আন্তর্জাতিক

সর্বোচ্চ শক্তি দিয়ে দাঙ্গা মোকাবিলা করবে শ্রীলংকা: পুলিশ প্রধান

প্রকাশ : ১৪ মে ২০১৯

সর্বোচ্চ শক্তি দিয়ে দাঙ্গা মোকাবিলা করবে শ্রীলংকা: পুলিশ প্রধান

দাঙ্গা চলাকালে বেশ কয়েকটি দোকানে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয়-রয়টার্স

  অনলাইন ডেস্ক

ইস্টার সানডেতে গির্জা ও হোটেলে সিরিজ হামলার পর শ্রীলংকায় মুসলিমবিরোধী দাঙ্গা ভয়াবহ রূপ নিয়েছে। দাঙ্গা মোকাবিলায় সর্বোচ্চ শক্তি প্রয়োগ করা হবে বলে জানিয়েছে দেশটি। খবর বিবিসির।

রাজধানী কলম্বোর উত্তরের তিন জেলায় দাঙ্গা ভয়ঙ্কর রূপ ধারণ করেছে। সোমবার রাত ৯টা থেকে মঙ্গলবার ভোর ৪টা পর্যন্ত দাঙ্গা ঠেকাতে কারফিউ জারি করা হয়।

কারফিউ চলা অবস্থায় রাতে পুট্টালাম জেলায় ৪৫ বছর বয়সী এক মুসলিম নিহত হয়েছেন। মসজিদ এবং মুসলিম মালিকানাধীন দোকানগুলোতে ভাংচুর করে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয়েছে।  

পুলিশ জানিয়েছে, এখনও কিছু জায়গায় কারফিউ চলছে। উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলের প্রদেশে পরবর্তী নির্দেশ না পাওয়া পর্যন্ত কারফিউ চলবে।

একটি টেলিভিশন চ্যানেলে পুলিশ প্রধান চন্দনা উইকরামরত্ন জানিয়েছেন,  দাঙ্গা ঠেকাতে সর্বোচ্চ সেনা মোতায়েন করবে শ্রীলংকা।

প্রধানমন্ত্রী রনীল উইকরেসিংহে বলেন, একটি গোষ্ঠী দেশকে অস্থিতিশীল করার জন্য পরিকল্পিতভাবে এসব ঘটনা ঘটাচ্ছে। তাদের রুখতে কারফিউ জারি করা হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলীয় প্রদেশের বেশ কয়েকটি স্থানে এই গোষ্ঠী হামলা চালিয়েছে। তাদের ধরার চেষ্টা চলছে।

জনগণকে শান্ত থাকার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, উদ্ভূত পরিস্থিতির কারণে গির্জা ও হোটেলে বোমা হামলার তদন্তে বিঘ্ন ঘটছে। প্রকৃত অপরাধীদের খুঁজে বের করতে আপনারা সহযোগিতা করুন, শান্ত থাকুন।   

গত রোববার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে একটি পোস্টকে কেন্দ্র করে মুসলিমবিরোধী দাঙ্গা ছড়িয়ে পড়ে। 

এরপর সোমবার থেকে কারফিউ জারি করা হয়। ভুল তথ্য ও গুজব ঠেকাতে ফেসবুকসহ সব সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম বন্ধ রাখা হয়।

মন্তব্য


অন্যান্য