শিল্প-বাণিজ্য

জাল নোট শনাক্তের বুথ থাকবে কোরবানির পশুর হাটে

প্রকাশ : ৩১ জুলাই ২০১৯ | আপডেট : ৩১ জুলাই ২০১৯

জাল নোট শনাক্তের বুথ থাকবে কোরবানির পশুর হাটে

ছবি: সমকাল

  সমকাল প্রতিবেদক

কোরবানির পশুর হাটে নগদ লেনদেনকে কেন্দ্র করে অপরাধীদের তৎপরতা ঠেকাতে কয়েক বছরের ধারাবাহিকতায় এবারও রাজধানীসহ দেশের সব জেলা-উপজেলার গুরুত্বপূর্ণ পশুর হাটে থাকবে ব্যাংকের বুথ।

ঈদের আগের রাত পর্যন্ত এসব বুথ থেকে বিনামূল্যে জাল নোট শনাক্তকারী সেবা দেবে ব্যাংকগুলো। মঙ্গলবার এ সংক্রান্ত একটি প্রজ্ঞাপন জারি করে ব্যাংকগুলোর প্রধান নির্বাহীদের কাছে পাঠানো হয়।

ঢাকার দুই সিটি করপোরেশনের অনুমোদিত ২৪টি পশুর হাটে কোথায় কোন ব্যাংক দায়িত্ব পালন করবে তার একটি তালিকা দেওয়া হয়েছে। ঢাকার বাইরে বাংলাদেশ ব্যাংকের ৮টি শাখা থেকে একইভাবে দায়িত্ব ভাগ করে দেওয়া হবে। অন্য জেলার সিটি করপোরেশন, পৌরসভা ও থানা বা উপজেলা পর্যায়ের অনুমোদিত বিভিন্ন পশুর হাটে সোনালী ব্যাংকের চেস্ট শাখা দায়িত্ব বণ্টন করে দেবে।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, জাল নোট শনাক্তকারী মেশিনের সহায়তায় অভিজ্ঞ ক্যাশ কর্মকর্তাদের দ্বারা হাট শুরুর দিন থেকে ঈদের আগের রাত পর্যন্ত বিরতিহীনভাবে বিনা খরচে নোট যাচাই সেবা দিতে হবে। বুথ স্থাপনের সুবিধার্থে ও প্রয়োজনীয় সহযোগিতার জন্য সিটি করপোরেশন কর্তৃপক্ষ, জেলা মিউনিসিপ্যালিটি কর্তৃপক্ষ এবং উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বা পৌরসভা কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করতে হবে। সার্বিক নিরাপত্তার জন্য পুলিশ, র‌্যাব ও আনসার কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ রাখতে বলা হয়েছে। নোট যাচাইকালে জাল নোট ধরা পড়লে সে ক্ষেত্রে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নির্দেশনার আলোকে ব্যবস্থা নিতে হবে। প্রতিটি বুথে 'জাল নোট শনাক্তকরণ বুথ' ব্যানার টানাতে হবে। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতি সংবলিত ১০০, ৫০০ ও ১০০০ টাকার নোটের নিরাপত্তা বৈশিষ্ট্য সংবলিত পোস্টার প্রদর্শন করতে হবে।

কোন হাটে কোন ব্যাংকের বুথ: ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন এলাকায় এবার ১৪ স্থানে কোরবানির পশু বেচাকেনা হবে। এসব হাটে মোট ৩৩টি বুথ স্থাপন করবে ব্যাংকগুলো। এর মধ্যে খিলগাঁও রেলগেট এলাকার খালি জায়গার হাটে থাকবে এবি ও ব্র্যাক ব্যাংকের বুথ। জিগাতলা-হাজারীবাগ এলাকায় থাকবে এক্সিম ও এনআরবি গ্লোবাল ব্যাংক। লালবাগের রহমতগঞ্জ হাটে থাকবে ন্যাশনাল ও মার্কেন্টাইল ব্যাংক। কামরাঙ্গীরচর বুড়িগঙ্গা নদীর বাঁধ সংলগ্ন হাটে থাকবে ন্যাশনাল ও সাউথইস্ট ব্যাংক। পোস্তগোলা শ্মশানঘাট এলাকার হাটে থাকবে রূপালী ও ইসলামী ব্যাংক। কদমতলীর শ্যামপুর বালুর মাঠ সংলগ্ন হাটে জনতা ও পদ্মা ব্যাংক, খিলগাঁওয়ের মেরাদিয়া বাজার এলাকায় ফার্স্ট সিকিউরিটি, পূবালী ও বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংক।

এছাড়া ৩২নং ওয়ার্ডের সামসাবাদ মাঠ সংলগ্ন সিটি করপোরেশনের খালি জায়গায় এনসিসি, অগ্রণী ও বেসিক ব্যাংকের বুথ থাকবে। গোপীবাগ বালুর মাঠ ও কমলাপুর স্টেডিয়াম সংলগ্ন বিশ্ব রোডের আশপাশের খালি জায়গায় ডাচ্‌-বাংলা, এনসিসি ও সাউথ বাংলা ব্যাংক, শনির আখড়া ও দনিয়া মাঠ সংলগ্ন হাটে মধুমতি, ইসলামী ব্যাংক ও মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংক এবং ধূপখোলা এলাকায় থাকবে ডাচ্‌-বাংলা ও এসআইবিএল। কাউয়ার টেক মাঠ সংলগ্ন এলাকায় স্ট্যান্ডার্ড ও আল-আরাফাহ্‌ ইসলামী ব্যাংক, আফতাবনগর ইস্টার্ন হাউজিং এলাকার হাটে ব্র্যাক, রূপালী ও এনআরবি ব্যাংক এবং আমুলিয়া মডেল টাউনের আশপাশের খালি জায়গায় এনআরবি কমার্শিয়াল ও সোনালী ব্যাংক বুথ স্থাপন করবে।

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের ১০টি হাটে থাকবে ২৪টি বুথ। এর মধ্যে গাবতলী পশুর হাটে থাকবে সোনালী, ইউনিয়ন, সীমান্ত ও পূবালী ব্যাংক। উত্তরা ১৫নং সেক্টরে থাকবে ইউসিবিএল, শাহ্‌জালাল ইসলামী ও ঢাকা ব্যাংক। ভাটারা পশুর হাটে থাকবে যমুনা ও জনতা ব্যাংক। এ ছাড়া ঢাকা পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের খেলার মাঠে ওয়ান ও উত্তরা ব্যাংক, মোহাম্মদপুর বুদ্ধিজীবী সড়ক সংলগ্ন পুলিশ লাইনে অগ্রণী ও মেঘনা ব্যাংক, মিরপুর ৬নং সেকশনের ইস্টার্ন হাউজিংয়ের খালি জায়গায় সিটি ও প্রিমিয়ার ব্যাংক, মিরপুর ডিওএইচএসে প্রাইম ও মিডল্যান্ড ব্যাংক, বাড্ডা ইস্টার্ন হাউজিং এলাকায় ব্যাংক এশিয়া, মার্কেন্টাইল ও প্রাইম ব্যাংক, কাওলা শিয়ালডাঙ্গা এলাকায় আইএফআইসি ব্যাংক এবং ভাসানটেক এলাকায় থাকবে ইস্টার্ন ও উত্তরা ব্যাংকের বুথ।

মন্তব্য


অন্যান্য