঘটনায় জড়িত সবাইকে দ্রুত সময়ের মধ্যে গ্রেফতারের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এরই মধ্যে তিনজন গ্রেফতার হয়েছে। ওই ঘটনায় জড়িত কেউ ছাড় পাবে না।

মন্তব্য


অন্যান্য