হলিউড

বাংলাদেশে ৯০ মিলিয়ন ডলারের নতুন স্পাইডার ম্যান

প্রকাশ : ২৬ ডিসেম্বর ২০১৮ | আপডেট : ২৬ ডিসেম্বর ২০১৮

বাংলাদেশে ৯০ মিলিয়ন ডলারের নতুন স্পাইডার ম্যান

‘স্পাইডার-ম্যান: ইনটু দ্য স্পাইডার-ভার্স’ ছবিটি মুক্তি পাচ্ছে ২৮ ডিসেম্বর

  অনলাইন ডেস্ক

বাংলাদেশে মুক্তি পাচ্ছে অ্যানিমেটেড সুপারহিরো ছবি ‘স্পাইডার-ম্যান: ইনটু দ্য স্পাইডার-ভার্স’। আগামী ২৮ ডিসেম্বর স্টার সিনেপ্লেক্সে মুক্তি পাবে ছবিটি। ব্রায়ান মাইকেল বেন্ডিস ও সারা পিচেলির গল্প ‘মাইলস মোরালেস’ অবলম্বনে ছবিটির চিত্রনাট্য তৈরি করেছেন ফিল লর্ড ও রডনি রথম্যান। পরিচালনা করেছেন বব পার্সিচেটি, পিটার রামসে এবং রডনি রথম্যান।

ছবির বিভিন্ন চরিত্রে রয়েছেন শেমিক মুর, হেইলি স্টেইনফিল্ড, মাহেরশালা আলী, জেক জনসন, লিভ শেরেবের, ব্রায়ান টিরি হেনরি, লুনা লরেন ভেলেজ এবং লিলি টমলিন। কলাম্বিয়া পিকচার্সের প্রযোজনায় ছবিটির পরিবেশনায় রয়েছে সনি পিকচার্স। 

‘স্পাইডার-ম্যান: ইনটু দ্য স্পাইডার-ভার্স’  ছবির একটি দৃশ্য

গত ১ ডিসেম্বর লস অ্যাঞ্জেলেসে ছবিটির ওয়ার্ল্ড প্রিমিয়ার হয়। মুক্তির আগেই দর্শক-সমালোচকদের মন জয় করে নিয়েছে ছবিটি। অ্যানিমেশনে অভিনবত্ব, ভয়েস-অ্যাকটিং, চরিত্র, গল্প এবং রসায়ন বিশেষ প্রশংসা অর্জন করে। ইতোমধ্যে ৭৬তম গোল্ডেন গ্লোব অ্যাওয়ার্ডস-এ সেরা অ্যানিমেটেড ছবি হিসেবে মনোনয়ন পেয়েছে এ ছবি। ১৪ ডিসেম্বর আন্তর্জাতিকভাবে মুক্তি পাওয়ার পর দর্শকদের সাড়া বেড়ে গেছে কয়েকগুন। ৯০ মিলিয়ন ডলার বাজেটের ছবিটি ইতোমধ্যে বক্স অফিসে আয় করেছে প্রায় ১৩০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার।  

২০১৪ সালে এ ছবির পরিকল্পনা শুরু হয়। আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা করা হয় ২০১৫ সালে। মুর এবং শেরেবারের সাথে পার্সিচেটি, রামসে এবং রথম্যান পরবর্তী দুই বছরে যোগ দেন। লর্ড অ্যান্ড মিলার এই চলচ্চিত্রটির নিজস্ব স্টাইলটি চেয়েছিলেন, যা মাইলস মোরালেসের সহ-সৃষ্টিকর্তা সারা পিচেলির কাজ দ্বারা অনুপ্রাণিত। প্রথাগত হাত-আঁকা কমিক বই কৌশলগুলির সাথে চিত্রকর্মগুলোর অভ্যন্তরীণ কম্পিউটার অ্যানিমেশনকে মিশ্রিত করে। ছবির অ্যানিমেশনের জন্য ১৪০ জন অ্যানিমেটর কাজ করেন, যা এ যাবৎকালে সনি পিকচার্সের অ্যানিমেশন ছবিতে ব্যবহৃত সবচাইতে বড় টিম।

সংশ্লিষ্ট খবর


মন্তব্য যোগ করুণ

পরের
খবর

ক্ষমা চাইতে বলায় অস্কার উপস্থাপনায় 'না'


আরও খবর

হলিউড

কেভিন হার্ট - ফাইল ছবি

  অনলাইন ডেস্ক

যুক্তরাষ্ট্রের লস অ্যাঞ্জেলেসে বসবে এবারের অস্কারের আসর। চলচ্চিত্র দুনিয়ার সবচেয়ে সম্মানজনক এই পুরস্কার অনুষ্ঠান এ বছর ৯১তম বছর উদ্‌যাপন করতে যাচ্ছে।

হাতে একদম সময় নেই। কিন্তু এরই মাঝে জানা গেল, দু:সংবাদ। অস্কার কর্তৃপক্ষ এখনও ঠিক করতে পারে নি এবারের আসরের উপস্থাপকের নাম!

