আন্তর্জাতিক

কুকুর ভেবে ভাল্লুক পুষে গ্রেফতার গায়িকা

প্রকাশ : ১৮ জুন ২০১৯ | আপডেট : ১৮ জুন ২০১৯

কুকুর ভেবে ভাল্লুক পুষে গ্রেফতার গায়িকা

  অনলাইন ডেস্ক

কুকুর ভেবে বাড়িতে পুষছিলেন এক ভাল্লুক! খবর জানাজানি হতেই হাতে হাতকড়া পড়লো মালয়েশিয়ার গায়িকা জারিথ সোফিয়া ইয়াসিনের। খবর এনডিটিভির।

তবে নিজের যুক্তি থেকে একচুল সরতে নারাজ গায়িকা। জানালেন, ছোট অবস্থায় যখন ভাল্লুকটিকে বাড়িতে নিয়ে এসেছিলেন তখন নাকি কুকুরছানার মতোই দেখতে ছিল এটি! 

২৭ বছরের জারিথের দাবি করেন, রাতে রাস্তার ধারে কুড়িয়ে পেয়েছিলেন ছানাটিকে। দেখে মনে হয়েছিল কুকুরছানা।

রিয়েলিটি শো রকানোভার প্রাক্তন প্রতিযোগী আরও জানিয়েছেন, কোনোভাবেই তিনি বন্যপ্রাণী সংরক্ষণ আইন ভাঙতে চাননি।

তিনি বলেন, ভাল্লুকের মতো বন্যপ্রাণীকে যে বাড়িতে পোষা যায় না, সেটা জানি। আমার তেমন কোনো ইচ্ছেও ছিল না। শুধু চেয়েছিলাম, একরত্তি ছানাটাকে সুস্থ করতে।

জারিথ জানিয়েছেন, প্রাণীটি সুস্থ হলেই নাকি তাকে চিড়িয়াখানায় রেখে আসতেন। 

বন্যপ্রাণী দফতর এবং পেনিনসুলারের চিড়িখানা কর্তৃপক্ষ যৌথভাবে অভিযান চালায় কুয়ালালামপুরে গয়িকার বাড়িতে। সেখান থেকেই উদ্ধার করা হয় ভাল্লুকটিকে। সেই ছবি তুলে সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেন জারিথের এক প্রতিবেশী।

সেই ভিডিও ভাইরাল হতেই অনেকেই দাবি করেছেন, জারিথা অনৈতিকভাবে ভাল্লুকটিকে বন্দি করে রেখেছিলেন। তার উদ্দেশ্য ছিল প্রাণীটিকে বিক্রি করা। 

অভিযোগ খারিজ করে গায়িকা বলেন, সারাক্ষণ আমি গান নিয়ে ব্যস্ত। নানা জায়গায় শো করে বেড়াই। আমার সময় কোথায় প্রাণী কেনাবেচার! আর এভাবে বাড়িতে একটি প্রাণীকে পুষে কি ব্যবসা চালানো সম্ভব!


মন্তব্য


অন্যান্য