ডেইলি মেইল জানায়, উপস্থাপক ছাড়াই অনুষ্ঠিত হতে পারে অস্কার পুরস্কার। জানা গেছে, উপস্থাপক  ছাড়াই অনুষ্ঠানের বিভিন্ন অংশ  উপস্থাপনার জন্য একাধিক তারকাদের মঞ্চে ডাকা হবে। কিন্তু কে থাকবেন উপস্থাপকের ভূমিকায়, তা  এখনও চূড়ান্ত  তালিকা তৈরি করতে পারেনি অস্কার কর্তৃপক্ষ।   

আর এই পুরো ঘটনার পেছনে কেভিন হার্ট ইস্যুই অন্যতম কারণ বলে মনে করছেন চলচ্চিত্র বিশেষজ্ঞরা।

প্রথমে এবছরের অস্কার পুরস্কারের সঞ্চালক হিসেবে অভিনেতা কেভিন হার্টের নাম ঘোষণা করেছিল অস্কার কর্তৃপক্ষ। সম্প্রতি কেভিনের পুরনো কিছু টুইট ভাইরাল হয়। ওই টুইটে বর্ণ বিদ্বেষমূলক মন্তব্য করেছিলেন কেভিন।

এ ব্যাপারে কেভিনকে ক্ষমা চাইতে বলেছিল অস্কার কর্তৃপক্ষ। কেভিন তাতে রাজি না হয়ে বরং অস্কার কর্তৃপক্ষকে জানিয়ে দেন, তিনি অনুষ্ঠানে উপস্থাপনা করছেন না।   ‌‌

সংশ্লিষ্ট খবর

পরের
খবর

আমেরিকা ও বাংলাদেশে একই দিনে ‘রেপ্লিকাস’


আরও খবর

হলিউড

‘রেপ্লিকাস’ ছবির একটি দৃশ্য

  অনলাইন ডেস্ক

আন্তর্জাতিকভাবে শুক্রবার মুক্তি পাচ্ছে সায়েন্স ফিকশন থ্রিলার সিনেমা ‘রেপ্লিকাস’।  একই দিনে বাংলাদেশের স্টার সিনেপ্লেক্সেও মুক্তি পাবে ছবিটি। জেফ্রে নাচম্যানফ পরিচালিত ছবিটির চিত্রনাট্য লিখেছেন চাদ সেন্ট জন। ছবির প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেছেন ‘দ্য ম্যাট্রিক্স’ তারকা কিয়ানু রিভস। আরও অভিনয় করেছেন এলিস ইভ, টমাস মিডলদেচ ও জন অর্টিজ প্রমুখ। অভিনয়ের পাশাপাশি ছবিটির প্রযোজনায়ও যুক্ত আছেন কিয়ানু রিভস। 

মানব ক্লোনিং নিয়ে নৈতিক ও আইনি বিতর্ক চলছে বেশ কিছুদিন ধরে। ভবিষ্যত প্রজন্মকে এর ক্ষতিকর প্রভাব থেকে সুরক্ষার জন্য বিশ্বের অধিকাংশ দেশই মানব ক্লোনিং নিষিদ্ধ করেছে। তবে কিছু কিছু দেশ এখনো গোপনে বিষয়টি নিয়ে কাজ করছে। এর মধ্যেই সেই ঘরানার কাহিনি নিয়ে হলিউডে নির্মিত হলো কল্প-বিজ্ঞানভিত্তিক সিনেমা ‘রেপ্লিকাস’। ছবিতে সিন্থেথিক বায়োলজিস্ট ও নিউরো সায়েন্টিস্ট উইলিয়াম ফস্টার চরিত্রে দেখা যাবে কিয়ানু রিভসকে। যিনি মানুষের চেতনাকে সফলভাবে কম্পিউটার প্রোগ্রামে স্থানান্তর করতে পারেন।

এক গাড়ি দুর্ঘটনা তার পরিবার নিহত হয়। উইল স্ত্রী ও সন্তানদের ক্লোন তৈরি করতে চান। এ কাজে সাহায্য করে সহকর্মী এড হুইটল। এ দিকে চেতনা স্থানান্তর বা ক্লোন রেপ্লিকা তৈরি আইন ও বিজ্ঞানের সূত্রের বিরোধী। তাই তাদের সবকিছু করতে হয় গোপনে। এক পর্যায়ে অন্য রকম বিপদে পড়ে যান উইল। যাকে বলা হয় ‘সোফিস চয়েস’। উইলকে পরিবারের চার সদস্য থেকে তিনজনকে ক্লোনের জন্য বেছে নিতে হবে। তিনি কাকে বাদ দেবেন? এভাবে এগিয়ে চলে ছবির কাহিনি। সম্প্রতি ফিনল্যান্ডের নাইট ভিশনস ইন্টারন্যাশনাল ফিল্ম ফেস্টিভ্যালে ছবিটি প্রদর্শিত হয়েছে। সেখানে বিভিন্ন দেশ থেকে আমন্ত্রিত চলচ্চিত্র-সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা ছবিটি দেখে প্রশংসা করেছেন। ছবিটিকে এ সময়ের একটি সাহসী নির্মাণ বলে উল্লেখ করেছেন অনেকে। মূল চরিত্রে কিয়ানু রিভসের অভিনয় আকৃষ্ট করেছে দর্শকদের।


সংশ্লিষ্ট খবর

পরের
খবর

গোল্ডেন গ্লোবে 'বোহেমিয়ান রাপসডি' ও লেডি গাগার জয়জয়কার


আরও খবর

হলিউড

`অ্যা স্টার ইজ বর্ন’ ছবিটির ‘শ্যালো’ গানের জন্য পুরস্কার জিতেছেন লেডি গাগা

  অনলাইন ডেস্ক

১৯৪৪ সাল থেকে হলিউড ফরেন প্রেস অ্যাসোসিয়েশন প্রদান করে আসছে গোল্ডেন গ্লোব অ্যাওয়ার্ড। হলিউডের টিভি ও চলচ্চিত্রে সেরা কাজের স্বীকৃতি স্বরুপ দেয়া হয়ে এ পুরস্কার। ৬ জানুয়ারি রাতে যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ার বেভারলি হিলসে (বাংলাদেশ সময় সোমবার সকাল) অনুষ্ঠিত হয় গোল্ডেন গ্লোবসের ৭৬তম আসর।

বেস্ট ড্রামা অ্যাক্টর পুরস্কার জিতেছেন রামি মালেক

এবারের আয়োজনে চলচ্চিত্র ও টেলিভিশন মিলিয়ে মোট ২৭টি বিভাগে পুরস্কার দেওয়া হয়। অভিনয়শিল্পী, পরিচালক, লেখক ও প্রযোজকরা তাদের সেরা কাজের জন্য পেয়েছেন এই গোল্ডেন গ্লোব পুরস্কার। আসরে এবার উপস্থাপক হিসেবে ছিলেন অভিনেতা ও কমেডিয়ান অ্যান্ডি স্যামবার্গ ও অভিনেত্রী সান্ড্রা ওহ।

গোল্ডেন গ্লোবের এবারের আসরে 'বোহেমিয়ান রাপসডি' ছবি জিতেছে প্রধান দুটি পুরস্কার। বেস্ট ড্রামা এবং বেস্ট ড্রামা অ্যাক্টর পুরস্কার জিতে নিয়েছে ছবিটি। ফ্রন্টম্যানের চরিত্রে অভিনয় করে এই পুরস্কার জিতেছেন রামি মালেক। 

গ্লোল্ডেন গ্লোব অ্যাওয়ার্ড বিজয়ীরা

অন্যদিকে পাঁচটি নমিনেশন পেয়েও মাত্র একটি পুরস্কার জিতে হতাশ করেছে ‘অ্যা স্টার ইজ বর্ন’ ছবিটি। বেস্ট অরিজিনাল সং এর পুরস্কার জিতে নিয়েছে ছবিটি। এই  ছবির ‘শ্যালো’ গানের জন্য পুরস্কার জিতেছেন লেডি গাগা। ‘গ্রিন বুক’ ছবিটি জিতেছে তিনটি পুরস্কার। সেরা স্ক্রিন প্লে, সেরা কমেডি ফিল্ম এবং সেরা সহ-অভিনেতার (মাহেরশালা আলি) পুরস্কার জিতেছে ছবিটি।

সেরা অভিনেত্রীর পুরস্কার জিতেছেন গ্লেন ক্লোজ (দ্য ওয়াইফ)। সেরা অভিনেতা (মিউজিক্যাল অথবা কমেডি) পুরস্কার নিয়েছেন ক্রিশ্চিয়ান বেল (ভাইস) এবং সেরা অভিনেত্রী (মিউজিক্যাল অথবা কমেডি) হয়েছেন অলিভিয়া কোলম্যান (দ্য ফেভারিট)। এছাড়াও চলচ্চিত্রের বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে পুরস্কার পেয়েছেন রেজিনা কিং, আলফনসো কুয়ারন, জাস্টিন হারউইৎজ, লেডি গাগা এবং জেফ ব্রিজেস।


সংশ্লিষ্ট খবর